চাইনিজ অ্যাপ নিষিদ্ধ করে "ডিজিটাল স্ট্রাইক" করা হয়েছে: রবিশঙ্কর প্রসাদ

Chinese apps: "আমরা দেশবাসীর তথ্য সুরক্ষিত রাখার জন্যেই চাইনিজ অ্যাপগুলিকে নিষিদ্ধ করেছি", একথাও বলেন কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী

চাইনিজ অ্যাপ নিষিদ্ধ করে

Chinese apps ban: তথ্য ফাঁস রুখতেই চাইনিজ অ্যাপ নিষিদ্ধকরণের সিদ্ধান্ত, বলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

হাইলাইটস

  • ভারতে ৫৯ টি চাইনিজ অ্যাপ নিষিদ্ধ করার ঘোষণা করেছে মোদি সরকার
  • ডিজিটাল স্ট্রাইক করা হয়েছে চিনের বিরুদ্ধে, বলেন রবিশঙ্কর প্রসাদ
  • ভারতীয়দের নিজস্ব অ্যাপ তৈরি করতে উৎসাহ দিচ্ছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী
নয়া দিল্লি:

লাদাখে ভারত-চিন সংঘর্ষে দেশের ২০ জন জওয়ানের জীবন বলিদানের পর এবার চিনের সঙ্গে চোখে চোখ রেখে কথা বলতে চায় মোদি সরকার। আর সেইজন্যেই টিকটকের (TikTok) মতো চিনের (China) মোট ৫৯টি অ্যাপ বন্ধ করে দিয়ে আসলে "ডিজিটাল স্ট্রাইক" করেছে কেন্দ্র, একথাই বললেন কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ। এর আগে পাকিস্তানকে শিক্ষা দিতে সার্জিকাল স্ট্রাইকের পথে হেঁটেছিল ভারত (India)। এবার চিনকে হাতে না মেরে ভাতে মারার প্রক্রিয়া শুরু করতেই অ্যাপগুলোকে (Chinese apps ban) নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার, এমনটাই মনে করছে বিশেষজ্ঞমহল। পশ্চিমবঙ্গের জনতার উদ্দেশে বার্তা দিতে বৃহস্পতিবার এক ডিজিটাল সমাবেশ করেন তিনি (Ravi Shankar Prasad)। সেখানেই কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী বলেন, "আমরা দেশবাসীর তথ্য সুরক্ষিত রাখার জন্যেই চাইনিজ অ্যাপগুলিকে নিষিদ্ধ করেছি"।

এখনই তো ভারতীয়দের নিজস্ব অ্যাপ তৈরির "দারুণ সুযোগ": রবিশঙ্কর প্রসাদ

"ভারত বরাবরই শান্তির পক্ষে, তবে কেউ যদি খারাপ চোখে দেশের দিকে তাকায় তবে আমরা যোগ্য জবাব দেব",  প্রধানমন্ত্রীর সুরে সুর মিলিয়েই একথা বলেন রবিশঙ্কর প্রসাদ। গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, "লাদাখে ভারতীয় ভূখণ্ডে যাদের নজর পড়েছে, তাদের যোগ্য জবাব দেওয়া হয়েছে।  ভারত যেমন বন্ধুত্ব করতে জানে, তেমন শত্রুদের জবাব দিতেও জানে। মাতৃভূমিকে আক্রমণ করতে এলে আমাদের সাহসী জওয়ানরা কাউকেই রেয়াত করবে না।"

ভারতের বিরুদ্ধে চিনের আগ্রাসনই প্রমাণ করে "কমিউনিস্ট পার্টির প্রকৃত মনোভাব": আমেরিকা

রবিবার মন কি বাত অনুষ্ঠান থেকে প্রধানমন্ত্রী "আত্মনির্ভর ভারত" অভিযানের কথা তুলে ধরে চিনা পণ্য বর্জনের আহ্বান জানান। "আমরা স্থানীয়দের থেকেই জিনিস কিনব এবং স্থানীয়দের পক্ষেই থাকব এবং এটি ভারতকে আরও শক্তিশালী হতে সহায়তা করবে", বলেন তিনি।

সোমবার ভারতে ৫৯ টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করার ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই সিদ্ধান্তে উদ্বিগ্ন চিন জানায় যে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখছে তারা। ভারতের তথ্য় প্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, ভারতীয় গোয়েন্দারা জানিয়েছেন যে, অ্য়ান্ড্রয়েড ও আইওএস প্ল্য়াটফর্মে থাকা মোবাইল অ্য়াপকে অপব্য়বহার করে গ্রাহকদের গোপনীয়তা লঙ্ঘনের চেষ্টা করা হচ্ছে। সেই কারণেই সবদিক বিবেচনা করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। ভারতের এই কড়া পদক্ষেপ জানার পরেই নড়েচড়ে বসে চিন। সেদেশের বিদেশমন্ত্রকের ঝাও লিজিয়ান বলেন, "ঘটনা জানার পর চিন গভীরভাবে উদ্বিগ্ন এবং পরিস্থিতি যাচাই করে দেখছে"।