আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতির মামলায় জামিন পেলেন পি চিদাম্বরম

যদিও ৭৪ বছর বয়সী কংগ্রেস নেতা P Chidambaram অবশ্য এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের হেফাজতেই থাকবেন বলে জানিয়েছে শীর্ষ আদালত

আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতির মামলায় জামিন পেলেন পি চিদাম্বরম
নয়া দিল্লি:

আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতির মামলায় (INX Media case) জামিন পেলেন পি চিদাম্বরম, বর্তমানে তিনি (P Chidambaram) এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের হেফাজতে রয়েছেন । ওই দুর্নীতি মামলায় ৫সেপ্টেম্বর থেকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে থাকা প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীকে জামিন দেয় সুপ্রিম কোর্ট। যদিও ৭৪ বছর বয়সী ওই কংগ্রেস নেতা অবশ্য এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের হেফাজতেই থাকবেন বলে জানিয়েছে শীর্ষ আদালত । সুপ্রিম কোর্ট জানায়, পি চিদাম্বরমকে "অন্য কোনও মামলায় প্রয়োজন না হলে মুক্তি দেওয়া যেতে পারে"।  আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় ৭৪ বছর বয়সী ওই কংগ্রেস নেতাকে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের হেফাজতে পাঠায় দিল্লির একটি বিশেষ আদালত।  এর আগে ওই প্রবীণ কংগ্রেস নেতা দিল্লির তিহার জেলে ছিলেন। গত সপ্তাহে তিহার জেল থেকে তাঁকে ইডির হেফাজতে নিয়ে আসা হয়।

পি চিদাম্বরমকে হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য তদন্ত সংস্থার এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের আবেদন মঞ্জুর করে আদালত। পাশাপাশি প্রবীণ কংগ্রেস নেতাকে বাড়ির রান্না করা খাবার, একটি পৃথক সেল, পশ্চিমী কায়দার শৌচাগার, চশমা ও ওষুধ দেওয়ার অনুমতিও দেয় আদালত। তবে পি চিদাম্বরমকে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ঘরে রাখার জন্য তাঁর অনুরোধের বিরোধিতা করে ইডি।

সিবিআইয়ের চার্জশিটে "মার্জনা" তালিকায় পি চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে অভিযোগকারী ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়!

পাশাপাশি প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরমকে প্রতিদিন আধ ঘণ্টার জন্য তাঁর পরিবারের সদস্য এবং আত্মীয়দের সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতিও দেওয়া হয়েছিল।

এর আগে আইএনএক্স মিডিয়া কেলেঙ্কারিতে তাঁকে ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের হেফাজতে পাঠায় দিল্লি আদালত। 

প্রাক্তন মিডিয়া ব্যারন পিটার মুখোপাধ্যায়ের স্ত্রী ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়ের বয়ানের ভিত্তিতেই প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদাম্বরম এবং তাঁর পুত্র কার্তি চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে মামলাটি সাজায় ইডি। ওই দু'জনেই তখন আইএনএক্স মিডিয়া নামক টেলিভিশন সংস্থাটির প্রধান ছিলেন।  ওই সংস্থার জন্যেই পি চিদাম্বরম ইউপিএ সরকারের অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন বৈদেশিক তহবিলের অনুমোদনে সহায়তা করেছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, তাঁর ছেলে কার্তি চিদাম্বরমের বিরুদ্ধে অভিযোগ যে তিনি এই চুক্তির বিনিময়ে বিরাট অঙ্কের ঘুষ পেয়েছিলেন।

 “আমি নিশ্চিত, কখনও ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা হয়নি”, আদালতে বললেন পি চিদাম্বরম

যদিও পি চিদাম্বরম এই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন যে তাঁর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক চক্রান্ত করা হচ্ছে। এমনকি ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে তিনি কোনওদিন দেখা করেননি বলেও দাবি করেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

More News