বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের উপর হামলা, অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে

BJP-TMC Clash: অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূল নেতা সুবোধ অধিকারী পাল্টা অভিযোগ করেন যে, অর্জুন সিং নিজেই এই ঘটনার জন্যে প্ররোচনা দিয়েছিলেন

বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের উপর হামলা, অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে

West Bengal: "তৃণমূল সমর্থকরা আমার গাড়ি লক্ষ্য করে ইট ছুঁড়তে শুরু করে", বলেন অর্জুন সিং

হাইলাইটস

  • তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত হালিশহর
  • বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের গাড়ি ভাঙচুর করার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে
  • পাল্টা অভিযোগ করা হয়েছে রাজ্যের শাসকদলের তরফেও
ব্যারাকপুর:

ফের বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল হালিশহর (West Bengal)। বিজেপির তরফ থেকে দলের সাংসদ অর্জুন সিং অভিযোগ করেন যে, রবিবার হালিশহরে বৈঠক করতে গিয়েছিলেন তিনি (Arjun Singh)। সেই সময়ই তৃণমূল কংগ্রেসের (Trinamool Congress) কিছু সমর্থক এসে তাঁর গাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। যদিও রাজ্যের শাসক দলটির তরফে বিজেপি (BJP) সাংসদের তোলা সব অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা গেরুয়া দলের বিরুদ্ধেই সন্ত্রাসের অভিযোগ করা হয়। সংবাদমাধ্যমের সামনে উপস্থিত হয়ে অর্জুন সিং অভিযোগের সুরে বলেন, "আমি ওই এলাকায় বৈঠকের জন্যে গিয়েছিলাম। কিন্তু আমি বৈঠকে যোগদানের পরপরই তৃণমূল সমর্থকরা আমার গাড়ি লক্ষ্য করে ইট ছুঁড়তে শুরু করে"।

রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ৮৯৫

এদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বলা হয় যে, বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং নিজেই প্রথমে এই ঝামেলার সূত্রপাত ঘটান। ঘাসফুলের দলের অভিযোগ, রাজ্যে সন্ত্রাসের রাজনীতি করতে চাইছে বিজেপি। স্থানীয় তৃণমূল নেতা সুবোধ অধিকারী বলেন, বিজেপি সাংসদই ওই আক্রমণে প্ররোচিত করেন।

রাশিয়াকে পিছিয়ে ভারত এগিয়ে, করোনা সংক্রমণের দিক থেকে তৃতীয় স্থানে উঠে এল ভারত

তিনি আরও অভিযোগ করেন, বিজেপি কর্মীরাই প্রথমে হালিশহরে থাকা তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যালয়ে ভাঙচুর চালায় এবং সেখানে আগুন লাগিয়ে দেয়। বিজেপির হামলায় দলীয় দুই সমর্থককে আহত হন বলেও অভিযোগ।

যদিও বিজেপি ও তৃণমূলের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনায় জেলা পুলিশের তরফ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।