This Article is From Feb 24, 2020

হাতে হাত রেখে তাজমহলে ট্রাম্প দম্পতি, জানালেন তাজ অনুপ্রেরণা দেয়

সূর্যাস্তের সোনালি আলোয় ধবধবে সাদা তাজমহল দেখে খুব উপভোগ করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তাঁর স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প।

তাজমহল দেখে মুগ্ধ সস্ত্রীক ডোনাল্ড ট্রাম্প

আগ্রা:

সোমবার বিকেলে প্রায় এক ঘণ্টা তাজমহলে (Taj Mahal) কাটালেন সস্ত্রীক ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump)। সোমবার ভারত সফরে এসে প্রথমে আহমেদাবাদ হয়ে তারপর এখানে এসেছেন তাঁরা। সূর্যাস্তের সোনালি আলোয় ধবধবে সাদা তাজমহল দেখে খুব উপভোগ করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তাঁর স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প। তাঁদের দু'ডনকে হাতে হাত ধরে তাজমহলের সামনে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায়। পরে তাজের ভিজিটার্স বুকে তিনি লেখেন, ‘‘তাজমহল অনু্প্রাণিত করে ও সম্ভ্রম জাগায়। ভারতের ধনী ও বৈচিত্রময় সাংস্কৃতিক সৌন্দর্যের চিরকালীন এক সাক্ষী। ধন্যবাদ ভারত।'' মার্কিন রাষ্ট্রপতি ও তাঁর ফার্স্ট লেডিকে দেখা যায় ধীরে ধীরে ফোয়ারা ও যত্নচর্চিত লন দিয়ে হেঁটে বেড়াতে।

রাষ্ট্রপতিকে তাজমহল ঘুরিয়ে দেখান এক গাইড। বহু আবেদনকারীর মধ্যে মোট তিনজনকে নির্বাচিত করেছিল আমেরিকান নিরাপত্তা সংস্থা। শেষ পর্যন্ত সেখান থেকেই একজন নির্বাচিত হন।

তাজমহলের সামনে যেখানে বহু বিখ্যাত বিদেশি অতিথিকে ছবি তুলতে দেখা গিয়েছে, সেখানেই হাতে হাত ধরে ছবি তোলেন সস্ত্রীক ডোনাল্ড ট্রাম্পও। 
এরপর তাঁরা ঘুরে দাঁড়িয়ে মুগ্ধ নয়নে উপভোগ করেন মাথার উপরে নীল আকাশ ও শেষবেলার সোনালি রোদ্দুর মেখে দাঁড়িয়ে থাকা অনিন্দসুন্দর তাজমহলকে। এদিকে তাঁদের ছবি তুলতে লাইন দেন আলোকচিত্রীরা।

মার্কিন রাষ্ট্রপতি আসার আগে পরিচর্যা করা হয়েছে তাজের। পাথরগুলিকে মাজাঘষা করেছেন শয়ে শয়ে কর্মীরা। দেওয়ালে নতুন রং ও মুলতানি মাটি লাগানো হয়েছে। যমুনায় ঢালা হয়েছে জল। উদ্দেশ্য যাতে দূষণ ও আবর্জনার পরিমাণ হ্রাস করা যায়।

ট্রাম্পের কন্যা ইভাঙ্কা ও জামাই জেরাড কুশেনারকে দেখা গিয়েছে তাজমহল পরিদর্শন করতে। ইভাঙ্কাকে দেখা যায়, এক ফোটোগ্রাফারের হাতে নিজের মোবাইল ফোনটি তুলে দিয়ে ছবি তুলে দেওয়ার অনুরোধ জানাতে।

ডোনাল্ড ট্রাম্প এদিন একটু বেলার দিকে ভারতে এসে পৌঁছন সপরিবারে। প্রথমে আহমেদাবাদ হয়ে তিনি আসেন আগ্রায়। ভারতে পৌঁছনোর পর তাঁকে স্বাগত জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

সোমবার মোতেরা স্টেডিয়ামে বিপুল জন সমাবেশের সামনে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী মোদি ও রাষ্ট্রপতি ট্রাম্প।