আগাম জামিন চেয়ে জেলা আদালতের দ্বারস্থ রাজীব কুমার

প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার (Rajeev Kumar ) আগাম জামিনের আবেদন করলেন বারাসত জেলা আদালতে।

আগাম জামিন চেয়ে জেলা আদালতের দ্বারস্থ রাজীব কুমার

বারাসত জেলা আদালতে আগাম জামিনের আবেদন রাজীব কুমারের।

কলকাতা:

প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার (Rajeev Kumar ) আগাম জামিনের আবেদন করলেন বারাসত জেলা আদালতে। মঙ্গলবার এক বিশেষ আদালত তাঁর আগাম জামিনের আবেদন ফিরিয়ে দিতেই সারদা কাণ্ডে ( Saradha chit fund scam case) অভিযুক্ত রাজীব জেলা আদালতে আবেদন করলেন। জেলা আদালের বিচারক এস রশিদি দ্বিপ্রহর-পরবর্তী সময়ে তাঁর আবেদন শুনবেন। সিবিআইয়ের (CBI) এক আইনজীবী এদিন আধানতে হাজির হয়ে যান। তিনি জানান‌, সিবিআই রাজীবের আগাম জামিনের আবেদনের বিরোধিতা করবে। এর আগে বিশেষ জেলা আদালতে আগাম জামিনের আবেদন করেন রাজীবের আইনজীবী। কিন্তু বিচারক জানিয়ে দেন, এই আদা‌লতে আগাম জামিন শোনার এক্তিয়ার নেই।

বিচারক এও বলেন, রাজীব কুমার চাইলে বারাসত আদালতে এই আবেদন করতে পারেন।

রাজীব কুমারের খোঁজে বিশেষ দল তৈরি করল সিবিআই: সূত্র

সল্ট লেকের সিজিও কমপ্লেক্সে সিবিআইয়ের দফতর উত্তর ২৪ পরগনার বারাসত আদালতের আইনগত এলাকার মধ্যে পড়ে।

মঙ্গলবার রাজীব কুমার সারদা মামলায় সিবিআইয়ের জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে যাননি। সূত্রানুসারে, তাঁকে সকাল ১০টার সময় আসতে বলা হলেও তিনি উপস্থিত হননি।

সোমবারেও হাজিরায় ব্যর্থ কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার

সিবিআই জানিয়েছে, কলকাতা হাইকোর্ট রাজীবের গ্রেফতারির উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার পরে এই নিয়ে দ্বিতীয় বার তিনি সিবিআইয়ের নোটিস পেয়েও হাজিরা দিলেন না।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর তাঁর গ্রেফতারির উপর স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে কলকাতা হাইকোর্ট। সিবিআইয়ের দফতরে হাজিরা দেওয়ার জন্য তাঁকে নোটিস পাঠানো আটকাতেও আদালতে আপিল করেছিলেন রাজীব। সেই আবেদনও নাকচ করে দেয় আদালত।

গত মে মাসে সুপ্রিম কোর্ট গ্রেফতারি থেকে বাঁচতে রাজীবের আর্জি নাকচ করে দেয়। তুলে নেয় রক্ষাকবচ। ১৭ মে সাত দিনের জন্য রাজীবকে গ্রেফতারি থেকে সুরক্ষা দিয়েছিল শীর্ষ আদালত। এরপরও তিনি সেই সুরক্ষার মেয়াদ আরও বাড়ানোর আর্জি জানান।

কিন্তু বিচারপতি অরুণ মিশ্রর নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ জানিয়ে দেয়, রাজীব কুমারের আর্জি মেনে নেওয়া সম্ভব নয়। কেননা প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ এরই মধ্যে ১৭ মে-তেই নির্দেশ দিয়ে দিয়েছেন।

বেঞ্চ জানায়, রাজীব কুমার চাইলে ব্যক্তিগত ভাবে কলকাতা হাইকোর্ট বা বিশেষ আদালতকে আর্জি জানাতে পারেন এই বিষয়ে অব্যাহতি চেয়ে।

এই মুহূর্তে সিআইডির অতিরিক্ত ডিরেক্টর জেনারে‌লের পদে রয়েছেন রাজীব। সারদা মামলায় তিনি সিটের সদস্য ছিলেন। ২০১৪ সালে সুপ্রিম কোর্ট সিবিআইয়ের হাতে ওই তদন্তভার ন্যস্ত করে। তার আগে তদন্তের জন্য রাজ্য সরকার যে বিশেষ তদ‌ন্তকারী দল গঠন করেছিল তাতে ছিলেন রাজীব।

২৫০০ কোটি টাকার কেলেঙ্কারি সারদা কাণ্ড। বহু মানুষ সর্বস্বান্ত হন এই চিট ফান্ডের দ্বারা প্রতারিত হন।