সাত সকালে মুম্বাইয়ের শপিং মলে চিতাবাঘ, আতঙ্ক ছড়িয়ে হানা হোটেলেও

ওই মলের এবং হোটেলের সিসিটিভি ক্যামেরাতে দেখা গিয়েছে অন্ধকার করিডোরে দৌড়ে বেড়াচ্ছে চিতাবাঘটি। তার আগে একটি সিঁড়ি পিছনে লুকিয়ে থাকতেও দেখা গিয়েছে ওই চিতাবাঘকে।

বন দফতর জানিয়েছে তাঁরা পশুটিকে ধরার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন

থানে:

শপিং মলে কেনাকাটা করতে, বা নেহাতই উইন্ডো শপিং করতে কার না ইচ্ছে হয়? তেমনই হয়ত ইচ্ছা হয়েছিল জনৈক চিতাবাঘের। আজ সকালে মহারাষ্ট্রের থানে জেলার একটি জনপ্রিয় শপিং মল এবং একটি হোটেলে সেই বাঘ বাবাজির দেখা মিলেছে। ওই মলের এবং হোটেলের সিসিটিভি ক্যামেরাতে দেখা গিয়েছে অন্ধকার করিডোরে দৌড়ে বেড়াচ্ছে চিতাবাঘটি। তার আগে একটি সিঁড়ি পিছনে লুকিয়ে থাকতেও দেখা গিয়েছে ওই চিতাবাঘকে। কিন্তু মানুষের শপিং মলে বাঘের এহেন উইন্ডো শপিং আম আদমির কাছে মোটেও তো স্বাভাবিক নয়, অগত্যা যা হয়! এলাকার বাসিন্দাদের এবং পথচারীদের আপাতত ওই এলাকায় ঘেঁষতে বা বাড়ি থেকে বেরোতে বারণ করা হয়েছে বলেই জানান এক আধিকারিক। 

ভাষা দিবস: আমার বোনেরও রক্তে রাঙানো ২১ শে ফেব্রুয়ারি, আন্দোলনের নেপথ্যের মেয়েদের গল্প

চিতাবাঘটিকে প্রথমে কোরাম মলের পার্কিং এলাকায় দেখতে পান পথযাত্রীরা। তারপরেই তাঁরা পুলিশ এবং বন দফতরের কর্মকর্তাদের খবর দেন বলে জানিয়েছেন থানে সিভিক বডির আঞ্চলিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সেলের প্রধান সন্তোষ কদম।

পুলিশ ও বন দফতরের কর্মকর্তারা শীঘ্রই থানের সমতা নগরে অবস্থিত কোরাম মলে পৌঁছন। কিন্তু ততক্ষণে কেনাকাটার শখ মিটিয়ে হাওয়া হয়েছেন চিতাবাঘ! প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে চিরুনি তল্লাশির পর আধিকারিকেরা সিদ্ধান্ত নেন যে, চিতাবাঘটি নিশ্চয়ই মল চত্বরের প্রাচীর ডিঙিয়ে পালিয়েছে। 

Newsbeep

দিল্লিতে ভয়াবহ পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল বাবা- মা এবং ঠাকুমার, বেঁচে গেল তিন বছরের শিশু!

তবে শপিং মল ছেড়ে বেরোলেও মলের কাছেই অবস্থিত একটি হোটেলের বেসমেন্টে ফের চিতাবাঘটিকে দেখতে পান স্থানীয় কিছু মানুষ। বন দফতর জানিয়েছে তাঁরা পশুটিকে ধরার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)