This Article is From Jun 01, 2020

মেড ইন ইন্ডিয়ার প্রচার! প্যারা মিলিটারি ক্যান্টিনে বিক্রি বন্ধ আমদানিকৃত পণ্যের

কেন্দ্রীয় পুলিশ কল্যাণ ভাণ্ডার যাদের অধীনে এই প্যারা মিলিটারি ক্যান্টিন, তারা পণ্যগুলোকে তিন বিভাগে ভাগ করেছে

মেড ইন ইন্ডিয়ার প্রচার! প্যারা মিলিটারি ক্যান্টিনে বিক্রি বন্ধ আমদানিকৃত পণ্যের

প্রতি বছর পণ্য বিক্রি করে প্রায় ২৮ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব ঘরে তোলে প্যারামিলিটারি ক্যান্টিন।

হাইলাইটস

  • দেশব্যাপী প্যারমিলিটারি ক্যান্টিনে বন্ধ হল ১০০০টি আমদানিকৃত পণ্যের বিক্রি
  • মেড ইন ইন্ডিয়া প্রচারের স্বার্থে এই উদ্যোগ
  • পাওয়া যাবে না নিউটেলা, হরলিক্সের মতো খাদ্যপণ্যও
নয়া দিল্লি:

দেশজুড়ে ছড়িয়ে থাকা প্যারামিলিটারি ক্যান্টিনে (Paramilitary Canteen) আর বিক্রি হবে না আমদানিকৃত ১০০০টি পণ্য। মেড ইন ইন্ডিয়া (Made in India) প্রচারকে জোরদার করতে এই সিদ্ধান্ত। জানা গিয়েছে, সেই ১০০০টি পণ্যের বদলে দেশে তৈরি পণ্য বিক্রি প্যারামিলিটারি ক্যান্টিন। গত মাসেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে নির্দেশ গিয়েছিল, পয়লা জুন থেকে দেশীয় প্রযুক্তিতে (Home Products) তৈরি পণ্য বিক্রি করা হবে এই ক্যান্টিনগুলোকে। ঘরোয়া কুটির ও এমএসএমই শিল্পের প্রচার বাড়াতে এই সিদ্ধান্ত। জানা গিয়েছে, নিউটেলা, কিন্ডার জয়, হরলিক্সের মট পণ্য বিক্রি হবে না সেই ক্যান্টিনগুলোতে। ঘরোয়া কাজে ব্যবহৃত কিছু সামগ্রি যেমন মাইক্রো ওয়েভ-সহ ব্র্যান্ডেড ঘর সাজানোর পণ্য, বিক্রি হবে প্যারামিলিটারি ক্যান্টিনে। এমনটাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক সূত্রে খবর। কয়েকটি বিদেশী সংস্থা যেমন স্কেচার, ফ্যারেরো, রেড বুল, ভিক্টারিনিক্সের মতো সংস্থার পণ্য পাওয়া যাবে না বলেই খবর। 

কেন্দ্রীয় পুলিশ কল্যাণ ভাণ্ডার যাদের অধীনে এই প্যারা মিলিটারি ক্যান্টিন, তারা পণ্যগুলোকে তিন বিভাগে ভাগ করেছে। প্রথম বিভাগে, সম্পূর্ণ মেড ইন ইন্ডিয়া পণ্য। দ্বিতীয় বিভাগে; কাঁচা মাল আমদানি করা কিন্তু উৎপাদন ভারতে। আর তৃতীয় বিভাগে রয়েছে সম্পূর্ণ আমদানিকৃত পণ্য। পাশাপাশি এই সংস্থা, আরও কিছু পণ্যের আমদানি বন্ধ করেছে। সেই পণ্যগুলোর উৎপাদন সংস্থা থেকে সন্তুষ্ট জবাব না পেয়ে এই সিদ্ধান্ত।