বাজেটের সংশোধিত আয়কর নীতি: বিদেশে ছাড় পেলেও এদেশে আয়কর দিতে হবে NRI-দের

বিদেশে আয়কর ( (Income Tax) )দিতে না হলেও এবার স্বদেশে আয়কর গুনতে হবে প্রবাসীদের (NRI)

বাজেটের সংশোধিত আয়কর নীতি: বিদেশে ছাড় পেলেও এদেশে আয়কর দিতে হবে NRI-দের

জনগণের হাতে নগদের জোগান বাড়াতে আয়কর প্রদানে সংশোধনী আনা হয়েছে বাজেট ২০২০-তে।

হাইলাইটস

  • বিদেশে ছাড় পেলেও এদেশে আয়কর দিতে হবে প্রবাসীদের
  • এবার থেকে ২৪০ দিন দেশের বাইরে থাকলে তবেই মিলবে প্রবাসী তকমা
  • সংশোধিত আয়কর আইনে এমন ধারা যোগ করা হয়েছে
নয়াদিল্লি:

বিদেশে আয়কর ( (Income Tax) ) দিতে না হলেও এবার স্বদেশে আয়কর গুনতে হবে প্রবাসীদের (NRI)। বাজেট ২০২০-তে (Budget 2020) আয়কর নীতির যে সংশোধন, তাতে এমনই বলা হয়েছে। পাশাপাশি আগে ১৮২ দিন বিদেশে থাকলে, তাঁকে প্রবাসী তকমা দেওয়া হতো। কিন্তু সংশোধিত আইনে সেই ১৮২ দিন বাড়িয়ে ২৪০ দিন করা হয়েছে। অর্থাৎ আট মাস দেশের বাইরে একজন কাটালে, তাঁর জুটবে প্রবাসী তকমা। আয়কর আইনের ৬ ধারায় সংশোধনী আনা হয়েছে, তাতে বলা; কোনও ব্যক্তির আয়কর প্রদানের ক্ষেত্রে আগের বছরের নিরিখে তিনি ভারতীয় নাগরিক হিসেবে গণ্য হবেন। যদি তিনি অন্য দেশের বাসিন্দা হিসেবে আয়কর না দিয়ে থাকেন, তবেই। এবিষয়য়ে রাজস্ব দফতর সূত্রে খবর, আয়কর আইনের ফাঁক গলে, যারা করফাঁকি দিতে চান, তাঁদের প্রতিহত করতে আইনে এই সংশোধনী আনা হয়েছে। 

"এই বাজেটে মানুষের আয় বাড়বে": বাজেট ২০২০ নিয়ে বললেন প্রধানমন্ত্রী মোদি

পিটিআইকে রাজস্ব সচিব অজয় ভূষণ পাণ্ডে বলেন, "আমরা আয়কর আইনে যে সংশোধন এনেছি, তাতে বলা এখন প্রবাসী হতে গেলে ২৪০ দিন দেশের বাইরে থাকতে হবে। আগে ১৮২ দিন দেশের বাইরে থাকলেই প্রবাসী হিসেবে গণ্য করা হতো। আমরা দেখেছি অন্য কোনও দেশের নাগরিক না, এমন অনেকে সেই আইনের ফাঁক গলে বেড়িয়ে যেত। কিন্তু এখন তাঁদের ভারতীয় নাগরিক হিসেবে গণ্য করা হবে ও তাঁর সামগ্রিক আয় করযোগ্য হবে।"  বিশেষজ্ঞদের আবার দাবি, এই সংশোধনে, হিতে বিপরীত হবে। অনেকে ভারতে ফিরতে চাইবেন না, কেউ কেউ আবার নাগরিকত্ত্ব সমর্পণ করে দেবে। জানা গেছে, ইউএই, পানামা ও বাহরিনের মতো দেশের নাগরিকদের আয়কর দিতে হয় না। 

Budget 2020: এবার বেসরকারিকরণের পথে এলআইসি, শেয়ারের একাংশ বিক্রি করে দিচ্ছে সরকার

এদিকে, দ্বিতীয় বাজেট বক্তৃতায় আয়করের হার  উল্লেখযোগ্যভাবে কমানোর ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। জানা গেছে,৫ লক্ষ টাকা থেকে ৭.৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয়ের ক্ষেত্রে আয়করের হার ২০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১০ শতাংশের ঘোষণা করা হয়েছে। ৭.৫ লক্ষ টাকা থেকে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয়ের ক্ষেত্রে করের হার ২০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১৫ শতাংশ কমানোর ঘোষণা হয়েছে বাজেটে। ১০ লক্ষ টাকা থেকে ১২.৫ লক্ষ টাকা আয়ের ক্ষেত্রে আয়করের হার করা হয়েছে ৩০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২০ শতাংশ। ১২.৫ লক্ষ টাকা থেকে ১৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয়ের ক্ষেত্রে ৩০ শতাংশ থেকে কমিয়ে আয়ককের হার ২৫ শতাংশ ঘোষণা করা হয়েছে বাজেটে। ১৫ লক্ষের ওপর আয়ের ক্ষেত্রে আয়করের হার ৩০ শতাংশই রাখা হয়েছে। ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয়ে কোনও আয়কর লাগবে না।

(PTI থেকে সংগৃহীত)