This Article is From Nov 30, 2019

Jharkhand Assembly Elections: ভোটের মধ্যেই বোমা মেরে সেতু ওড়াল মাওবাদীরা

Jharkhand Assembly Elections: এই প্রথমবার ঝাড়খণ্ডের বিধানসভা নির্বাচনে কোনও মিত্রশক্তি ছাড়াই ভোটে লড়ছে ক্ষমতাসীন বিজেপি। ফলে, কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখোমুখি দল।

Jharkhand Assembly Elections: ভোটের মধ্যেই বোমা মেরে সেতু ওড়াল মাওবাদীরা

Jharkhand assembly elections: আজ প্রথম দফার ভোটদান ঝাড়খণ্ডে

রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের প্রথম পর্বে ঝাড়খণ্ডের ১৩ টি আসনে ভোটগ্রহণ চলছে শনিবার সকাল থেকে। খবর, ভোটগ্রহণ শুরুর কয়েক ঘন্টা পরেই গুমলা জেলার বিষ্ণুপুরের একটি সেতু বোমা মেরে উড়িয়ে দেয় মাওবাদীরা। যদিও প্রথম সারির পুলিশ কর্মকর্তা শশী রঞ্জন জানিয়েছেন, হতাহতের খবর এখনও পাওয়া যায়নি। ভোটদানেও এর কোনও প্রভাব পড়েনি। উল্লেখ্য, এই প্রথমবার ঝাড়খণ্ডের বিধানসভা নির্বাচনে কোনও মিত্রশক্তি ছাড়াই ভোটে লড়ছে ক্ষমতাসীন বিজেপি। ফলে, কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখোমুখি দল। জানা গেছে, পাঁচ দফার নির্বাচনের প্রথমটিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৮৯ জন প্রার্থী। বিশ্রামপুর থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ঝাড়খণ্ডের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রামচন্দ্র চন্দ্রবংশী। লোহরদাগা কেন্দ্র থেকে লড়ছেন প্রতিদ্বন্দ্বী রাজ্য কংগ্রেসের প্রধান রামেশ্বর ওরাওঁ। সকাল সাতটা থেকে শুরু হয়েছে ভোটদান পর্ব। শেষ বেলা তিনটেয়।

ঝাড়খণ্ড বিধানসভা নির্বাচনের প্রথম পর্বের ভোট নিয়ে জানুন ১০ তথ্য:

  1. ভোটপর্ব শুরুর আগে মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাস শনিবার সকালে ট্যুইটে #PehleMatdanPhirJalpan লিখে রাজ্যবাসীকে "নতুন ঝাড়খণ্ড" গড়ার লক্ষ্যে ভোটদানের অনুরোধ জানান। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, "এই প্রজন্মের প্রথম ভোটারদের নতুন ঝাড়খণ্ড গড়ার লক্ষ্যে ভোট দিতে অনুরোধ জানাচ্ছি। ঝাড়খণ্ডের উন্নতি, উন্নয়ন এবং দেশ ও জাতির অখণ্ডতা ধরে রাখতেই তাঁদের ভোট অতি প্রয়োজনীয়।

  2. বিজেপির লক্ষ্য, মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাসের নেতৃত্বে দ্বিতীয় মেয়াদের সরকার। প্রথম পর্যায়ে ১২ টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। পাশাপাশি, হুসেনাবাদ থেকে নির্দল প্রার্থী বিনোদ সিংকে সমর্থন জানাচ্ছে ক্ষমতাসীন দল। ২০১৪ সালে, ৩৫ টি আসন জিতে  অল ঝাড়খন্ড ছাত্র ইউনিয়ন (এজেএসইউ)-এর সঙ্গে সরকার গড়েছিল বিজেপি। সেই নির্বাচনে ৫টি আসন পেয়েছিল এজেএসইউ। এবার তারা একক ভাবে নির্বাচনে লড়ছে।

  3. একা লড়ায় এই নির্বাচনে ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা (জেএমএম), কংগ্রেস এবং জাতীয় জনতা দলের (আরজেডি) মতো বিরোধী জোটের সঙ্গে জোর টক্করের মুখোমুখি বিজেপি। প্রথম পর্যায়ে ছয়টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে কংগ্রেস।  জেএমএম চারটি আসনে। এবং আরজেডি তিনটি আসনে।

  4. এদিকে ভবনাথপুর ও পাঙ্কিতে বিতর্কিত প্রার্থীদের ভোটের প্রার্থী করায় বিরোধীদের তোপের মুখে পড়েছে শাসকদল। ভবনাথপুরের নির্বাচনে লড়ছেন ভানু প্রতাপ সাহি। যিনি ১৩০ কোটি টাকার ওষুধ জালিয়াতির মামলায় অভিযুক্ত। পাঙ্কির বিজেপি প্রার্থী শশীভূষণ মেহতা ধর্ষণ ও হত্যা মামলার আসামি।

  5. ঝাড়খণ্ডের কংগ্রেস প্রধান রামেশ্বর ওরাওঁ এই নির্বাচনে প্রাক্তন রাজ্য কংগ্রেস প্রধান সুখদেও ভগতের প্রতিদ্বন্দ্বী। যিনি সম্প্রতি ক্ষমতাসীন বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।

  6. ২০০০ সালে বিহার থেকে আলাদা হওয়ার পর ঝাড়খণ্ডে এটি চতুর্থ বিধানসভা নির্বাচন। প্রথম পর্বে ৩৮ লক্ষ ভোটারের মধ্যে মহিলা ভোটারের সংখ্যা আনুমানিক ১৮ লক্ষ। এবং তৃতীয় লিঙ্গ ভোটার পাঁচ জন। বাকি ভোটাররা পুরুষ।

  7. শনিবারের প্রথম দফা নির্বাচনে ভোট হচ্ছে ছত্র, গুমলা, বিষ্ণুপুর, লোহরদাগা, মানিকা, লাতেহার, পাঙ্কি, ডাল্টনগঞ্জ, বিশ্রামপুর, ছত্রপুর, হুসেনাবাদ, গড়ওয়া এবং ভবনাথপুরে। নির্বাচনের আগেই মাও-হামলা রুখতে ঝাড়খণ্ডের জেলা প্রশাসন মাও-অধ্যুসিত দু-টি বিধানসভা কেন্দ্র লাতেহার ও মানিকা-র নিরাপত্তার দিকে বিশেষ নজর দিয়েছে।

  8. প্রথম পর্যায়ের মোট ৪,৮৯২ টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ১,২৬২-টিতে ওয়েবকাস্টিং-এর সুবিধা থাকছে। ১,৭৯০টি ভোটদান কেন্দ্রকে অতি সংবেদনশীল হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। ১,২০২ টি ভোটকেন্দ্র চিহ্নিত সংবেদনশীল হিসেবে।

  9. প্রধান নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা নির্বাচনের আগেই বলেছিলেন, ঝাড়খণ্ডে পাঁচ দফার নির্বাচন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের রিপোর্ট এবং কর্মকর্তাদের মতামতের ভিত্তিতে নির্ধারিত হয়েছে। তিনি আরও বলেন,  রাজ্যের ৬৭ টি বিধানসভা কেন্দ্র চরম বামপন্থী দল (এলডব্লিউই) দ্বারা প্রভাবিত।

  10. ২০ ডিসেম্বর পর্যন্ত পাঁচ দফায় ভোট হবে ঝাড়খণ্ডে। ২৩ ডিসেম্বর হবে ভোট গণনা।