রাজীবকে হেফাজতে পেতে সুপ্রিম কোর্টে প্রমাণ দিতে হবে সিবিআইকে

সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছিল রাজীবকে আপাতত গ্রেফতার করা যাবে না। সেই নির্দেশ যাতে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয় তার জন্যই আবারও শীর্ষ আদালতে আবেদন করেছে সিবিআই।

রাজীবকে হেফাজতে পেতে সুপ্রিম কোর্টে প্রমাণ দিতে হবে সিবিআইকে

হাইলাইটস

  • রাজীব কুমারকে হেফাজতে নিয়ে জেরা করতে চায় সিবিআই
  • শিলং-এ টানা ছ’দিন সিবিআইয়ের জেরার মুখে পড়েছিলেন রাজীব
  • আদালত নির্দেশ দিয়েছিল রাজীবকে আপাতত গ্রেফতার করা যাবে না
নিউ দিল্লি:

কলকাতা পুলিশের প্রাক্তন কমিশনার রাজীব কুমারকে (EX Top Cop Of Kolkata Police) হেফাজতে নিয়ে জেরা করতে চায় সিবিআই (CBI)। সারদা চিটফান্ড (Sarda Chit fund Scam ) কাণ্ডে এর আগেই শিলং-এ টানা ছ'দিন সিবিআইয়ের জেরার মুখে পড়েছিলেন রাজীব (Rajeev Kumar)। তারপর সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court) কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা জানায় রাজীবকে হেফাজতে নেওয়া প্রয়োজন। ফেব্রুয়ারি মাসে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছিল রাজীবকে আপাতত গ্রেফতার করা যাবে না। সেই নির্দেশ যাতে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয় তার জন্যই আবারও শীর্ষ আদালতে আবেদন করেছে সিবিআই। সেই মামলারই শুনানি চলছে। এবার আদালতের তরফের জানানো হল সিবিআই যদি রাজীবকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জেরা করতে চায় তাহলে তাদের প্রমান দিতে হবে।

অনুব্রত-অনুপম সাক্ষাৎ ঘিরে তুঙ্গে তরজা, যাদবপুরের প্রার্থীর সঙ্গে কথা বলবে বিজেপি  

প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ  সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহেতাকে বলেন রাজীবকে হেফাজতে নিতে হলে উপযুক্ত প্রমাণ দাখিল করেত হবে। এই বেঞ্চে প্রধান  বিচারপতি ছাড়া আরও দুই বিচারপতি আছেন। তাঁরা  হলেন দীপক গুপ্ত এবং সঞ্জীব খান্না। আদালত সিবিআইয়ের হয়ে সওয়াল করা সলিসিটর জেনারেলকে বলে রাজীব যে সিটের প্রধান হিসবে সারদা তদন্তের তথ্য-প্রমাণ নষ্ট করেছেন তার উপযুক্ত প্রমাণ আদালতে দাখিল করতে হবে। আদালতের বক্তব্য শোনার পর সলিসিটর জেনারেল জানান  রাজীবের বিরুদ্ধে  যে তথ্য  আছে তা আগামীকাল আদালতে  জমা দেওয়া হবে। এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা  হয়েছে বুধবার।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে রাজীবকে জেরা করা নিয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে বেনোজির সংঘাতে জড়ায় রাজ্য প্রশাসন। কলকাতা পুলিশের তৎকালীন কমিশনারের সরকারি আবাসনে যায় সিবিআই।  তাদের আটকায় কলকাতা পুলিশ। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকদের আটক পর্যন্ত করা হয়।  পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছে যে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ‘সত্যাগ্রহ' শুরু করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী   মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপর সুপ্রিম কোর্ট মামলা দায়ের হয়। আদালত বলে রাজীবকে তদন্তে সাহায্য করতে হবে। আর সেই মতই শিলংয়ের জিজ্ঞাসাবাদ চলে। এরই মধ্যে রাজীবের বিরুদ্ধে তথ্য প্রমাণ নষ্ট করার উপযুক্ত প্রমাণ দাখিল করার কথা জানাল সুপ্রিম কোর্ট। শেষমেশ  আদালত কী জানায় তা  খুবই তাৎপর্যপূর্ণ হতে চলেছে ।      

(সংবাদ সংস্থা  পিটিআইয়ের  তথ্য  সংযোজিত হয়েছে )



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com