শপিংয়ে গিয়ে লক্ষাধিক টাকার পণ্য চেটে নষ্ট করলেন মার্কিন মহিলা, ধৃত অভিযুক্ত

জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত জেনিফার ওয়াকারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আর চেটে নষ্ট করা পণ্যগুলোকে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। 

শপিংয়ে গিয়ে লক্ষাধিক টাকার পণ্য চেটে নষ্ট করলেন মার্কিন মহিলা, ধৃত অভিযুক্ত

গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত মহিলাকে।

হাইলাইটস

  • লাখ টাকার জিনিসপত্র চেটে ফেললেন এই মহিলা
  • মহিলা জিনিসপত্র চাটার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন
  • প্রায় ১৮০০ ডলারের ( ১৩৭২৭৭ টাকার) জিনিসপত্র চেটে আবার রেখে দেন
ক্যালিফোর্নিয়া:

লকডাউনের কড়াকড়ি মার্কিন মুলুকেও (Lockdown in US)। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য মজুতের ওপর চেপেছে নিষেধাজ্ঞা। চাহিদার সঙ্গে জোগানের সামঞ্জস্য রাখতে এখন ভাঁড়ে মা ভবানী অবস্থা মার্কিন মুলুকের। সেই পরিস্থিতিতে প্রায় ১৮০০ ডলারের পণ্য চেটে নষ্ট করলেন এক মহিলা।এমন আচরণের জন্য এবার শ্রীঘরে ক্যালিফোর্নিয়ার (California Woman) সেই মহিলা। পুলিশ সূত্রে খবর, শহরের এক সুপার মার্কেটে (Super Market) শপিংয়ে এসে প্রায় ১৮০০ ডলারের পণ্য চেটে জায়গায় রেখে দেন ওই অভিযুক্ত। করোনা সংক্রমণের আবহে এমন আচরণের জন্য সেই মহিলাকে গ্রেফতার করতে বাধ্য হয়েছে সাউথ লেক থানার পুলিশ। ইউরোপ ছেড়ে করোনার ভরকেন্দ্র এখন মার্কিন মুলুক। এমনটাই দাবি করছে হু।

প্রতিদিন পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সংক্রমিত ও মৃতের সংখ্যা। এই মুহূর্তে সেই তরুণীর এহেন অবিবেচকের মতো কীর্তিতে যথেষ্ট বিড়ম্বনায় ক্যালিফোর্নিয়া সিটি পুলিশ। সাউথ লেকের সব সুপার মার্কেটের আধিকারিকদের পরিস্থিতি পর্যালোচনায় বৈঠকে ডেকেছেন পুলিশ কর্তা ক্রিস ফোর। জানা গিয়েছে, ভারতীয় মুদ্রায় সেই পণ্যগুলোর আনুমানিক মুল্য ১,৩৭,২৭৭ টাকা। 

পুলিশ সূত্রে খবর, যে পণ্য সেই তরুণী চেটেছে সেইগুলো ভারায় দেওয়া হয়ে থাকে। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত সেই স্টোরের একাধিক পোশাক নিজের হাতে মুখে নিয়ে চেটেছে। আবার জায়গায় রেখে দিয়েছে। পড়ে আবার সেই হাত দিয়ে অন্য পণ্য বাস্কেটে ভরেছেন। জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত জেনিফার ওয়াকারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আর চেটে নষ্ট করা পণ্যগুলোকে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে।