"গাড়িও পুরনো হয়ে গেলে চালান হয় না":MiG-21 প্রসঙ্গে বললেন বায়ুসেনা প্রধান

বায়ুসেনা প্রধান জানিয়েছেন, চলতি বছরে পর্যায়ক্রমে MIG-21 বাতিল শুরু হবে। ভারতে তৈরি উপাদান ব্যবহার করে বিমানটিকে কয়েক দশক ধরে ব্যবহার করা হচ্ছিল।

বায়ুসেনা প্রধান বিএস ধানোয়া বলেছেন, এই বছর রাশিয়ান ফাইটার জেটের প্রাথমিক সংস্করণটি পর্যায়ক্রমে বাতিল শুরু হবে।

হাইলাইটস

  • মিগ 21 ১৯৭৩-৭৪ সালে ভারতীয় বিমানবাহিনীতে যোগ করা হয়
  • চার দশকের পুরানো ফাইটার প্লেনগুলি এখনও প্রতিরক্ষার অন্যতম মূল অস্ত্র
  • বায়ুসেনা প্রধান বলেন এই বছর এই বিমানটি বাতিলের কাজ পর্যায়ক্রমে শুরু হবে
নয়া দিল্লি:

এয়ার চিফ মার্শাল বিএস ধানোয়া (BS Dhanoa) মঙ্গলবার বলেন, ভারতীয় বিমানবাহিনী এখনও ৪৪ বছরের পুরনো মিগ 21 (MiG-21 fighter jets) যুদ্ধবিমান ব্যবহার করছে, যখন কেউ পুরানো গাড়িও চালাচ্ছে না। যেখানে প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানও উন্নত এফ-16 জেট ব্যবহার করছে, সেখানে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে মূল হাতিয়ার হিসাবে চার দশকের পুরনো যুদ্ধবিমানগুলি এখনও ব্যবহার করে চলেছে ভারত, আর এই নিয়েই প্রশ্ন উঠেছে বারবার। "আমরা এখনও ৪৪ বছরের পুরনো মিগ বিমান ওড়াচ্ছি, যখন পুরনো বলে গাড়িও বাতিল করে দেওয়া হয়" , প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংকে পাশে বসিয়েই বলেন দেশের বায়ুসেনা প্রধান বি এস ধানোয়া।  ভারতীয় বিমানবাহিনীর আধুনিকীকরণ ও দেশীয়করণ সম্পর্কিত এক সেমিনারে বক্তব্য রাখার সময় ওই প্রসঙ্গে বলেন তিনি।

"এফ ১৬-এর সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য আমাদের রাফাল চাই", আদালতকে জানাল কেন্দ্র

বায়ুসেনা প্রধান বিএস ধানোয়া এ কথাও বলেন যে, এই বছরেই রাশিয়ান ফাইটার জেটের প্রাথমিক সংস্করণটি পর্যায়ক্রমে বাতিল করা শুরু হবে। "আশা করি, আগামী সেপ্টেম্বরেই শেষবারের মতো ওড়ানো হবে এই রাশিয়ান যুদ্ধবিমান।"

ভারতীয় উপাদান ব্যবহার করে সংস্কারের কারণে বিমানটি গত কয়েক দশক ধরে ব্যবহার করা সম্ভব হয়েছিল। বায়ুসেনা প্রধান বিএস ধানোয়া বলেন, "সংস্কারের প্রয়োজনীয় ৯৫ শতাংশেরও বেশি উপাদান ভারতে তৈরি হয়। রাশিয়ানরাও যেখানে মিগ ওড়াচ্ছে না, সেখানে এই সংস্কারের সুবিধাগুলির জন্যে এতদিন ধরে এই বিমান পরিষেবাতে রয়েছে।"

সেই ১৯৭৩-৭৪ সালে ভারতীয় বায়ুসেনায় যোগ হয় মিগ-21 ।

এমনকি পুলওয়ামা হামলার পরেই উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান, পাকিস্তানের যুদ্ধবিমানকে সফলভাবে তাড়া করতে পেরেছিল একটি আপগ্রেডেড মিগ-21 বাইসনে সওয়ার হয়েই। ওই ভারতীয় যুদ্ধবিমানটি আরও উন্নত প্রযুক্তির বিমান পাকিস্তানের এফ -16 কেও গুলি করতে সক্ষম হয়েছিল। 

“ফিরে আসতে পেরে ভাল লাগছে”,বললেন পাইলট অভিনন্দন বর্তমান

কমপক্ষে ১১০টি মিগ-21 যুদ্ধবিমানগুলিকে ২০০৬ সালে মিগ-21 বাইসনে আপগ্রেড করা হয়েছিল।

এমনকি ভারতীয় বায়ুসেনার প্রধান ধানোয়াও মিগ-21 বিমান উড়িয়েছেন। ২০১৭ সালের মে মাসে, তিনি (Air Chief Marshal BS Dhanoa) কারগিল যুদ্ধের সময় শহিদদের সম্মানে চারটি বিমানের 'মিসিং ম্যান' গঠন করে আকাশ থেকে তাঁদের শ্রদ্ধা জানানোর প্রচেষ্টায় নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।

গত কয়েক বছরে বেশ কয়েকবার ভেঙে পড়েছে মিগ-21 যুদ্ধবিমান। ভারত তার সংগ্রহে থাকা ৮৭২টি  মিগ বিমানের মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি হারিয়েছে, সম্প্রতি সংসদে তথ্য দিয়ে একথা বলা হয়।

More News