ফের মানবিক প্রশাসন! দেবদূতের মতোই আত্মহত্যার থেকে বাঁচালো যুবককে

ফের মানবিকতার নজির গড়ল দিল্লি প্রশাসন (Delhi Police)। রাজধানীর মঙ্গলপুরী অঞ্চলে দুই পুলিশ 'দেবদূত'-এর মতোই বাঁচালেন অকালে নষ্ট হয়ে যাওয়া এক জীবন।

ফের মানবিক প্রশাসন! দেবদূতের মতোই আত্মহত্যার থেকে  বাঁচালো যুবককে

আত্মঘাতী যুবককে বাঁচালেন দুই পুলিশ

ফের মানবিকতার নজির গড়ল দিল্লি প্রশাসন (Delhi Police)। রাজধানীর মঙ্গলপুরী অঞ্চলে দুই পুলিশ 'দেবদূত'-এর মতোই বাঁচালেন অকালে নষ্ট হয়ে যাওয়া এক জীবন। খবর, লকডাউনের অবসাদে ভুগে আত্মহত্যার চেষ্টা করতে গিয়েছিলেন। ফ্লাইওভার থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে সে। আচমকাই সেখানে পৌঁছে যান দু'জন পুলিশ। বিষয়টি বুঝতে পেরে সঙ্গে সঙ্গে তাঁরা শক্ত করে হাত ধরেন যুবকের। টেনে নামিয়ে আনেন তাঁকে। শুধু এটুকুই নয়, ফ্লাইওভারের নীচে একটি আবর্জনা ফেলার এমসিডি ট্রাক পর্যন্ত দাঁড় করিয়ে রাখে। যদি, হাত ফস্কে নীচেও পড়ে যান ওই যুবক, তাহলেও প্রাণ বাঁচবে তাঁর। খবর প্রকাশ্যে আসার পরেই দুই পুলিশ কর্মীর এই ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন সবাই।

ইনস্টায় পরিচয়, টিকটকে ডেটিং! লকডাউন উঠলেই কি সপ্তপদী?

দিল্লি প্রশাসন আরও জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে দশটায় তিলক নগরীর বাসিন্দা ৩০ বছর বয়সী ওই যুবক আউটার রিং রোড ফ্লাইওভার থেকে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেন। ঠিক সেই সময় সময় মঙ্গলপুরী থানার দুই কনস্টেবল ধীরজ এবং জয়প্রকাশ সেখানে পৌঁছে যান। এবং বাঁচান তাঁকে। খবর, যুবকের স্ত্রী ও এক সন্তান রয়েছে। লকডাউনে কাজ হারিয়ে বেকার হয়ে তিনি বাড়ি ফেরেন। তারপর থেকেই রোজগারের অভাবে নিত্য অশান্তি লেগে থাকত পরিবারে। সেই অশান্তি, সেই অবসাদ থেকেই যুবক আত্মহত্যার চেষ্টা করেন যুবক, এমনটাই মন করেন দুই কনস্টেবল।

লকডাউনে একদল বাঁদরকে খাওয়াচ্ছে প্রশাসন, দেখুন ভাইরাল ভিডিও

একই সঙ্গে তাঁরা সোশ্যালে এই বার্তাও পাঠান সমস্ত দেশবাসীর উদ্দেশ্যে, আত্মহত্যা কোনও সমস্যার সমাধান নয়। এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি আপনি বা আপনার পরিচিত কেউ হল দয়া করে নিকটস্থ মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের কাছে যান। কিন্তু কখনোই নিজের অমূল্য জীবন শেষ করবেন না। শেষ হতে দেবেন না।