জাহাজকে আলোকিত করে করোনা যোদ্ধাদের কুর্নিশ জানাল ভারতীয় নৌসেনা

সাদার্ন ন্যাভাল কমান্ডের অন্তর্গত সেই জাহাজ রঙিন আলো জ্বালানোর পাশাপাশি সাইরেন বাজিয়ে অভ্যর্থনা জানিয়েছে করোনা যোদ্ধাদের

জাহাজকে আলোকিত করে করোনা যোদ্ধাদের কুর্নিশ জানাল ভারতীয় নৌসেনা

রবিবার সন্ধ্যায় রঙিন আলোয় সেজে উঠল উপকুলরক্ষী বাহিনীর জাহাজ।

নয়া দিল্লি:

করোনা যোদ্ধাদের সম্মান জানাতে রঙিন আলোয় সেজে উঠল কোস্ট গার্ডের (Cost Guard) জাহাজ। রবিবার সন্ধ্যায় পোর্ট ব্লেয়ারে উপকুলরক্ষী বাহিনীর এক জাহাজে ঝিকিমিকি এই আলো জ্বলতে দেখা গিয়েছে। সূত্রের খবর, চিকিৎসক-সহ অন্য করোনা যোদ্ধাদের (Corona Warriors) সম্মানার্থে এই উদ্যোগ। এদিন সকালে ভারতীয় বায়ুসেনা আকাশপথে হাসপাতালে-হাসপাতালে পুষ্পবৃষ্টি করেছে। সেনাবাহিনীর তরফে করোনা যোদ্ধাদের সম্মান জানাতে সেই উদ্যোগ। শুক্রবার ঘোষণা করেছিলেন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত। তবে শুধু পোর্টব্লেয়ার নয়, এরনাকুলামে নোঙ্গর করা ভারতীয় নৌ বাহিনীর (Indian Navy) একটা জাহাজ একই পথে হেঁটেছে। সাদার্ন ন্যাভাল কমান্ডের অন্তর্গত সেই জাহাজ রঙিন আলো জ্বালানোর পাশাপাশি সাইরেন বাজিয়ে অভ্যর্থনা জানিয়েছে করোনা যোদ্ধাদের। 

এদিকে, যুদ্ধবিমান বহনকারী আইএনএস বিক্রমাদিত্যেেও দেখা গিয়েছে আলো জ্বলতে। সেই যুদ্ধজাহাজে সবুজ বক্সিং গ্লাভস জ্বলছিল।আলোর খেলায়  সেই গ্লাভসকে করোনা মতো দেখতে একটা গোল সার্কেলকে পাঞ্চ করতে দেখা গিয়েছে।

দেখে নিন ভারতীয় নৌ সেনার সেই টুইট: 

এদিকে, ভারতীয় বায়ুসেনার জেট ও পরিবহন বিমান থেকে রবিবার ফুলের পাপড়ি ছড়ানো হবে হাসপাতাল ও জাতীয় পর্যায়ে গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলির উপরে। পাশাপাশি নৌসেনার তরফে জাহাজগুলিতে জ্বালানো হবে আলো। আর এই সবই করা হবে করোনা ভাইরাসের  সংক্রমণ রুখতে স্বাস্থ্যকর্মী ও অন্যান্য আপৎকালীন কর্মীদের শ্রদ্ধা জানাতে। শুক্রবার চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত তিন সেনাপ্রধানের সঙ্গে ঘোষণা করেন এব্যাপারে। জানান, বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রদর্শনের জন্যই এই পদক্ষেপ করবেন তাঁরা। তিনি বলেন, ‘‘আমরা আমাদের কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই প্রত্যেক করোনা যোদ্ধা এবং দেশের সমস্ত নাগরিককে। ৩ মে সেনাবাহিনীর তিন শাখার তরফ থেকে বিশেষ সম্মান প্রদর্শন করা হবে।''

পরিযায়ী শ্রমিকদের ভাড়া দিয়ে উঠতে হবে স্পেশাল ট্রেনে! মন্ত্রকের সিদ্ধান্তে আপত্তি বিরোধীদের

অপরদিকে, এই বিশেষ সম্মান প্রদর্শনের অন্যতম হল বায়ুসেনার ‘ফ্লাই পাস্ট'। আকাশপথে কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী এবং উত্তর-পূর্বের অসম থেকে গুজরাতের কচ্ছ পর্যন্ত পাড়ি দেওয়া। এদিকে নৌবাহিনী জাহাজগুলিকে আলোকসজ্জায় সজ্জিত করবে ভারতীয় উপকূলে। হেলিকপ্টারে হাসপাতালগুলির উপরে ফুলের পাপড়ি বর্ষণ করা হবে। হাসপাতালের বাইরে সেনাবাহিনীর তরফে ব্যান্ড বাজানো হবে অধিকাংশ জেলার হাসপাতালের সামনে। এর আগে আপৎকা‌লীন কর্মীদের প্রতি সম্মান জানানোর প্রথম ঘটনাটি ঘটে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অনুরোধে। সেই সময় সকলে ব্যালকনি থেকে হাততালি দিয়েছিলেন। এরপর আলো নিভিয়ে মোমবাতি জ্বালিয়েও সকলকে সম্মান জানানোর আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।