This Article is From Jan 07, 2019

জিন্নাদের দেশ ছাড়া করাই এনআরসি’র লক্ষ্য, বিতর্কিত মন্তব্য করলেন হেমন্ত বিশ্বশর্মা

বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন অসমের অর্থমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা। তিনি বললেন ২০১৬ সালের সিটিজেনশিপ বিল পাস না  হলে ১৭টি জেলা  ‘জিন্নাদের’ দখলে চলে যাবে।

চাকরির ক্ষেত্রে অহমিয়াদের সংরক্ষণের ব্যাপারে ভাবনা চিন্তা  হচ্ছে  বলে তিনি জানান।

হাইলাইটস

  • বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন অসমের অর্থমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা
  • জিন্নাদের বের করতেই অসমে এনআরসি লাগু হয়েছে: মন্ত্রী
  • চাকরির ক্ষেত্রে অহমিয়াদের সংরক্ষণের ব্যাপারে ভাবনা চিন্তা হচ্ছে
গুয়াহাটি:

বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন অসমের অর্থমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা। তিনি বললেন ২০১৬ সালের সিটিজেনশিপ বিল পাস না হলে ১৭টি জেলা  ‘জিন্নাদের' দখলে চলে যাবে। সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় রবিবার তিনি আরও  বলেন,  ‘ জিন্নাদের বের করতেই অসমে এনআরসি লাগু হয়েছে।' রাজনৈতিক মহলের একটা  অংশের ধারনা অসমের বাঙালি মুসলমানদের কথাই বলতে চেয়েছেন মন্ত্রী। তাঁর কথায় , ‘এটা জিন্নার সঙ্গে  ভারতের লড়াই। এনআরসির মাধ্যমে জিন্নাদের দেশ থেকে বের করে দেওয়াই আমাদের লক্ষ্য। আমরা যদি অসম একর্ড( চুক্তি)-এর  ছ'নম্বর ধারা ,লাগু করতে না  পারি তাহলে অসমের মুখ্যমন্ত্রী হবে বদুরুদ্দিন আজমল। আর আমরা  যদি নাগরিত্ব বিল পাস করাতে না পারি তাহলে অসমের ১৭টি আসন পাবে জিন্নারা।' এআইইউডিএফের  নেতা  আজমল অসমের ধুবড়ি কেন্দ্রের সাংসদ।       

আবার মেঘালয়! অবৈধ খনিতে ধ্বস নেমে মৃত্যু দুই শ্রমিকের 

অসম চুক্তির ওই  ৬ নম্বর  ধারায় কয়েকটি বিষয়ের উল্লেখ আছে। সেগুলিকে বাস্তবায়িত করা যায় কিনা  তা  নিয়ে  আলোচনা করতে  বিশেষ কমিটি গঠন করেছে  স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে ২৩'টির বেশি আসন পাবে বিজেপি: অমিত শাহ

বিশ্বশর্মা জানান, আমরা এ সংক্রান্ত ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী  নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে আলোচনা করেছি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক কমিটিও গঠন করেছে। এদিকে চাকরির ক্ষেত্রে অহমিয়াদের সংরক্ষণের ব্যাপারে ভাবনা চিন্তা  হচ্ছে  বলে তিনি জানান।

 

দেখুন ভিডিও: