চিন প্রসঙ্গে রাহুল গান্ধির টুইট! কংগ্রেস সাংসদকে কটাক্ষ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

টুইটের পালটা দিতে এবার আসরে নামলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ

চিন প্রসঙ্গে রাহুল গান্ধির টুইট! কংগ্রেস সাংসদকে কটাক্ষ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে করা রাহুল গান্ধির টুইটের জবাব দিলেন রবিশংকর প্রসাদ

হাইলাইটস

  • সীমান্তে চিনা আগ্রাসন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী কেন নীরব?
  • রাহুলের এহেন টুইটের পাল্টা দিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ
  • টুইটারে এই জাতীয় প্রশ্ন করা উচিত নয়; কটাক্ষ রবিশংকর প্রসাদের
নয়াদিল্লি:

বুধবার সকালেই ইন্দো-চিন সীমান্ত (Indo-China border dispute) উত্তেজনা প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর নীরবতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন রাহুল গান্ধি (Rahul Gandhi on PM's silence)। এই টুইটের পালটা দিতে এবার আসরে নামলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ (Minister RS Prasad slams Rahul) আন্তর্জাতিক বিষয় নিয়ে টুইটারে রাহুল গান্ধির কোনও প্রশ্ন করা উচিত নয়। এমনটাই কটাক্ষের সুরে বলেন ওই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তাঁর মন্তব্য উদ্ধৃত করেছে সংবাদসংস্থা এএনআই। সেই মন্তব্যে উল্লেখ; "রাহুল গান্ধির জানা উচিত টুইটারে আন্তর্জাতিক বিষয় বিশেষ করে চিন সংক্রান্ত কোনও প্রশ্ন করা উচিত নয়। উনি বালাকোট সার্জিক্যাল স্ট্রাইকার প্রমাণ চেয়েছিলেন টুইটারে।" ১০ হাজার বাহিনী-সহ সামরিক সজ্জা নিয়ে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা  থেকে সরে গিয়েছে পিপলস লিবারেশন আর্মি। প্রতিরক্ষা মন্ত্রক সূত্রে বুধবার এমন দাবি করা হয়েছে। সাম্প্রতিক দ্বিপাক্ষিক সামরিক আলোচনায় পূর্ব লাদাখের তিনটি এলাকা থেকে সরে আসার ব্যাপারে সহমত পোষণ করেছে। সেই সহমতের ভিত্তিতে ইন্দো-চিন বাহিনী এলএসি বরাবর পিছনে সরার উদ্যোগ নিয়েছে। এই উদ্যোগের জেরে অনেকটাই কমেছে সীমান্ত উত্তেজনা 

দ্বিপাক্ষিক স্তরে আত্মবিশ্বাস বাড়াতে ছয় জুন এই বৈঠক হয়েছিল। তারপর রবিবার থেকে ধীরে ধীরে সরতে শুরু করেছে দুই দেশের সামরিক বাহিনী। জানা গিয়েছে, এলএসি বরাবর গালওয়ান উপত্যকা, প্যাট্রলিং পয়েন্ট ১৫ আর হটস্প্রিং এলাকার পেট্রলিং পয়েন্ট ১৭ থেকে সরতে শুরু করেছে বাহিনী।

বুধবার রাহুল গান্ধির কটাক্ষের মুখে পড়েছেন প্রধানমন্ত্রী রাহুল গান্ধি। তিনি বলেন, "ভারতীয় ভূখণ্ডকে ঢুকে এলাকা দখল করে নিল চিন সেনা। ঠিক এই সময় আমাদের প্রধানমন্ত্রী একদম চুপ আর অদৃশ্য।"

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে পূর্ব লাদাখ এলাকায় চিনা সেনার আগ্রাসন ঘিরে কেন্দ্রের সরকারকে একহাত নিয়েছে টিম রাহুল গান্ধি। সম্প্রতি বিহারের জন্য করা ভার্চুয়াল জনসভায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ দাবি করেছেন; "সীমান্ত সুরক্ষায় ভারতের দক্ষতা বিশ্ববন্দিত। সবাই জেনে গেছে মার্কিন ও ইজরায়েলের পর একমাত্র ভারত পারে সীমান্ত নিশ্ছিদ্র করতে।" অমিত শাহের করা এই মন্তব্যকে কটাক্ষের সুরে বিঁধেছে রাহুল গান্ধি।

Newsbeep