আরএসএস নেতাদের কাছে মোদী ‘শিবলিঙ্গে বিছের মতো’, দাবি শশী থারুরের

আবারও বিতর্কে  জড়ালেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় বিদেশ প্রতিমন্ত্রী শশী থারুর। বেঙ্গালুরুর একটি অনুষ্ঠানে এক সাংবাদিকের  সূত্র  উদ্ধৃত  করে  থারুর বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র  মোদীর উপর সঙ্ঘ পরিবার ক্ষুব্ধ।

বেঙ্গালুরুর একটি অনুষ্ঠানে এক সাংবাদিকের  সূত্র  উদ্ধৃত  করে  থারুর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র  মোদীর উপর আক্রমন করেছেন

হাইলাইটস

  • প্রধানমন্ত্রী মোদীকে নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্কে জড়ালেন শশী থারুর
  • প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে পাল্টা আক্রমণ করেছে বিজেপি
  • এর আগে 'হিন্দু পাকিস্তান' মন্তব্য করেও সমালোচিত হন থারুর
বেঙ্গালুরু:

 আবারও বিতর্কে  জড়ালেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় বিদেশ প্রতিমন্ত্রী শশী থারুর। বেঙ্গালুরুর একটি অনুষ্ঠানে এক সাংবাদিকের  সূত্র  উদ্ধৃত  করে  থারুর বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র  মোদীর উপর সঙ্ঘ পরিবার ক্ষুব্ধ। শুধু তাই নয় আরএসএস নেতাদের কাছে মোদী  ‘শিবলিঙ্গে বিছের মতো' । মানে এটাকে সহ্য করা  যায় না  আবার ‘চপ্পল' ব্যবহার করে সরিয়ে দেওয়াও সম্ভব নয়। থারুরের মন্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা,  রবিশঙ্কর প্রসাদ থেকে  শুরু করে অনেকেই থারুরকে বাক্যবাণে বিদ্ধ  করেছেন। মন্ত্রী বলেছেন, ‘ খুনের মামলায় অভিযুক্ত শশী থারুর  ভগবান শিবকে অসম্মান করেছেন। আমি চাই নিজেকে শিব ভক্ত দাবি করা কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধি এ সম্পর্কে নিজের প্রতিক্রিয়া  দিন। ভগবান শিবের এমন অবমাননার পর  কংগ্রেস সভাপতির উচিত হিন্দুদের থেকে ক্ষমা চাওয়া।'  

পাল্টা  থারুর বলেছেন, ‘ আইনমন্ত্রী কোন খুনের ঘটনার কথা  বলছেন। নাকি এরকম কিছু একটা  তৈরি করার কথা ভাবছেন তিনি? আর আমার বক্তব্যের মধ্যে কোথাও মিথ্যা আছে সেটা যদি বলে দেন ভাল হয়। আমি বাড়িতে ভগবান শিবকে পুজো করি। যেখানেই যাই না কেন তাঁর মূর্তি সঙ্গে করে নিয়ে যাই। তাঁকে অপমান করার  কথা আমি ভাবতেও পারি না। আর আমার মনে হয় আপনারা  ভগবানকে রাজনৈতিক উদ্দেশে ব্যবহার করতে চান। আর এটা করতে আপনাদের কোনও সমস্যা  নেই।'

Mr Tharoor responded to the barrage of criticism with a tweet:

 

প্রাক্তন মন্ত্রীর স্ত্রী সুনন্দা পুষ্করের মৃত্যু হয় 2014 সালের জানুয়ারি মাসে। সেই ঘটনায় নাম জড়ায় থারুরের। মামলাটি এখন বিচারাধীন। কিছু দিন আগে  দিল্লি হাইকোর্ট জানিয়েছে এ ব্যাপারে  শশী থারুরের নীরবতাকে  সংবাদ মাধ্যমের সম্মান করা উচিত।

এর আগেও বিতর্কে জড়িয়েছেন শশী থারুর। কখনও বলেছনে হিন্দু পাকিস্তানের কথা, কখনও আবার বলেছেন আগামী নির্বাচনে জিতে এলে দেশের সংবিধান নতুন  করে লিখবে বিজেপি এবং আরএসএস।