ট্রাম্পের সৌজন্যে আয়োজিত রাইসিনা হিলের নৈশভোজে নেই মনমোহন সিং

মার্কিন প্রেসিডেন্টের আতিথেয়তায় রাষ্ট্রপতির দেওয়া নৈশভোজে নেই মনমোহন সিং। চারদিন আগে এই অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণ পেয়েছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী।

ট্রাম্পের সৌজন্যে আয়োজিত রাইসিনা হিলের নৈশভোজে নেই মনমোহন সিং

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এবং বিরোধী দলগুলোর বৈঠকের কোনও সূচি নেই। (ফাইল ছবি)

হাইলাইটস

  • মার্কিন প্রেসিডেন্টের সৌজন্যে রাষ্ট্রপতির দেওয়া নৈশভোজে নেই মনমোহন সিং
  • শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে অনুপস্থিতির কথা জানিয়েছেন তিনি
  • এই নৈশভোজ বয়কট করেছেন কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরী ও গুলাম নবি আজাদ
নয়া দিল্লি:

মার্কিন প্রেসিডেন্টের আতিথেয়তায় রাষ্ট্রপতির দেওয়া নৈশভোজে নেই মনমোহন সিং (Manmohan Singh)। চারদিন আগে এই অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণ পেয়েছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে সেই অনুষ্ঠানে থাকতে পারবেন না তিনি। রাইসিনা হিলকে এমনটাই জানিয়েছেন অশীতিপর এই রাজনীতিবিদ। তবে সূত্রের খবর, কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধিকে (Sonia Gandhi) আমন্ত্রণ জানানো হয়নি এই নৈশভোজে। সেই বিক্ষোভ থেকেই প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্ত। কংগ্রেস সূত্রে খবর বিদেশী রাষ্ট্রপ্রধানদের সফরে বিরোধী দলগুলোর সঙ্গে বৈঠক এদেশের ঐতিহ্য। কিন্তু মার্কিন প্রেসিডেন্টের (US President) সফরসূচিতে নেই সেই বৈঠক। এই অভিযোগে মঙ্গলবারের নৈশভোজ বয়কট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কংগ্রেস সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরী আর গুলাম নবি আজাদ। এই দুই সাংসদ, সংসদের উভয়কক্ষে কংগ্রেস সংসদীয় দলের নেতা। 

"প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভালো দরদাম করতে পারেন," অধরা বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে বললেন ট্রাম্প

এদিকে, মঙ্গলবার দ্বিপাক্ষিক স্তরে একাধিক চুক্তি স্বাক্ষরিত করতে পারেন দুই রাষ্ট্র নেতা। তবে সবার প্রথমে দিল্লির একটি সরকারি স্কুল পরিদর্শনে যাবেন মেলানিয়া ট্রাম্প। হেপিনেস ক্লাসের শিক্ষা নিতে মার্কিন ফার্স্ট লেডির এই সফর। যদিও এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত নয় দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এবং শিক্ষামন্ত্রী মনীশ সিসোদিয়া। এই নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে।

হাতে হাত রেখে তাজমহলে ট্রাম্প দম্পতি, জানালেন তাজ অনুপ্রেরণা দেয়

যদিও মার্কিন দূতাবাস সূত্রে খবর, অরাজনৈতিক এই সফর, তাই আমন্ত্রণ জানানো হয়নি কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বকে। তবে, সেই অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী ও উপ-মুখ্যমন্ত্রীর উপস্থিতি নিয়ে কোনও আপত্তি নেই মার্কিন দূতাবাসের। আমরা প্রশংসা করি ওদের বিবেচনাকে। এটা সম্পূর্ণ একটা অরাজনৈতিক সফর। শিক্ষার উন্নয়নে, স্কুল ও পড়ুয়াদের উন্নয়ন নিশ্চিত করাই ফার্স্ট লেডির এই সফরের লক্ষ্য। বিবৃতিতে জানিয়েছিল দূতাবাস।  

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com