১৪ এপ্রিলের পর উঠবে লকডাউন, কী জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

India Lockdown:দিল্লিতে লকডাউন প্রত্যাহার নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে কোনও মন্তব্য করেননি কেন্দ্রীয়মন্ত্রী প্রকাশ জাভরেকড়

১৪ এপ্রিলের পর উঠবে লকডাউন, কী জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

COVID-19 India lockdown Extend: এখনও পর্যন্ত ভারতে করোনা আক্রান্ত ৪,০০০ এর বেশি (ফাইল)

হাইলাইটস

  • করোনার প্রকোপ বাড়ায় আরও অপেক্ষা করতে হতে পারে: প্রকাশ জাভরেকড়
  • তিনি বলেন, “এলাকা করোনামুক্ত সুনিশ্চিত হলেই তোলা হবে লকডাউন”
  • কেন্দ্র জানায়, “দেশের স্বার্থে” সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে
নয়াদিল্লি:

লকডাউন (Lockdown) কবে উঠবে তা নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে উত্তরপ্রদেশের এক শীর্ষ আধিকারিক জানালেন, যেহেতু করোনা (COVID-19)  সংক্রমণের প্রকোপ বাড়ছে, ফলে দীর্ঘদিন অপেক্ষা করতে হতে পারে সাধারণ  মানুষকে। যদিও কেন্দ্রের তরফে বলা হয়েছে, “দেশের স্বার্থে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে” এবং “সঠিক সময়ে তা জানানো হবে”। উত্তরপ্রদেশের অতিরিক্ত মুখ্যসচিব অবনীশ ওয়াস্থি বলেন, “যখন আমরা লকডাউন প্রত্যাহার করব, তার আগে আমরা দেখব রাজ্য যাতে করোনা মুক্ত হয়। যদি একজনও করোনা আক্রান্ত থাকে, তাহলেও লকডাউন প্রত্যাহার করা কঠিন এবং সেই জন্যই সময় লাগতে পারে”। যদিও কেন্দ্রের তরফে লকডাউন নিয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর প্রকাশ জাভরেকড় বলেন, “আমরা সবসময়েই আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রের পরিস্থতির দিকে নজর রাখছি। দেশের স্বার্থে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সঠিক সময়ে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হবে”।

করোনা মোকাবিলায় নীতি নির্ধারক কমিটি গঠন করা হবে: মুখ্যমন্ত্রী

তিনি বলেন, “পরিস্থিতি পর্যালোচনা করার জন্য আধিকারিকরা রয়েছেন”।

২৪ মার্চ দেশজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, ১৫  এপ্রিল শেষ হচ্ছে সেই মেয়াদ।

গত সপ্তাহে, মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠকে, লকডাউনের পরে, পরিস্থিতি নিয়ে প্রস্তাব দেওয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেন, “লকডাউন শেষ হলে থমকে থাকা পরিস্থিতির স্বাভাবিক করতে একটি কমন ফর্মূলা তৈরির প্রয়োজন”, রাজ্যগুলির থেকে এনিয়ে প্রস্তাবের আহ্বান জানান তিনি।

অনেকের বিশ্বাস, লকডাউন বাড়াতে পারে সরকার, তবে অত্যাবশকীয় পণ্য এবং অর্থনীতি নিয়ে খোঁচা দেন অনেকেই।

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে ভারতকে ২.৯ মিলিয়ন ডলার অনুদান ইউএস-এর

অনিশ্চিত একটি রিপোর্টে জানা গিয়েছে, কৃষিক্ষেত্রকে ছাড় দেওয়া হতে পারে, আংশিকভাবে খোলা হতে পারে বিমান পরিষেবা এবং বিভিন্ন জায়গায় পুরোপুরি লকডাউন থাকতে পারে।

পরিস্থিতি অনুযায়ী, সিদ্ধান্ত নেওয়ার ব্যাপারটি রাজ্যের হাতে ছাড়া হতে পারে।

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, “১৫ এপ্রিল লকডাউন প্রত্যাহার করা হবে। আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে, যাতে জমায়েত না হয়। লকডাউন প্রত্যাহারের পর, যদি জমায়েত হয়, তাহলে আমাদের সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ হবে”।

ভারতে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ৪,০০০ এর বেশি, মৃতের সংখ্যা ১০৯।