This Article is From Feb 13, 2020

কলেজ স্ট্রিট ক্যাম্পাসে ঐশী ঘোষের অনুষ্ঠানের অনুমতি দিল না CU

ঠিক কী কারণে অনুমতি দেওয়া হয়নি, তা অবশ্য স্পষ্ট করেনি বিশ্ববিদ্যালয় সেনেট।

কলেজ স্ট্রিট ক্যাম্পাসে ঐশী ঘোষের অনুষ্ঠানের অনুমতি দিল না CU

গত ৬ জানুয়ারি মুখোশধারী আততায়ীদের আক্রমণে গুরুতর জখম হয়েছিলেন ঐশী ঘোষ-সহ অন্য বাম্পন্থী পড়ুয়ারা। (ফাইল)

হাইলাইটস

  • কলেজ স্ট্রিট ক্যাম্পাসে ঐশী ঘোষের অনুষ্ঠানের অনুমতি দিল সিইউ
  • এই সপ্তাহের শেষে একটা সেমিনারে উপস্থিত থাকার কথা ছিল ঐশীর
  • যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাচনের প্রচারে কলকাতায় আসছেন তিনি
কলকাতা:

ঐশী ঘোষের (Aishe Ghosh) অনুষ্ঠান আয়োজনের অনুমতি দিল না কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় (Calcutta University)। ঠিক কী কারণে অনুমতি দেওয়া হয়নি, তা অবশ্য স্পষ্ট করেনি বিশ্ববিদ্যালয় সেনেট। জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের বামপন্থী সংগঠন 'সেভ অটোনমি, সেভ ইউনিভার্সিটি' বৃহস্পতিবার একটা সেমিনার আয়োজিত করেছিল কলেজ স্ট্রিট ক্যাম্পাস। সেই সেমিনারে উপস্থিত থাকার কথা ছিল জেএনইউ'র (JNU) ছাত্রসংসদ সভাপতি ঐশী ঘোষের। কিন্তু সেই সেমিনার আয়োজনে অনুমতি দেয়নি বিশ্ববিদ্যালয়। এদিকে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে এসএফআইয়ের ভোটে প্রচারে কলকাতায় আসছেন ঐশী ঘোষ। তবে ঐশীর অনুষ্ঠানে অনুমতি না মিললেও, এদিন কলেজ স্ট্রিট ক্যাম্পাসের মূল গেটের বাইরে আয়োজিত হয় সেমিনার।

শিক্ষার মানোন্নয়ন, উপাচার্য কাউন্সিলে সায় রাজ্যের ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের

'বহিরাগত' হিসেবে ঐশীর যাদবপুরে উপস্থিতি ঘিরে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। এবিভিপির দাবি, "বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন না মেনে ঐশীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে এসএফআই।" এই দাবির পাল্টা দিয়েছে বামপন্থী ওই ছাত্র সংগঠন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ও বহিরাগত। এবিভিপি আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি আমন্ত্রিত হলে, ঐশীর ক্ষেত্রে বাধা কোথায়? প্রশ্ন তুলেছে এসএফআই। এদিকে, গত ৬ জানুয়ারির ঘটনার পর থেকে শিরোনামে ঐশী ঘোষ। সেদিন মুখোশধারী আততায়ীদের আক্রমণে উত্তেজনা ছড়িয়েছিল জেএনইউ ক্যাম্পাসে। অভিযোগ ছিল, আততায়ীদের আক্রমণে গুরুতর জখম হয়েছিলেন ঐশী ঘোষ-সহ অন্য বামম্পন্থী পড়ুয়ারা। বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্পত্তি ভাঙচুরের অভিযোগও উঠেছিল। সেই ঘটনায় নাম জড়িয়েছিল এবিভিপির।

যদিও সেই অভিযোগ নস্যাৎ করে গেরুয়া ওই ছাত্র সংগঠন বলেছিল, ঐশীর নেতৃত্বে ফর্ম ফিলাপে বাধা দিয়েছিল বামপন্থী পড়ুয়ারা। সেই বাধায় বিক্ষুব্ধ হয়ে পড়ুয়ারা এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। আপাতত তদন্তাধীন এই হামলার ঘটনা। 



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
.