This Article is From Jul 10, 2020

গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের এনকাউন্টারের ঠিক আগে কেন আটকে দেওয়া হল সাংবাদিকদের গাড়ি?

প্রাতর্ভ্রমণে বেরনো আশিস পাসোয়ান নামে এক স্থানীয়র দাবি, "আমাদের কানে গুলির শব্দ এসেছে। কিন্তু কী বিষয় জানতে এগিয়ে গেলে পুলিশ আমাদের আটকে দেয়। বাড়ি ঢুকে যেতে বলে।"

উজ্জয়ন থেকে কানপুরের পথে যে সংবাদমাধ্যম, বিকাশের কনভয়ের পিছনে ছিল, ঘটনাস্থলের কয়েক কিলোমিটার আগে সেই কনভয় থামিয়ে দেওয়া হয়।

হাইলাইটস

  • আট পুলিশকর্মী নিহত হওয়ার ঘটনায় ওয়ান্টেড ছিলেন গ্যাংস্টার বিকাশ দুবে
  • গাড়ি দুর্ঘটনার পর পালানোর চেষ্টা করলে দু'পক্ষের সংঘর্ষে মৃত্য হয় বিকাশের
  • তাকে আত্মসমর্পণ করতে বলা হলেও শোনেনি সে কথা: ইউপি পুলিশ
নয়াদিল্লি/কানপুর:

গ্রেপ্তারির একদিন বাদেই পুলিশি এনকাউন্টারে নিহত গ্যাংস্টার বিকাশ দুবে (Gangster Vikash Dubey encounter)। উজ্জয়ন থেকে কানপুর আসার পথে এই ঘটনা ঘটেছে বলে ইউপি পুলিশের (UP Police) দাবি। কিন্তু এটা আদৌ এনকাউন্টার, না সাজানো ঘটনা? এই প্রশ্নের উত্তর পেতে সরব বিরোধীরা। উঠছে একাধিক প্রশ্ন। তার মধ্যে সবচেয়ে বড় প্রশ্ন, বিকাশের কনভয় অনুসরণ করা সংবাদমাধ্যমের গাড়িগুলোকে কেন আটকে দেওয়া হয়েছিল। এই ধরনের প্রশ্ন ঘুরপাকের মধ্যেই একটা ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। টোল প্লাজার সেই ভিডিও দেখা গিয়েছে, বিকাশকে নিয়ে পুলিশের তিনটি গাড়ির কনভয় যখন সেই টোল প্লাজা পেরোয়, তখন ভোর চারটে। প্লাজার সিসিটিভিতে দেখা গিয়েছে বিকাশ যে গাড়িতে ছিল, আর সংবাদ মাধ্যমে যে উল্টানো গাড়ি দেখা গিয়েছে, দু'টি সম্পূর্ণ পৃথক। যদিও, এই গাড়ি বিভ্রান্তি নিয়ে কোনও মন্তব্য করেনি উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। তবে, সকাল সাড়ে ছ'টার একটা ভিডিও সংবাদমাধ্যমের হাতে এসেছে। এনকাউন্টারের প্রায় আধঘণ্টা আগের সেই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে বিকাশের কনভয় অনুসরণ করা সংবাদমাধ্যমের গাড়িগুলোকে হঠাৎ করেই একটু আগে আটকে দেয় পুলিশ। কিন্তু কেন?

এই প্রশ্নগুলো এখন বেশি করে ঘুরপাক খাচ্ছে স্থানীয়দের মনে। কারণ প্রাতর্ভ্রমণে বেরনো আশিস পাসোয়ান নামে এক স্থানীয়র দাবি, "আমাদের কানে গুলির শব্দ এসেছে। কিন্তু কী বিষয় জানতে এগিয়ে গেলে পুলিশ আমাদের আটকে দেয়। বাড়ি ঢুকে যেতে বলে।"

পুলিশি এনকাউন্টারে বিকাশ দুবের মৃত্যুর ঘটনা সামনে আসার সঙ্গে সঙ্গেই নানা মহল থেকে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। দেশের অনেক বিরোধী নেতাই বলেছেন, যাঁরা বিকাশ দুবেকে হাতিয়ার করে বেআইনি কাজ করতেন তাঁদের বাঁচাতেই এনকাউন্টার করা হয়েছে ওই মাফিয়াকে। প্রশ্ন উঠছে যে গোটা ঘটনায় কি এবার কেঁচো খুঁড়তে কেউটে বেরিয়ে আসবে? এমন কথা বারেবারেই শোনা গেছে যে, কিছু নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলের হয়ে কাজ করতেন বিকাশ দুবে। সেই দলগুলো কারা? বিকাশ দুবের মতো মাফিয়ার বাড়বাড়ন্তের পিছনে কাদের হাত রয়েছে? এসব প্রশ্নও কিন্তু উঠছে এখন। অনেকটাই এই ধরণেরই প্রশ্ন তুলেছেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধিও। তিনি একটি টুইট বার্তায় লেখেন যে এখন যাঁরা অপরাধীদের রক্ষা করেন তাঁদের কী হবে?

টুইটে প্রিয়াঙ্কা লেখেন, "অপরাধী তো খতম, কিন্তু অপরাধ ও তাতে মদতদাতাদের কী হবে?"