“মুখে মূত্রত্যাগ করল রেলপুলিশ!” খবর করতে গিয়ে আক্রান্ত সাংবাদিক

উত্তরপ্রদেশ পুলিশ ভিডিওটি দেখে জানিয়েছে, রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও একজন কনস্টেবলকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

রেলপুলিশের লাথি, থাপ্পড় ধাক্কা খেতে হল গণমাধ্যমের কর্মী অমিত শর্মাকে


শামলি: 

হাইলাইটস

  1. শামলি রেল পুলিশ অমিতকে গারদে রেখে অত্যাচার চালায়
  2. ট্রেন বেলাইনের খবর করতে গিয়ে সাংবাদিককে হেনস্থা করে রেল পুলিশ
  3. ২ রেল পুলিশ কর্মীকে বরখাস্ত করা হয়েছে

আর পাঁচটা দিনের মতোই ঘটনাস্থলে খবর করতে গিয়েছিলেন এক সাংবাদিক। বদলে রেলপুলিশের লাথি, থাপ্পড় ধাক্কা খেতে হল গণমাধ্যমের ওই কর্মীকে! অভিযোগ আরও সাংঘাতিক, রেলপুলিশ (Railway Police personnel) ওই সাংবাদিকের মুখের উপর মূত্রত্যাগ করেন বলেও মারাত্মক অভিযোগ তুলেছেন নিউজ 24 টেলিভিশন চ্যানেলের (TV channel News24) সাংবাদিক অমিত শর্মা (Amit Sharma)। পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের (western Uttar Pradesh ) ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ওই সাংবাদিককে রেল পুলিশের একটি দল লাঞ্ছিত করছে ও শারীরিক নির্যাতন করেছে। সাংবাদিক অমিত জানান, শামলি জেলার একটি ট্রেনের বেলাইন হওয়ার ঘটনার (derailment of a train in Shamli district) খবর করতে গিয়েই এই প্রবল হেনস্থার মুখে পড়েছেন তিনি। রেল পুলিশ কর্মীদের একটি দল তাঁকে সারারাত তালাবন্ধ করে রেখে অত্যাচার চালায়। 

এনআরএস কাণ্ডের জেরঃ সকাল ৯ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত বন্ধ থাকছে সরকারি হাসপাতালের বহির্বিভাগ

সাংবাদিক অমিত শর্মা বলেন, “ওরা সাদা পোশাকে ছিল। আমার ক্যামেরাটিতে আঘাত করে একজন এবং তা নিচে পড়ে যায়। আমি যখন ক্যামেরা তুলতে যাই, ওরা আমাকে মারে এবং আমার পোশাক খুলে দেয়, মুখে মূত্রত্যাগ করে দেয়।” অভিযোগ, ঘটনাস্থলে উপস্থিত রেলের সরকারি পুলিশ কর্মকর্তা অমিত শর্মাকে নির্যাতন ও মারধর করেন। সাংবাদিকের ক্যামেরা ও ফোন ছিনিয়ে নেন তাঁরা।

ঘটনার খবর পেয়েই স্থানীয় আরও কয়েকজন সাংবাদিক পুলিশ স্টেশনে ছুটে যান এবং রেল পুলিশকর্তাদের অমিত শর্মাকে মারধর করার ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়াতে আপলোড করে দেন। সাংবাদিকরা পুলিশ সদর দফতরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথেও যোগাযোগ করেছেন। স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে অন্যান্য সাংবাদিকদের বিক্ষোভের পর আজ সকালে ছেড়ে দেওয়া হয় অমিত শর্মাকে।

aid7if4o

মমতার নেতৃত্বে “মিনি পাকিস্তান” হয়ে গেছে বাংলা, বলল জেডিউ

উত্তরপ্রদেশ পুলিশ ভিডিওটি দেখে জানিয়েছে, রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও একজন কনস্টেবলকে বরখাস্ত করা হয়েছে। উত্তর প্রদেশের পুলিশ টুইট করে জানিয়েছে, “আমরা এমন একটি ভিডিও দেখেছি যেখানে সাংবাদিককে মারধর করা হয়েছে এবং তালাবন্ধ করে রাখা হয়েছে। ডিজিপি ইউপি ওপি সিংকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এসএইচও জিআরপি শামলি রাকেশ কুমার ও কনস্টেবল সঞ্জয় পাওয়ারকে অবিলম্বে বরখাস্ত করতে হবে।"

 



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................