‘‘কাশ্মীর যারা লুঠ করেছে তাদের মেরে ফেলো’’: জঙ্গিদের উদ্দেশে রাজ্যপালের বিতর্কিত মন্তব্য

তিনি বলেন, জঙ্গিরা সাধারণ মানুষ বা নিরাপত্তা কর্মীদের না মেরে রাজ্যের সমস্ত সম্পদ যারা চুরি করছে, সেই দুর্নীতিগ্রস্ত রাজনীতিবিদদের মারুক

জম্মু ও কাশ্মীরের রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক বলেন, ‘‘ভারত সরকার বন্দুকের সামনে কখনও নত হবে না।’’

হাইলাইটস

  • বিতর্কে জড়ালেন জম্মু ও কাশ্মীরের রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক
  • জঙ্গিদের কাছে দুর্নীতিগ্রস্ত রাজনীতিবিদদের খুনের প্রস্তাব রাজ্যপালের
  • রাজ্যপালের এমন মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করেছেন ওমর আবদুল্লা
শ্রীনগর:

জঙ্গিদের (Terrorist) কাছে দুর্নীতিগ্রস্ত রাজনীতিবিদদের মেরে ফেলার প্রস্তাব দিয়ে প্রবল বিতর্কে জড়ালেন জম্মু ও কাশ্মীরের (Jammu and Kashmir) রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক (Satya Pal Malik)। রবিবার তিনি এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, জঙ্গিরা সাধারণ মানুষ বা নিরাপত্তা কর্মীদের না মেরে রাজ্যের সমস্ত সম্পদ যারা চুরি করছে, সেই দুর্নীতিগ্রস্ত রাজনীতিবিদদের মারুক। কার্গিলে একটি অনুষ্ঠানে তিনি এই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, ‘‘এই যে ছেলেরা যারা হাতে বন্দুক তুলে নিয়েছে তারা নিজেদের লোককেই মারছে। তারা কেবল পিএসও (ব্যক্তিগত নিরাপত্তা আধিকারিক) এবং এসপিও (বিশেষ পুলিশ আধিকারিক)-দের মারছে। তোমরা কেন ওঁদের মারছ? তাদের মারো যারা কাশ্মীরের সম্পদ চুরি করছে। তোমরা কি তাদের কাউকে মেরেছ?''

সত্যপাল অভিযোগ করেন, যে রাজনৈতিক পরিবারগুলি কাশ্মীর শাসন করেছে তারা জনতার টাকা চুরি করে সারা পৃথিবীর সম্পত্তি কিনে জড়ো করছে। এর পাশাপাশি তিনি বলেন, ‘‘ভারত সরকার বন্দুকের সামনে কখনও নত হবে না।''

সীমান্তে জলপথে বাড়ছে গরুপাচার, রুখতে পদক্ষেপ করল বিএসএফ

কাশ্মীরের রাজনৈতিক নেতাদের সম্পর্কে তাঁর বক্তব্য, এঁরা দুর্নীতিগ্রস্ত। এবং নির্বাচনের অস্বচ্ছতার জন্য প্রতিনিধিত্বমূলক চরিত্রের কেউ ক্ষমতায় আসতে পারে না।

তিনি আরও বলেন, তাঁর ক্ষমতা থাকলে তিনি এই দুর্নীতিগ্রস্তদের জেল‌ে ভরে রাখতেন। তিনি বলেন, ‘‘যে বড় পরিবারগুলি কাশ্মীরে রাজত্ব করেছে তাদের বিপুল সম্পত্তি। তাদের একটা বাড়ি শ্রীনগরে, একটা দিল্লিতে, দুবাইতে, লন্ডনে এবং আরও অন্য জায়গায়। বড় বড় হোটেলের শেয়ার হোল্ডার তারা।''

বেধড়ক মারধরের পর ২৪ জনকে গায়ের জোরে বলানো হল 'গো মাতা কি জয়'!

রাজ্যপালের এমন মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করেছেন জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্ত‌ন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা।

তিনি টুইট করে লেখেন, ‘‘এই মানুষটি, আপাতদৃষ্টিতে একজন দায়িত্ববান মানুষ যিনি সাংবিধানিক পদে আছেন, জঙ্গিদের বলছেন দুর্নীতিগ্রস্ত হয়ে পড়া রাজনীতিবিদদের মেরে ফেলতে। তাঁর উচিত ক্যাঙারু কোর্ট ও হত্যায় সম্মতি দেওয়ার আগে দিল্লিতে এই মুহূর্তে তাঁর কেমন ভাবমূর্তি সে ব্যাপারে খোঁজ নেওয়া।''

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com