সুশান্ত-কাণ্ডে সিবিআই তদন্ত নিরপেক্ষ নয়, তড়িঘড়ি নেওয়া পদক্ষেপ: মুম্বই পুলিশ

পাশাপাশি বিহার পুলিশের চালানো সমান্তরাল তদন্ত রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং অঙ্গরাজ্যর গঠনতন্ত্রের পরিপন্থী

আত্মহত্যাই করেছেন সুশান্ত: মুম্বই পুলিশ

New Delhi:

সুশান্ত-কাণ্ডে সিবিআই তদন্তের বিরোধিতা সুপ্রিম কোর্টে করল মুম্বই পুলিশ। তড়িঘড়ি কেন্দ্রীয় এই সংস্থা পদক্ষেপ করেছে। এমন অভিযোগও করেছে মুম্বই পুলিশ। পাশাপাশি বিহার পুলিশের চালানো সমান্তরাল তদন্ত রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং অঙ্গরাজ্যর গঠনতন্ত্রের পরিপন্থী। এমন অভিযোগও করেছে মুম্বই পুলিশ। শনিবার মুম্বই পুলিশ আদালতে সওয়াল করেছে, "তারা নিরপেক্ষ তদন্তের চেষ্টা করেছে। তবে বিহার পুলিশ সিবিআইকে তদন্তভার হস্তান্তর না করে জিরো এফআইআর দায়ের করতে পারতো।" এদিকে, বিহারে রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন সুশান্ত সিং রাজপুতের বাবা। এই মামলার বিরোধিতা করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ অভিনেত্রী। এবার সেই মামলার শুনানি চেয়ে আদালতে কেন্দ্র। সরকারি তরফে দাবি, "নিরপেক্ষ ন্যায় প্রদানের স্বার্থে এই মামলার শুনানি হোক। এই শুনানির জেরে কোনওভাবেই আবেদন স্থানান্তরিত করার উদ্যোগ নেই।" এদিকে, একরকম চাপে পড়েই এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরটের কার্যালয়ে উপস্থিত হন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী। জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে আরও সময় দেওয়া যাবে না, শুক্রবার সাতসকালেই রিয়া চক্রবর্তীর আবেদন নাকচ করে দেয় ইডি।

যদি রিয়া তলবের পরেও সাড়া না দেন তবে ফের তাঁকে সমন পাঠানো হয়, জানানো হয় একথাও। এরপরেই অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত মামলায় আজ (শুক্রবার) এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটে হাজিরা দিলেন রিয়া। এর আগে ইডির জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হওয়ার জন্য আরও কিছুটা সময় চেয়েছিলেন তিনি। তাঁর আবেদনে বলা হয়, বর্তমানে সুপ্রিম কোর্টের করা তাঁর মামলার শুনানির কারণে ব্যস্ত রয়েছেন অভিনেত্রী, তাই ইডিতে হাজিরা দেওয়ার সময়সীমা বাড়ানো হোক। রিয়া চক্রবর্তীর আইনজীবী সতীশ মানেশিন্দে বলেন, "সুপ্রিম কোর্টের শুনানির কারণে তিনি আপাতত তাঁর বয়ান রেকর্ডের দিন স্থগিতের জন্য অনুরোধ করেছেন।" সূত্রের খবর, রিয়ার আইনজীবীর এই আবেদন খারিজ করে দিয়েছে ইডি।

রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের পরিবার একটি এফআইআর দায়ের করে। সেখানে অভিযোগ করা হয় যে, সুশান্তের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে প্রচুর টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন রিয়া। তাছাড়া অভিনেতাকে মানসিকভাবে নির্যাতন করতেন তিনি, এমন অভিযোগও করেছেন সুশান্তের বাবা। গত ১৪ জুন ওই বলিউড অভিনেতাকে তাঁর বাড়িতে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। প্রাথমিক তদন্তের পর মুম্বই পুলিশ জানায় যে, সুশান্ত আত্মহত্যা করেছেন।

সুশান্তের বাবা কে কে সিং তাঁর ছেলের অ্যাকাউন্ট থেকে ১৫ কোটি টাকা তছরুপের অভিযোগ তুললে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে আর্থিক দুর্নীতির মামলা করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ে ইডি-র দফতরে রিয়ার চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন ইডি আধিকারিকরা। গত সোমবার তাঁরা কথা বলেছিলেন সুশান্তের চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট সন্দীপ শ্রীধরের সঙ্গেও। পাশাপাশি রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে করা ১৫ কোটি টাকার "সন্দেহজনক লেনদেন"-এর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে আজই (শুক্রবার) হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেয় এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট।