প্রধানমন্ত্রী মোদি কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতা করার জন্যে আমেরিকাকে বলেনি, সাফ জানাল ভারত

ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি কাশ্মীরের ব্যাপারে মধ্যস্থতার অনুরোধ করেছেন, প্রস্তুত আমেরিকা

প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

হাইলাইটস

  • কাশ্মীর নিয়ে তৃতীয় পক্ষের মধ্যস্থতা চায় না ভারত
  • সোমবার, ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন তিনি কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতায় রাজি
  • ট্যুইটে ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক জানায় মধ্যস্থতার ব্যাপারে ভারত সাহায্য চায়নি
নয়া দিল্লি:

কাশ্মীর (Kashmir issue) নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতা করার প্রস্তাবকে উড়িয়ে দিল ভারত (India)। এ বিষয়ে আমেরিকাকে সাহায্য করার জন্যে বলা হয়নি, সাফ জানাল ভারতের কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রক (foreign ministry)। সোমবার হোয়াইট হাউসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (US President Donald Trump) এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান (Imran Khan) এক বৈঠক করেন। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে হোয়াইট হাউসে স্বাগত জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট নিজে। পাক প্রধানমন্ত্রীর সাথে সে দেশের বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশিও উপস্থিত ছিলেন। জানা গেছে, ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠককালে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন যে আমেরিকা ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনাপূর্ণ সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে আমেরিকা একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। পাশাপাশি ডোনাল্ড ট্রাম্প এও দাবি করেন যে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কাশ্মীরের বিষয়ে সাহায্যের জন্য তাঁকে অনুরোধ করেছেন এবং যদি ভারত-পাকিস্তান চায়, তাহলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এ বিষয়ে মধ্যস্থতা করতে প্রস্তুত।

“অত্যাধিক চাপই তাকে খুঁজে বের করেছে” হাফিজ সইদের গ্রেফতারিতে মন্তব্য ট্রাম্পের

তবে পাকিস্তান-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বৈঠকের পর ডোনাল্ড ট্রাম্পের দাবির বিরোধিতা করে বিদেশমন্ত্রকের (foreign ministry) মুখপাত্র রবীশ কুমার একগুচ্ছ ট্যুইট করেন:

ইমরান খানের আগে ২০১৫ সালের অক্টোবরে পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ আমেরিকা আসেন। সেই সময়ের পর বর্তমান পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান (Imran Khan) এমন সময়ে এই মার্কিন সফর করছেন যখন আমেরিকা ও আফগান তালিবানদের মধ্যে আলোচনা একটি সমাধানের রাস্তায় হাঁটতে চলেছে। তালিবানদের সঙ্গে আমেরিকার এই শান্তি আলোচনার ক্ষেত্রে পাকিস্তানের মধ্যস্থতা সদর্থক রূপ নিয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে জামাত-উদ-দাওয়া প্রধান হাফিজ সঈদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদের মামলা দায়ের করে পাকিস্তান সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আমেরিকা ও ভারতের উদ্বেগ মোকাবিলার প্রচেষ্টা করেছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

সাতবার সন্ত্রাসবাদী হাফিজ সঈদকে গ্রেফতার করা আসলে ‘লোকদেখানো'; ট্রাম্প প্রশাসন

এর আগে, ইমরান খান (Imran Khan) তিনদিনের মার্কিন সফরে আমেরিকা পৌঁছন, কিন্তু বিমানবন্দরে তাঁকে স্বাগত জানানোর জন্যে ট্রাম্প প্রশাসনের তরফে কেউ উপস্থিত ছিলেন না বলে জানা গেছে। আসলে বর্তমানে বিরাট আর্থিক সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে হাঁটছে পাকিস্তান। আর তাই অর্থ বাঁচাতে বাণিজ্যিক বিমানে আমেরিকা আসেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, ফলে যেভাবে প্রত্যেক সরকারি সফরে আসা অতিথিদের অভ্যর্থনা জানানো হয় সেভাবে তাঁকে স্বাগত জানানো হয়নি আমেরিকার তরফে। জানা গেছে, সম্প্রতি অর্থ সঙ্কটের মোকাবিলায় ইমরান খান প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের গাড়িও বিক্রি করে দেন।

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com