উঁচু ডিভাইডারের একপাশে আটকে শাবক! কীভাবে উদ্ধার করল মা হাতি, দেখুন ভিডিও

শুক্রবার সকাল ৭.৩০টা নাগাদ অনীশ-সহ চারজন সাইকেল প্রাতর্ভ্রমণে বেরিয়েছিলেন। সেই সময় তাঁদের চোখে পড়ে দুটি শাবক-সহ মা হাতি ডিভাইডার পেরিয়ে একপাশে চলে এসেছে।

সেই ডিভাইডার পার হতে গিয়ে বিপাকে পড়ে সেই শাবক।

তিরুবনন্তপুরম:

রাস্তার ডিভাইডারের একটু উঁচু। তাই এপাশে আটকে ছানা। তাকে নিজের পাশে আনতে কসরতের কসুর করছে না মা (Mother Elephant)। কেরলের মল্লপুরম জেলার এই ভিডিও সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে। কয়েকজন প্রাতর্ভ্রমণকারী এক মিনিটের সেই ভিডিও টুইটারে পোস্ট করেছেন। যা দেখে অস্তিত্বের সংগ্রাম শব্দটা ঘুরেফিরে আসছে নেটিজেনদের মুখে। মল্লপুরমের নাদুকানি চুরমের অনীশ কাটা এই ভিডিও পোস্ট করেন। জানা গিয়েছে, শুক্রবার সকাল ৭.৩০টা নাগাদ অনীশ-সহ চারজন সাইকেল প্রাতর্ভ্রমণে বেরিয়েছিলেন। সেই সময় তাঁদের চোখে পড়ে দুটি শাবক-সহ মা হাতি ডিভাইডার পেরিয়ে একপাশে চলে এসেছে। আর একটা বাচ্চা হাতি নিজের উচ্চতার কারণে ওপারে আটকে। সেই উচ্চতা টপকাতে শুঁড় দিয়ে টেনে আটকে থাকা শাবককে উদ্ধারে মরণপণ সংগ্রাম করছে সেই হাতি। এরপরে কোনওভাবে শুঁড়ে পেঁচিয়ে সেই শাবককে উদ্ধার করে মা হাতি। গোটা এই কাণ্ড ধরা পড়েছে অনিলের মোবাইল ক্যামেরায়।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে অনীশ এনডিটিভিকে বলেন, "লকডাউনের জন্য রাস্তায় গাড়ি-মানুষ কম ছিল। আন্তঃরাজ্য সীমান্ত হওয়ায় কিছু সব্জির গাড়ি ছিল। হাতি ও তার ছানার কাণ্ড দেখে তারাও দাঁড়িয়ে পড়ে। প্রায় আধঘণ্টা চলেছে এই লড়াই। যা দেখে আমরা বলতে পারি মায়ের কাছে সন্তানের নিরাপত্তা সব।"

সেই ভিডিও টুইট করে প্রাণীবিদদের কাছে পৌঁছে দিয়েকেন প্রাক্তন পরিবেশমন্ত্রী জয়রাম রমেশ।

দেখুন সেই টুইট: 

সেই ভিডিও রিটুইট করে জয়রাম রমেশ লেখেন, "কেন আমাদের পরিকাঠামো বন্যপ্রাণীর কথা ভেবে তৈরি হবে না। দেখুন এই ভিডিও। রাস্তার ট্রাকচালকদের ধন্যবাদ। তাঁরা ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করেছেন। শাবক-সহ ওই হাতিকে বনে ঢুকতে দিতে সাহায্য করেছে।"

Click for more trending news