‘‘শি জিনপিং জানিয়েছেন তিনি ‘দঙ্গল’ দেখেছেন’’: ববিতা ফোগতের প্রচারে প্রধানমন্ত্রী

কমনওয়েলথ গেমসে সোনাজয়ী কুস্তিগির ববিতা ফোগতের (Babita Phogat) জীবন অবলম্বনে তৈরি হয়েছিল ওই ছবি। ববিতা দাদরি বিধানসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচনে লড়বেন।

হরিয়ানায় নির্বাচনের প্রচারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

নয়াদিল্লি:

চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং ২০১৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘দঙ্গল' (Dangal) ছায়াছবিটি দেখেছেন। ২০১৯ সালের বিধানসভা নির্বাচনে হরিয়ানায় বিজেপি প্রার্থী ববিতা ফোগতের (Babita Phogat) হয়ে নির্বাচনের প্রচারে এসে এই কথা জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Modi)। কমনওয়েলথ গেমসে সোনাজয়ী কুস্তিগির ববিতা ফোগতের জীবন অবলম্বনে তৈরি হয়েছিল ওই ছবি। ২৯ বছরের ববিতা এই প্রথম রাজনীতিতে এসেছেন। দাদরি বিধানসভা কেন্দ্র থেকে তিনি নির্বাচনে লড়বেন। প্রধানমন্ত্রীর কথা শুনে তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘‘চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং-এর সঙ্গে আমার সাম্প্রতিক অনানুষ্ঠানিক বৈঠকের সময় তিনি আমাকে বলেন, তিনি ‘দঙ্গল' ছায়ছবিটি দেখেছেন, যে ছবিতে ভারতের মেয়েদের দারুণ পারফরম্যান্সের কাহিনি তুলে ধরা হয়েছিল। আমি হরিয়ানাক জন্য গর্ববোধ করেছিলাম এটা শুনে।''

সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে ববিতা ফোগত জানিয়েছেন, ‘‘প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে এমন কথা শুনে আপ্লুত। তিনি ‘দঙ্গল'-এর কথাও বললেন। আমি নিশ্চিত আমি এখান থেকে বড় ব্যবধানে জিতব।''

“গ্রামের মহিলাদের ক্ষমতায়নের জন্য কাজ করছে আমাদের সরকার”: মুখ্যমন্ত্রী মমতা

২০১৪ থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে কমনওয়েলথ গেমসে দু'বার সোনাজয়ী ববিতার পাশাপাশি রাজ্য থেকে ভোটে দাঁড়িয়েছেন আর এক কুস্তিগির যোগেশ্বর দত্ত। তিনিও বিজেপি প্রার্থী। রাজ্যে ক্রীড়া ও শরীর শিক্ষার উন্নতি প্রসঙ্গে এই দু'জনের কথাই তুলে ধরছে বিজেপি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‘আমাদের তরুণ কমরেডরা আরও বেশি করে খেলায় জড়িয়ে পড়ে এর মাধ্যমে সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যেতে অবদান রাখছে। এই কারণেই ‘বেটি' ববিতার মতো অনেকেই বিজেপিতে যোগ দিয়ে আপনাদের জন্য পূর্ণ উদ্যমে কাজ করতে চাইছেন।''

দায়িত্ব ছাড়বেন অমিত শাহ, ডিসেম্বরে বিজেপির নয়া সভাপতির পদে কে? বাড়ছে জল্পনা!

‘দঙ্গল' ছবির সাফল্যের পরই দেশের ঘরে ঘরে পরিচিত নাম হয়ে ওঠেন ববিতা ফোগত। ওই ছবিতে তিনি ছাড়াও তাঁর বাবা ও তাঁর বোন গীতার সংগ্রাম দেখানো হয়েছে। ছবিটি রিলিজের পরই সাফল্যের চূড়ায় পৌঁছে যায়।

ববিতা ফোগত জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার মতো সাহসী সিদ্ধান্ত থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে তিনি রাজনীতিতে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী হরিয়ানায় বিজেপির হয়ে প্রচারে এসে যে বক্তব্য রেখেছেন তাতে বেশি করে উঠে এসেছে মহিলা ও ক্রীড়াজগতের কথা। তিনি তাঁর প্রথম দফায় ক্ষমতায় এসে ‘বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও' প্রকল্পের সাফল্যের জন্য হরিয়ানার গ্রামগুলিকে কৃতিত্ব দেন।

গত ১১ ও ১২ অক্টোবর চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং-এর সঙ্গে দক্ষিণ ভারতের মন্দির শহর মামাল্লাপুরমে এক অনানুষ্ঠানিক বৈঠকে মিলিত হন।

(তথ্যসূত্র: পিটিআই, এএনআই)

দেখুন ভিডিও

More News