নীরবতা ভেঙে জম্মু ও কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা রদ নিয়ে টুইট রাহুল গান্ধির

Kashmir Article 370: অবশেষে রাহুল গান্ধি নীরবতা ভাঙলেন। তিনি টুইট করে জানালেন, এই পধেপের ফলে জাতীয় নিরাপত্তায় তাৎপর্যপূর্ণ প্রভাব পড়বে।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS
নীরবতা ভেঙে জম্মু ও কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা রদ নিয়ে টুইট রাহুল গান্ধির

Article 370 Jammu and Kashmir: জম্মু ও কাশ্মীর প্রসঙ্গে অবশেষে নীরবতা ভাঙলেন রাহুল গান্ধি।


নয়াদিল্লি: 

হাইলাইটস

  1. অবশেষে রাহুল গান্ধি নীরবতা ভাঙলেন ৩৭০ ধারা রদ প্রসঙ্গে
  2. জানালেন, এর ফলে জাতীয় নিরাপত্তায় তাৎপর্যপূর্ণ প্রভাব পড়বে
  3. কোনও কোনও কংগ্রেস নেতা বিজেপির সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়েছেন

সোমবার জম্মু ও কাশ্মীরের (J&K) ‘স্পেশাল স্ট্যাটাস'-এর (Special Status) অবসান ঘটিয়ে তাকে দু'টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এই প্রসঙ্গে অবশেষে রাহুল গান্ধি (Rahul Gandhi) নীরবতা ভাঙলেন। তিনি টুইট করে জানালেন, এই পদক্ষেপের ফলে জাতীয় নিরাপত্তায় তাৎপর্যপূর্ণ প্রভাব পড়বে। তিনি তাঁর পোস্টে লেখেন, ‘‘জাতীয় সংহতির কোনও উন্নতি হবে না এভাবে জম্মু ও কাশ্মীরকে বিভক্ত করে, নির্বাচিত প্রতিনিধিদের বন্দি করে এবং সংবিধানকে লঙ্ঘন করে। এই দেশ মানুষের জন্য, জমির প্লটের জন্য নয়। ক্ষমতার এই অপব্যবহারের ফলে আমাদের জাতীয় নিরাপত্তায় তাৎপর্যপূর্ণ প্রভাব পড়বে।'' মঙ্গলবারই এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে দলের মতানৈক্য প্রসঙ্গে সোনিয়া গান্ধি ও রাহুল গান্ধির সঙ্গে কংগ্রেস সাংসদদের বৈঠক হয়। আর সেখানেই ঠিক হয় এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কী অবস্থান নেবে দল। তারপরই রাহুল এই টুইট।

সোমবার রাজ্যসভায় অমিত শাহর ঘোষণার পরে কংগ্রেস নেতারা কার্যতই সঠিক প্রতিবাদ করতে পারেননি। রাহুল কিন্তু নীরবই ছিলেন। মঙ্গলবারই নীরবতা ভাঙলেন তিনি।

সংসদে কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে বলতে গিয়ে কংগ্রেসকে অস্বস্তিতে ফেললেন অধীর চৌধুরী

সোমবার দিনভর কংগ্রেসের আচরণে দ্বিচারিতাই দেখা গিয়েছে এই বিল প্রসঙ্গে। রাজ্যসভায় আক্রমণাত্মক ভাবে এই বিলের প্রতিবাদ করে তাকে ‘গণতন্ত্রের হত্যা' বলে অভিযোগ তুলেছে কংগ্রেস। অথচ বাইরে জনার্দন দ্বিবেদী এবং দীপেন্দর হুডার মতো নেতারা সমর্থন জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তকে!

তিনি এই পরিস্থিতিতে কোনও আপৎকালীন বৈঠক ডাকবেন কিনা, সেপ্রসঙ্গে NDTV-কে রাহুল বলেন, তিনি কোনও বৈঠক ডাকতে পারেন না। কেননা তিনি আর কংগ্রেস সভাপতি নন।

‘‘জম্মু ও কাশ্মীর বললে আমি পাক অধিকৃত কাশ্মীরও বুঝি'': বিরোধীদের জানালেন অমিত শাহ

গত মে মাসে নির্বাচনের ফলাফলে কংগ্রেস ধরাশায়ী হওয়ার পরেই ব্যর্থতার সমস্ত দায় নিয়ে সভাপতির পদ ছাড়েন রাহুল। 

মঙ্গলবার সকালে রাহুলের মা সোনিয়া গান্ধি জানতে চান, দল এই বিলকে সমর্থন করবে নাকি বিরোধিতা। তিনি কংগ্রেস সাংসদদের জানিয়ে দেন, ‘‘আমরা এর বিরোধিতা করব এবং আমাদের বিরোধিতা হবে এই নিয়ে যে, জম্মু ও কাশ্মীরের মানুষ বা রাজ্যের বিধানসভা— কোথাও এটা আলোচনা করা হয়নি।''

রাহুল পদত্যাগ করার পরে কংগ্রেস এখনও তাঁর বদলি কাউকে খুঁজে পায়নি যাঁকে সভাপতির পদে বসানো যাবে। দল কার্যকরী কমিটির একটি বৈঠক ডেকেছে যেখানে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত ‌নেওয়া হবে।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................