This Article is From May 05, 2020

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় "পুলিশ রাজ" চালাচ্ছেন, ফের আক্রমণ করলেন রাজ্যপাল

West Bengal Governor: মুখ্যমন্ত্রীর "ক্ষমতার দখলদারি এবং সংবিধান বহির্ভূত" কাজ সম্পর্কে পশ্চিমবঙ্গের জনগণ সচেতন, এমনটাও বলেন জগদীপ ধনখড়

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Jagdeep Dhankhar: মানুষের মতপ্রকাশ করার অধিকারকেও নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করছে রাজ্য সরকার, বললেন রাজ্যপাল

কলকাতা:

করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) সংক্রমণ পরিস্থিতি যখন দেশ তথা রাজ্যে ক্রমেই জটিল আকার ধারণ করছে, ঠিক সেই সময়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের (Jagdeep Dhankhar) মধ্যে দ্বন্দ্বও বেড়েই চলেছে। মুখ্যমন্ত্রী পশ্চিমবঙ্গে পুলিশি রাজ চালাচ্ছেন, এভাবেই আক্রমণাত্মক ভাষায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করলেন রাজ্যপাল (West Bengal Governor)। পাশাপাশি স্বৈরাচারী দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে যেভাবে মুখ্যমন্ত্রী "ক্ষমতার দখলদারি এবং সংবিধান বহির্ভূত" কাজ করে চলেছেন সেসম্পর্কে রাজ্যের মানুষ ভালোভাবেই সচেতন বলে স্পষ্ট জানান তিনি।

গত কয়েক দিনে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতির ক্রমশই অবনতি হচ্ছে এই বিষয়টি চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে ধনখড় বলেন, রাজ্য এক ভয়ঙ্করতম পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। সাধারণ মানুষের পাশাপাশি সংবাদমাধ্যমেরও কণ্ঠরোধ করার চেষ্টা করছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী, এই অভিযোগও করেন রাজ্যপাল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় "সরকার এবং সিন্ডিকেট", একসঙ্গে চালাচ্ছে, অভিযোগ করেন জগদীপ ধনখড়।

এর আগে শনিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছ থেকে ১৩ পৃষ্ঠার চিঠি পাওয়ার পরেই টুইটে ক্ষোভ উগরে দেন রাজ্যপাল। পাল্টা ৪ পৃষ্ঠার একটি চিঠিও মুখ্যমন্ত্রীকে পাঠান তিনি। সেখানে রাজ্যপাল সাফ জানান যে, তিনি তাঁর দায়বদ্ধতা, সীমাবদ্ধতা, ক্ষমতা এবং কর্তৃত্ব সম্পর্কে ভালভাবেই অবগত এবং রাষ্ট্রের কল্যাণকে মাথায় রেখে তিনি সবসময় সংবিধান মেনেই কাজ করেন ও ভবিষ্যতেও করবেন।