প্রধানমন্ত্রী কেন ৯ মিনিটের কথা বলেছেন? কটাক্ষের সুরে টুইট করলেন শশী থারুর

টুইট করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে তোপ দাগেন কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর।

প্রধানমন্ত্রী কেন ৯ মিনিটের কথা বলেছেন? কটাক্ষের সুরে  টুইট করলেন শশী থারুর

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করেন কংগ্রেস শশী থারুর। (ফাইল)

নয়া দিল্লি:

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (PM Modi) বিরুদ্ধে সরব হলেন কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর। এদিন তিনি ( Sashi Tharoor) টুইটে লেখেন, "নয় সংখ্যার সঙ্গে কী সুন্দর হিন্দুত্বকে মিশিয়ে দিলেন তিনি। এটা দুর্ঘটনা না। বরং রামনবমীর সকাল ৯ টায়, ৯ মিনিটের জন্য যে বক্তৃতা তিনি দিয়েছেন, তাতে আমাদের প্রদীপ আর মোমবাতি জ্বালানোর পরামর্শ দিয়েছেন উনি। এর ফলে হিন্দুত্বের সব ভাবাবেগ রামের ভরসায় চলে গেল।" ইতিমধ্যে শুক্রবারের ভাষণের প্রেক্ষিতে সমালোচনায় সরব বিরোধী দলগুলো। করোনাকে (Coronavirus) জব্দ করতে প্রধানমন্ত্রী এই বার্তা দিলেও, নেই কোনও বৈজ্ঞানিক যুক্তি।  

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে যেভাবে দেশবাসী লকডাউনের সময় ঘরে থেকে নিঃশব্দ এক লড়াই করছেন তার জন্যে ধন্যবাদ জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শুক্রবার এক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশের সব মানুষের প্রতি নতুন এক বার্তা দিলেন তিনি। ৫ এপ্রিল রবিবার, রাত ৯টায় ঘরের সব আলো বন্ধ করে ঘরের দরজা বা বারান্দায় দাঁড়িয়ে ৯ মিনিটের জন্যে মোমবাতি, প্রদীপ, টর্চ বা মোবাইলের ফ্ল্যাশ লাইট জ্বালানোর অনুরোধ করলেন প্রধানমন্ত্রী। ২৪ মার্চ দেশ জুড়ে ২১ দিনের লকডাউন করার ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি, তার ঠিক ৯ দিন পরে এটাই দেশবাসীর প্রতি তাঁর প্রথম বার্তা। এর আগে ভারতে করোনা মহামারী ক্রমশই মারাত্মক উদ্বেগের কারণ হয়ে ওঠার পর দু-দু'বার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন তিনি। তাঁর প্রথম ভাষণে, তিনি একদিনের জন্যে জনতা কারফিউ করার আহ্বান জানিয়েছিলেন এবং ২৪ শে মার্চ দ্বিতীয় ভাষণে তিনি COVID-19-এর বিস্তার রোধে গোটা দেশে লকডাউন চালু করার ঘোষণা করেন।

নিজামুদ্দিন মসজিদের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া ৯৬০ বিদেশিকে কালো তালিকাভুক্ত করল কেন্দ্র

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী মোদি সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গেও এক বৈঠক করেন এবং লকডাউন পর্ব শেষ হওয়ার পরে জনগণের জীবনযাত্রা যাতে সুরক্ষিত থাকে তার জন্যে একটি বিশেষ পরিকল্পনা নেওয়ার কথা বলেন তিনি। "লকডাউন শেষ হওয়ার পরে জনগণকে অচলাবস্থা থেকে আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে একটি সামগ্রিক পরিকল্পনা নেওয়া জরুরি", বলেন প্রধানমন্ত্রী । করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে সব রাজ্যকে ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি। তাঁর এই আবেদনকে কটাক্ষ করে টুইট করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ মহুয়া মৈত্রও। 

দেখে নিন সাংসদের সেই টুইট: 

টুইট করে তোপ দেগেছেন প্রবীণ কংগ্রেস নেতা পি চিদাম্বরম। রসিকতা করে টুইট করেন অভিনেত্রী তাপসী পান্নুও।