অরুণ জেটলির বিরুদ্ধে অভিযোগ করে সাসপেন্ড হওয়া বিজেপি সাংসদ কীর্তি আজাদ যোগ দিলেন কংগ্রেসে

বিজেপির উপর ক্ষুব্ধ কীর্তি আজাদ যোগ  দিলেন কংগ্রেসে। আগেই তাঁকে সাসপেন্ড করেছে বিজেপি। কংগ্রেস বিষয়টিকে ঘর ওয়াপসি হিসেবেই দেখছে কারণ তাঁর বাবা ভগবত ঝা আজাদ   ছিলেন কংগ্রেসেই।

অরুণ জেটলির বিরুদ্ধে  অভিযোগ করে সাসপেন্ড হওয়া বিজেপি সাংসদ কীর্তি আজাদ যোগ দিলেন কংগ্রেসে

কীর্তি আজাদ বিহারের দ্বারভাঙা আসন থেকেই লড়তে চান বলে  শোনা  গিয়েছে।

হাইলাইটস

  • বিজেপির উপর ক্ষুব্ধ কীর্তি আজাদ যোগ দিলেন কংগ্রেসে
  • কংগ্রেস বিষয়টিকে ঘর ওয়াপসি হিসেবেই দেখছে
  • কীর্তির বাবা ভগবত ঝা প্রথমে সাংসদ পরে বিহাররে মুখ্যমন্ত্রী হন
নিউ দিল্লি:

বিজেপির উপর ক্ষুব্ধ কীর্তি আজাদ যোগ  দিলেন কংগ্রেসে। আগেই তাঁকে সাসপেন্ড করেছে বিজেপি। কংগ্রেস বিষয়টিকে ঘর ওয়াপসি হিসেবেই দেখছে, কারণ তাঁর বাবা ভগবত ঝা আজাদ ছিলেন কংগ্রেসেই। প্রথমে  সাংসদ, পরে বিহারের মুখ্যমন্ত্রীও হয়েছিলেন তিনি। কংগ্রেসে এসেই রাফাল কাণ্ড নিয়ে  নিজের পুরনো দলকে নিশানা করেছেন কীর্তি। তাঁর দাবি বিজেপি সাংসদদেরও অনেকে  মনে  করেন রাফাল চুক্তিতে  গোলমাল আছে। বাইশ গজে প্রথমবার  দেশকে  বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন করা  দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন কীর্তি।       

आज सुबह कांग्रेस के राष्ट्रीय अध्यक्ष श्री @RahulGandhi जी ने मुझे कांग्रेस की सदस्यता ग्रहण कराई मैंने मिथिला की परंपरा में उनको मखाना की माला, पाग, चादर से सम्मानित किया।
Today in front of Shri Rahul Gandhi I joined the Congress I felicitated him in traditional Mithila style pic.twitter.com/B9DQwCM207

— Kirti Azad (@KirtiAzadMP) February 18, 2019

সাংবাদিকদের তিনি বলেন, "আমি আমার  বাড়িতে ফিরে এসেছি। ১৯৫২ সালে  আমার বাবার বয়স যখন ২৬  তখন  তাঁকে সাংসদ হতে সাহায্য  করেন দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরু"।

কীর্তির বিজেপিতে ছেড়ে  কংগ্রেসে  যোগ দেওয়ার কথা ছিল ১৫ তারিখ। কিন্তু তার মাত্র একদিন  আগে পুলওয়ামায় হামলা চালায় জঙ্গিরা। শপথ গ্রহণ পিছিয়ে যায়।   

কীর্তি আজাদ বিহারের দ্বারভাঙা আসন থেকেই লড়তে চান বলে  শোনা  গিয়েছে। এই আসন থেকে  তিনবার  বিজেপির টিকিটে যেতেন তিনি। কিন্তু তাঁর নতুন  দল  কংগ্রেস চায় তিনি  দিল্লি থেকে নির্বাচনে লড়াই করুন।  আর তাই সিদ্ধান্ত কংগ্রেসের হাতেই ছেড়েছেন তিনি। বিজেপির সঙ্গে কীর্তি আজাদের গোলমালের সূত্রপাত দীর্ঘ দিন আগে। ২০১৫ সালে দিল্লির ক্রিকেট সংস্থায় দুর্নীতি হয়েছে  বলে  অভিযোগ করেন কীর্তি। আর সেটা করতে  গিয়ে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির প্রকাশ্য সমালোচনা করেন তিনি। তখন থেকেই তাঁর  উপর ক্ষুব্ধ বিজেপি। একান্ত আলাপচারিতায় নেতারা বলেছেন কীর্তি পেছন থেকে ছুড়ি মেরেছেন।                    

Newsbeep