করোনার প্রভাব বাড়ছে, অমিত শাহের সঙ্গে লকডাউন নীতি নিয়ে আলোচনায় উদ্বিগ্ন প্রধানমন্ত্রী

Coronavirus lockdown: বৃহস্পতিবারই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ৩১ মে তারিখের পরেও লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হবে কিনা তা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে আলোচনা করেন

করোনার প্রভাব বাড়ছে, অমিত শাহের সঙ্গে লকডাউন নীতি নিয়ে আলোচনায় উদ্বিগ্ন প্রধানমন্ত্রী

Coronavirus lockdown: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২৫ মার্চ থেকে দেশে লকডাউন জারির ঘোষণা করেন

হাইলাইটস

  • ৩১ মে পর্যন্ত দেশে লকডাউন জারি রয়েছে
  • এই লকডাউনের মেয়াদ ফের বাড়ানো হবে কিনা তাই নিয়েই ভাবনাচিন্তা চলছে
  • স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে শুক্রবার বৈঠক করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি
নয়া দিল্লি:

আগামী রবিবার অর্থাৎ ৩১ মে তারিখে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও বর্তমান করোনা (Coronavirus) পরিস্থিতিতে আদৌ লকডাউন (Coronavirus Lockdown) তোলা হবে কিনা তা নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। শুক্রবারই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের (Amit Shah) সঙ্গে লকডাউনের ভবিষ্যৎ নিয়ে গভীর আলোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।একটি সূত্র জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী মোদি (Narendra Modi) এবং অমিত শাহ চলতি লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি করা হবে কিনা সেবিষয়েই নাকি আলোচনা করেছেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে ঠিক কী কৌশল নেওয়া যায় তা নিয়েও দু'জনে আলোচনা করেছেন বলে খবর। কেননা ২৫ মার্চ তারিখ থেকে একটানা দেশে লকডাউন চলছে। ফলে দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি একেবারে তলানিতে। করোনা সংক্রমণ থেকে নিজেদের বাঁচিয়ে কীভাবে ফের স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে পারে ভারত তা নিয়েই চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। সামগ্রিকভাবে এইসহ বিষয় নিয়েই আলোচনায় বসেন মোদি-শাহ জুটি।

মমতা মন্ত্রিসভায় করোনার থাবা, দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু কোভিড- ১৯ পজিটিভ

বৃহস্পতিবারই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ৩১ মে তারিখের পরেও লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হবে কিনা তা নিয়ে বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে আলোচনা করেন। অনেক মুখ্যমন্ত্রীই লকডাউন বাড়ানোর পক্ষে মত দিয়েছেন বলে খবর।

৩০ জুনের পর রাজ্যের স্কুলগুলো খুললেও একদিন অন্তর একদিন ক্লাস হবে!

সেই সঙ্গে জানা গেছে বৃহস্পতিবার সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরাই করোনা পরিস্থিতির সতর্কতার মধ্যেই কীভাবে এগিয়ে যেতে চান সে সম্পর্কে নিজেদের মতামতও জানিয়েছেন। এছাড়া গত কয়েক দিন ধরে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ও আগামী জুন থেকে দেশকে কীভাবে স্বাভাবিক পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায় তা নিয়েও পর্যালোচনা করছে।

এর আগে যখন লকডাউন ৪.০ ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি তার আগে তিনি ভার্চুয়াল বৈঠকে সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে আলোচনা করেন ও তাঁদের পরামর্শ নেন।

এদিকে সূত্রের খবর পশ্চিমবঙ্গের ক্রমবর্ধমান করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতিতে লকডাউনের মেয়াদ আরও কিছুদিন বাড়ানোর পক্ষেই নাকি মতপ্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত মোট ৪,৫৩৬ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং এখনও পর্যন্ত এই রোগে আক্রান্ত হয়ে পশ্চিমবঙ্গে মারা গেছেন ২২৩ জন মানুষ। 

এদিকে পশ্চিমবঙ্গের মতোই গোটা দেশেও বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন আরও ৭৪৬৬ জন। শুক্রবার সকালে স্বাস্থ্য মন্ত্রক থেকে এই পরিসংখ্যান জানানো হয়েছে। এই প্রথম দেশে একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা ৭০০০ ছাড়ালো। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যা ১৭৫। এই নিয়ে টানা সাত দিন দেশে দৈনিক কোভিড-১৯ (COVID-19) সংক্রমণের সংখ্যা ৬,০০০-এর উপরে ছিল। এখনও পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে, দেশে মোট করোনা আক্রান্ত ১,৬৫,৭৯৯ জন। মৃত ৪,৭০৬।