This Article is From Jun 22, 2019

প্রশিক্ষণ বিমান কেনায় দুর্নীতি! বিমান বাহিনীর কর্তা ও অস্ত্র ব্যবসায়ী সঞ্জয় ভাণ্ডারির বিরুদ্ধে মামলা সিবিআইয়ের

যখন বিমান বাহিনীতে নতুন ক্যাডেটসরা যোগ দেন তখন তাঁদের বিমান চালনা শেখানোর জন্য ট্রেনার বিমানগুলি ব্যবহার করা হয়।

Pilatus PC-7 Mk-II হল মৌলিক প্রশিক্ষণের বিমান

নিউ দিল্লি:

২০০৯ সালে ৭৫ টি মৌলিক প্রশিক্ষণ বিমান (basic trainer aircraft) কেনা সংক্রান্ত অনিয়মের অভিযোগে বিমান বাহিনীর (Air Force) অজ্ঞাতপরিচয় কর্মকর্তা, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় (Defence Ministry) এবং অস্ত্র ব্যবসায়ী সঞ্জয় ভাণ্ডারি (arms dealer Sanjay Bhandari) ও সুইজারল্যান্ডের বিমান নির্মাতা পিলাটাস এয়ারক্রাফট লিমিটেডের (Swiss-based plane-maker Pilatus Aircraft Ltd) কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছে সিবিআই (Central Bureau of Investigation)। সিবিআইয়ের এই বিমান কেনার চুক্তিতে ৩৩৯ কোটি টাকার তছরুপের অভিযোগ এনেছে।

শুক্রবার দিল্লি ও তার আশপাশের এলাকায় অভিযুক্ত সঞ্জয় ভাণ্ডারি ও অন্যদের মালিকানাধীন সম্পত্তিতে অভিযান চালায় সিবিআই (CBI)। সিবিআই সূত্রের খবর, আরও বহু জায়গাতেই অনুসন্ধান ও তল্লাশি চলছে। এফআইআরে, সিবিআই দক্ষিণ দিল্লির পঞ্চশীল পার্কে অস্ত্র বিক্রেতা সঞ্জয়ের মালিকানাধীন অফসেট প্রিন্টারের (Offset India Solutions Pvt Ltd) নামও উল্লেখ করেছে। সঞ্জয় ভান্ডারির ​​কার্যকলাপের উপর তদন্তের প্রথম ক্ষেত্রই প্রস্তুত হয় ২০১৬ সালের জুন মাসে। সুইস মৌলিক প্রশিক্ষণ বিমান (BTA) ভারতের অধিগ্রহণের বিষয়ে জড়িত ছিলেন তিনি।

লন্ডনে ব্যবসায়ী রবার্ট বঢরার (Robert Vadra) জন্য বেনামী বা ভুয়ো মালিকানাধীন বাড়ি কেনার অভিযোগে ভাণ্ডারির বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই তদন্ত চলছে। সুইস বিমান সংস্থাকে ভাণ্ডারির অফসেট ইন্ডিয়া সলিউশন প্রাইভেট লিমিটেড (Offset India Solutions Pvt Ltd) কোম্পানি ঠিক কোন ধরনের পরিষেবা দিত তাও খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা ।

যখন বিমান বাহিনীতে নতুন ক্যাডেটসরা যোগ দেন তখন তাঁদের বিমান চালনা শেখানোর জন্য ট্রেনার বিমানগুলি ব্যবহার করা হয়। HTP-32 বারেবার ব্যর্থ হওয়ার কারণে একেবারে শুরুর পর্যায়ের Pilatus PC-7 Mk-II কেনার সিদ্ধান্ত নেয় বিমান বাহিনী।

মনমোহন সিংয়ের সরকার যখন ২০১২ সালের মে মাসে পিলাটাস বিমানের (Pilatus Aircraft) সঙ্গে বিটিএর ২৮৯৬ কোটি টাকার চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল, তখন অন্য প্রতিযোগীরা এই বিষয়টিতে মোটেও সায় দেয়নি।