This Article is From Mar 12, 2020

এনপিআরের জন্য কোনও নথি লাগবে না, কেউই সন্দেহের তালিকায় নন: অমিত শাহ

অমিত শাহ রাজ্যসভায় বলেন, “ আপনার কাছে যা তথ্য আছে, সেটাই দিতে পারেন, বাকি জায়গা ফাঁকা রাখা যাবে”

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, “সন্দেহভাজন বলে কোনও ক্ষেত্র থাকবে না...এই ক্ষেত্রের আওতায় কাউকেই রাখা হবে না”

নয়াদিল্লি:

জাতীয় জনসংখ্যাপঞ্জী (NPR) জন্য কোনও নথি লাগবে না, বৃহস্পতিবার রাজ্যসভায় এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah), পাশাপাশি কাউকেই সন্দেহের তালিকায় রাখা হবে না বলেও জানান তিনি। রাজ্যসভায় দিল্লিতে হিংসা নিয়ে আলোচনার জবাবে, অমিত শাহ বলেন, “কোনও নথি জমা দিতে হবে না। আপনার কাছে যা তথ্য আছে, সেটাই দিতে পারেন, বাকি জায়গাগুলি ফাঁকা থাকবে”। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, “সন্দেহভাজন বলে কোনও ক্ষেত্র থাকবে না...এই ক্ষেত্রের আওতায় কাউকেই রাখা হবে না”। কংগ্রেস নেতাদের প্রশ্নের উত্তরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, “এনপিআর নিয়ে কারও ভয়ের কোনও কারণ নেই। এই প্রক্রিয়ায় কাউকেই সন্দেহের তালিকায় রাখা হবে না”।

এনপিআর বা জাতীয় জনসংখ্যাপঞ্জী করতে অনিচ্ছুক অনেক রাজ্যই, এটিকে এনআরসি বা জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর প্রস্তুতি হিসেবে দেখছেন অনেকেই, এর সঙ্গেই নাগরিকত্ব সংশোধন আইন নিয়ে দেশজুড়ে বিক্ষোভের আবহ তৈরি হয়।

নাগরিকত্ব সংশোধন আইন, জাতীয় নাগরিকপঞ্জী এবং জাতীয় জনসংখ্যাপঞ্জীর মূল উদ্দেশ্য সম্পর্কে অনেকের ধারণা, এই তিনটির ফলে হাজারও মুসলিম মানুষকে দেশছাড়া করা হবে।

জনগণনার অংশ হিসেবে ২০১০ সালে এনপিআর করা হয়, সম্প্রতি যেভাবে করার কথা বলা হয়েছে, তা নিয়ে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে, এবারে অভিভাবকের জন্মস্থান উল্লেখ করতে বলা হয়েছে।

এনপিআরের প্রশ্নের উত্তর না দিলে, তাঁকে “সন্দেভাজনের” তালিকায় রাখা হবে বলেওমানুষের মনে আতঙ্ক রয়েছে।

সাধারণ প্রশ্নগুলির মধ্যে রয়েছে, পরিবারের সদস্যসংখ্যা, বিদ্যুৎ এর উৎস, তাদের শৌচালয় রয়েছে কিনা, শৌচালয়ের ধরণ, বর্জ পানীয় বের নিকাশের ব্যবস্থা, স্নানের ব্যবস্থা, রান্নাঘরের ব্যবস্থা এবং রান্নার জন্য ব্যবহার্য জ্বালানি ও গ্যাসের সংস্থান।

২০২০ এনপিআরে, আটটি অতিরিক্ত তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে, তারমধ্যে রয়েছে অভিভাবকের জন্মসংস্থান, এবং তারিখ. অভিভাবকের বর্তমান এ স্থায়ী ঠিকানা, ও মাতৃভাষা এবং নাগরিকত্ব।