শনি গ্রহে এক দিনের হিসেব কী, অবশেষে উত্তর পেলেন বৈজ্ঞানিকেরা

ক্রিস্টোফার মাঙ্কোভিচ, জ্যোতির্বিদ্যা ও অ্যাস্ট্রোফিজিক্সের একজন গ্র্যাজুয়েট প্রথম এই বলয়ের ‘ওয়েভ প্যাটার্ন’ বিশ্লেষণ করেন।

শনি গ্রহে এক দিনের হিসেব কী, অবশেষে উত্তর পেলেন বৈজ্ঞানিকেরা

রহস্য এত দিন লুকিয়ে ছিল শনির বলয়ের মধ্যে

হাইলাইটস

  • পৃথিবীর ২৯ বছরে শনির এক বছর: ক্যালিফোর্নিয়া সান্তাক্রুজ বিশ্ববিদ্যালয়
  • একটা দিনের সময় দশ ঘণ্টা ৩৩ মিনিট ৩৮ সেকেন্ড
  • এতদিন রহস্য শনির বলয়ের মধ্যে লুকিয়ে ছিল
ওয়াশিংটন:

নাসার কাস্সিনি মহাকাশযান প্রকাশ করেছে যে শনি গ্রহে এক দিন মানে সাড়ে ১০ ঘণ্টা সময়। এই আবিষ্কার সৌরজগতের বহু রহস্যের সমাধান করতে পারবে।

কাস্সিনি মিশন বর্তমানে বাতিল বিবেচিত হলেও তার থেকে প্রাপ্ত তথ্য বিশ্লেষণ করে ক্যালিফোর্নিয়া সান্তাক্রুজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈজ্ঞানিকেরা দেখিয়েছেন পৃথিবীর ২৯ বছর মিলিয়ে শনি গ্রহে এক বছর হয়। একটা দিনের সময় দশ ঘণ্টা ৩৩ মিনিট ৩৮ সেকেন্ড।

ভাঙা মন নিয়ে চলে গেল বিশ্বের সবথেকে মিষ্টি কুকুর

এতদিন এটা জানা যায়নি,কারণ এটা শনির বলয়ের মধ্যে লুকিয়ে ছিল। ক্রিস্টোফার মাঙ্কোভিচ, জ্যোতির্বিদ্যা ও অ্যাস্ট্রোফিজিক্সের একজন গ্র্যাজুয়েট প্রথম এই বলয়ের ‘ওয়েভ প্যাটার্ন' বিশ্লেষণ করেন।

তাতে দেখা যায় গ্রহের মধ্যেকার ভাইব্রেশনে ওই বলয় সাড়া দেয়। ভূমিকম্প মাপার জন্য যে সিস্মোমিটার ব্যবহৃত হয় তা ব্যবহার করেই এই তথ্য বিশ্লেষণ করা হয়েছে।

এই গবেষণার তথ্য অ্যাস্ট্রোফিজিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে দেখানো হয়েছে কী ভাবে শনির ভিতরের কাঠামো তার বাইরের বলয়কে প্রভাবিত করে।

আর তা থেকেই গবেষণাকারী বলয়ের চলন দেখে ভিতরের দিনরাত্রির হিসেব করেছেন।

বৃহস্পতি বা পৃথিবীর মতো মাধ্যাকর্ষণ শক্তিযুক্ত গ্রহের থেকে শনি একেবারেই আলাদা। তার বলয় তার অক্ষরেখার সঙ্গে সুন্দর ভারসাম্যে অবস্থান করে। বলয় সংক্রান্ত এই আবিষ্কারকে যুগান্তকারী হিসাবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

কাস্সিনি প্রকল্পের বৈজ্ঞানিক লিন্ডা স্পিলকার বলেন, ‘‘গবেষকেরা বলয়ের মাধ্যমে শনির ভিতরের এবং তার দিনরাত্রির হিসাব নির্ধারণ করে ফেলেছেন। আর এটা খুবই ঠিকঠাক ভাবে করা হিসেব ও গবেষণা।''

কাস্সিনি সহাকাশযান ১৩ বছর ধরে মহাকাশে বিচরণের পরে জ্বালানি শেষ হওয়ার কারণে ২০১৭ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর শনির আকাশে আছড়ে পরে শেষ হয়ে গিয়েছিল।


আরও খবর দেখুন এখানে