বেধড়ক মারধরের পর ২৪ জনকে গায়ের জোরে বলানো হল 'গো মাতা কি জয়'!

একটি পশু মেলাতে রবিবার গবাদি পশু নিয়ে যাওয়ার সময় ২৪ জনের একটি দলকে গায়ের জোরে "গো মাতা কি জয়" বলানোর অভিযোগ উঠল।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

মধ্যপ্রদেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আক্রান্ত ২৪ জনের মধ্যে ৬ জন মুসলিমও আছেন


মহারাষ্ট্রের ( Maharashtra) একটি পশু মেলাতে রবিবার গবাদি পশু নিয়ে যাওয়ার সময় ২৪ জনের (24 men) একটি দলকে গায়ের জোরে "গো মাতা কি জয়" বলানোর অভিযোগ উঠল। খবর, এই লজ্জাজনক ঘটনার পেছনে হাত রয়েছে মধ্য প্রদেশের ( Madhya Pradesh) খন্ডওয়া জেলায় গো-রক্ষকের একটি দলের। মোবাইলে পুরো ঘটনার ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছাড়তেই শুরু হয় নিন্দার ঝড়। ভিজিওতে দেখা গেছে, দলের ১৫ জনের হাত দড়ি দিয়ে বাঁধা অবস্থায় রাস্তা দিয়ে হাঁটু মুড়ে বসিয়ে ওই অবস্থাতেই চলতে বাধ্য করা হয়। তখনও তাঁদের মুখে তখন শোনা যাচ্ছে "গো মাতা কি জয়" ("gau mata ki jai") ধ্বনি!

ভিডিওটিতে আরও দেখা গেছে, সাদা শার্টের একজন মানুষ মোবাইলে সবার মুখের ক্লোজআপ ছবি বা ভিডিও নিচ্ছে। যাতে বোঝায় যায়, সবাই গো মাতা কি জয় বলছেন কিনা। বাকি দু-জন কড়া নজর রাখছেন হাত-বাঁধা পুরুষদের ওপর।

সূত্রের খবর, ১০০ জনের এই গো-রক্ষক দলের অভিযোগ, সাভালিকেরা গ্রাম থেকে ২৪ জন পশুপাচারকারী ২০টি গবাদি পশু নিয়ে যাচ্ছিলেন পশু হাটে বিক্রির উদ্দেশ্যে। মাঝপথেই সবাই ধরা পড়ায় শাস্তি হিসেবে হাত বোঁধে তাঁদের হাঁটু মুড়ে নিয়ে হাঁটিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় তিন কিলোমিটার পর্যন্ত,  খালওয়া থানায়।

জেলা পুলিশ সুপারিনটেনডেন্ট শিবদয়াল সিংয়ের মতে, পশু সরবরাহকারীরা মালবাহী গাড়ি এবং গবাদি পশুর মালিকানার দাবি জানালেও তাঁরা সেই মালিকানা প্রমাণ করতে পারেননি।

তাঁর আরও যুক্তি, "২৪ জনের ওই দল কোনও বৈধ কাগজপত্রও দেখাতে পারেনি। ফলে, যানবাহন এবং গবাদি পশু গ্রেফতার করে মধ্যপ্রদেশ গোবংশ বধ প্রতিষেধ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী।" তবে এই ধরনের অত্যাচার চালানোর বিরুদ্ধেও কোনও পদক্ষেপ করেনি প্রশাসন। জেলা সুপারিটেন্ডের কথায়, তদন্ত শুরু হয়েছে। প্রসঙ্গত, ২৪ জনের এই দলের মানুষেরা এসেছেন মধ্যপ্রদেশের খন্দওয়া, সেহোর, দেওয়াস ও হার্দা জেলা থেকে। এঁদের মধ্যে ছ-জন মুসলমান।

মধ্যপ্রদেশের বিধানসভায় বর্ষাকালীন অধিবেশন শুরুর একদিন আগে এমন ঘটনা অস্বস্তিতে ফেলেছে রাজনৈতিক নেতাদের। ইতিমধ্যেই সেখানে গো-সংরক্ষণের জন্য একটি বিল চালু করার কথা চলছে। বিলটি পাস হলে গোরুপাচারকারীর ছয় মাস থেকে পাঁচ বছর পর্যন্ত জেল এবং ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা হবে।
তবে গরু সুরক্ষাকারীদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে কোনও শাস্তির বিধান নেই। 

d1o27sh

প্রসঙ্গত, গত মাসেই মধ্যপ্রদেশের একটি গ্রামে একটি অটোরিকশায় গরু নিয়ে যাওয়ার অপরাধে দুই ব্যক্তিকে গাছের সঙ্গে বেঁধে বেধড়ক মারধর করা হয়। এক প্রত্যক্ষ প্রত্যক্ষদর্শীর তোলা ভিডিওতে দেখা গেছে, একজন মহিলা একই অপরাধে অপরাধী হওয়ায় নিজের মুখ ঢেকে নিজের মাথায় জুতোর বাড়ি মাড়ছেন। যিনি এই শাস্তি দিচ্ছেন তাঁর মুখে তখন প্রবল হুঙ্কার "জয় শ্রী রাম"।



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................