বিরোধী দলের বৈঠকে এড়াতে চলেছেন মায়াবতী, অখিলেশ যাদব, অরবিন্দ কেজরিওয়াল

১৮টি বিরোধী দলকে চলতি সপ্তাহের গোড়ার দিকে আমন্ত্রণ জানায় কংগ্রেস, ভিডিও কনফারেন্সে বিকেল ৩টেয় বৈঠক হবে

বিরোধী দলের বৈঠকে এড়াতে চলেছেন মায়াবতী, অখিলেশ যাদব, অরবিন্দ কেজরিওয়াল

Coronavirus: সূত্রের খবর, বৈঠকের মূল আলোচ্য বিষয় হবে কেন্দ্রের পদক্ষেপ (ফাইল)

নয়াদিল্লি:

কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধির (Sonia Gandhi) ডাকা বিরোধী দলের বৈঠকে (Opposition Meet) গড়হাজির থাকতে চলেছেন বহুজন সমাজ পার্টির মায়াবতীর, সমাজবাদি পার্টি নেতা অখিলেশ যাদব, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী তথা আম আদমি পার্টি সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তিনদলেরই কংগ্রেসের সঙ্গে রাজনৈতিক সমস্যা রয়েছে। এনডিএ শরিকদের দাবি, গড়হাজির থাকার কথা জানানো দলগুলির বিজেপির প্রতি নরম মনোভাব রয়েছে। ১৮টি বিরোধী দলকে চলতি সপ্তাহের গোড়ার দিকে আমন্ত্রণ জানায় কংগ্রেস, ভিডিও কনফারেন্সে বিকেল ৩টেয় বৈঠক হবে। বৈঠকে আর্থিক প্যাকেজ থেকে শুরু করে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় সরকারের লড়াই নিয়ে আলোচনা হবে।

বৃহস্পতিবার দলীয় সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে, যাঁরা বৈঠকে যোগ দেবেন বলে মনে করা হচ্ছে, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে, ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন, ডিএমকের এমকে স্ট্যালিন, এনসিপির শরদ পাওয়ার এবং ইউপিএ এর অন্যান্য শরিকরা।

বোর্ড পরীক্ষার জন্য শিথিল করা হবে লকডাউনের নিষেধাজ্ঞা: অমিত শাহ

এর আগেই আমন্ত্রণ গ্রহণের কথা জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, এছাড়াও বামদলগুলিও তাদের তরফে আমন্ত্রণ গ্রহণের কথা জানিয়েছে। বিরোধী দলের বৈঠকে শিবসেনার এটাই প্রথম উপস্থিতি হতে চলেছে।

গত এপ্রিলে এই বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। তবে কয়েকটি দল বিশেষ করে, এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ার সেটি পিছিয়ে দেওয়ার পক্ষে ছিলেন, অবশেষে মেনে নেন, যে, নরেন্দ্র মোদি সরকার এবং করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় সরকারের পদক্ষেপ নিয়ে বিরোধীদের একত্রিত হওয়ার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।

সূত্রের খবর, কেন্দ্রের করোনা ভাইরাসের মোকাবিলায় প্রথম থেকে এখনও পর্যন্ত পদক্ষেপগুলি বৈঠকের মূল ফোকাস করা হবে, তারমধ্যে রয়েছে আর্থিক সাহায্যে ঘাটতির অভিযোগ, পরিযায়ীদের সমস্যা, এবং লকডাউনের ফলে দেশের মানুষের তৈরি হওয়া সমস্যা।

সাইক্লোন আম্ফানে বাংলা, ওড়িশায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা আকাশপথে দেখবেন প্রধানমন্ত্রী

তবে অনেকেই বৈঠকে যোগ দেওয়ার মতো রয়েছেন, এক বিরোধী নেতার কথায়, “আমরা আশা করি, এই বৈঠকে শুধুমাত্র পরিযায়ীদের বিষয়টি নিয়েই আলোচনা হবে না, বরং পুরোপুরি অব্যবস্থার অভিযোগ নিয়ে আলোচনা হবে এবং সরকার কতটা ব্যর্থ তা নিয়ে আলোচনা হবে, আগামী দিনে বিরোধীদের কী করণীয় তাও বৈঠকের আলোচ্য বিষয় হবে”।