ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর সুড়ঙ্গ খোঁড়ার কাজ খুব দ্রুত শুরু হবে: কেএমআরসি কর্তা

১৬.৬ কিমি দীর্ঘ  এই মেট্রো গঙ্গাপাড়ের দুটি শহরকে যুক্ত করবে। ইস্ট -ওয়েস্ট মেট্রোর মাধ্যমে যুক্ত হবে কলকাতা ও হাওড়া।

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর সুড়ঙ্গ খোঁড়ার কাজ খুব দ্রুত শুরু হবে: কেএমআরসি কর্তা

১৩ ফেব্রুয়ারি এই মেট্রোর একটা অংশ, সেক্টর-৫ থেকে যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন, খুলে দেওয়া হয়েছে। (ফাইল ছবি)

কলকাতা:

তৃতীয় দফার লকডাউনে (Amid Lockdown) রেড জোনে শুরু শর্তাধীনে শুরু করা যাবে নির্মাণ কাজ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে এই ইঙ্গিত পেয়েই ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর (East-west Metro) কাজে গতি আনতে তৎপর হল কেএমআরসি। শুক্রবার কেএমআরসি'র এক কর্তা  (KMRC) বলেছেন, "শহরের মধ্যে সুড়ঙ্গ খোঁড়ার কাজ খুব দ্রুত শুরু হবে। ইঞ্জিনিয়ার ও শ্রমিকদের কাজে ফেয়াতে উদ্যোগ নিয়েছে কলকাতা মেট্রো। ওরা কাজে ফিরলেই আমরা সুড়ঙ্গ খোঁড়ার কাজ শুরু করে দেব।"  ১৬.৬ কিমি দীর্ঘ  এই মেট্রো গঙ্গাপাড়ের দুটি শহরকে যুক্ত করবে। ইস্ট -ওয়েস্ট মেট্রোর মাধ্যমে যুক্ত হবে কলকাতা ও হাওড়া (Kolkata and Howrah)। বেশ তৎপরতার সঙ্গে এই কাজে গতি আসলেও, দেশব্যাপী লকডাউনের প্রভাবে থমকে গিয়েছে প্রকল্প। পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ওই রেলকর্তা বলেছেন, "আমরা নির্মাণ সামগ্রি মজুত রাখতে উদ্যোগ নিয়েছি। সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হলেই আমরা নির্মাণকাজে হাত দেব। স্বরাষ্ট্র  মন্ত্রকের গাইডলাইন মেনেই শুরু হবে কাজ।" 

পরিযায়ী শ্রমিকদের ভাড়া দিয়ে উঠতে হবে স্পেশাল ট্রেনে! মন্ত্রকের সিদ্ধান্তে আপত্তি বিরোধীদের

সম্প্রতি জারি করা গাইডলাইনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক উল্লেখ করেছে, "রেড জোনে নির্মাণ কাজ শুরু করা যাবে। কিন্তু বাইরে থেকে শ্রমিক আনা চলবে না। স্থানীয় শ্রমিক কাজে লাগাতে হবে।" যদিও কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের খাতায় হাওড়া, কলকাতা আর উত্তর ২৪ পরগনা, রেড জোন হিসেবে নাম লিখিয়েছে। আর ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো এই ৩-টি জোনকেই ছুঁয়ে যাবে। 

এদিকে, ১৩ ফেব্রুয়ারি এই মেট্রোর একটা অংশ, সেক্টর-৫ থেকে যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন, খুলে দেওয়া হয়েছে। প্রায় ৫-কিমি দীর্ঘ এই অংশের ন্যূনতম ভাড়া ৫ টাকা, সর্বাধিক ভাড়া ৮ টাকা। সকাল ৮ টা থেকে সন্ধ্যা ৮ টা পর্যন্ত চালু এই মেট্রো।   



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)