চুপিসাড়ে ভারতীয় জলসীমায় প্রবেশ করতে পারে পাক কম্যান্ডো, গুজরাটে জারি সতর্কতা

আদানী বন্দর ও SEZ-এর বিবৃতি অনুসারে, "Pakistan প্রশিক্ষিত কমান্ডোরা কচ্ছ উপসাগরে প্রবেশের চেষ্টা করছে"। গুজরাটের সমস্ত বন্দরগুলিতে high alert জারি ।

High Alert: গোয়েন্দারা সতর্ক করে জানিয়েছেন যে Pakistan প্রশিক্ষিত কমান্ডোরা গুজরাটের কচ্ছ উপসাগরে প্রবেশের চেষ্টা করছে।

নয়া দিল্লি:

পাক (Pakistan) হামলার আশঙ্কায় গুজরাটের বন্দরগুলিতে জারি করা হল হাই অ্যালার্ট। আধিকারিকদের মতে, গুজরাটে সাম্প্রদায়িক অশান্তি বা সন্ত্রাসবাদী হামলা করার জন্য সমুদ্রপথে কচ্ছ অঞ্চল দিয়ে পাকিস্তানি কমান্ডোরা ভারতীয় অঞ্চলগুলিতে প্রবেশের চেষ্টা করছে এই খবর আসার পরেই গুজরাটের (Gujarat) সমস্ত বন্দরগুলিতে ওই হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে । আদানী বন্দর এবং এসইজেডের এক বিবৃতি অনুসারে, "উপকূলরক্ষী স্টেশন থেকে এই সঙ্কেত পাওয়া গেছে যে পাকিস্তান প্রশিক্ষিত কমান্ডোরা (Pakistani commandos) হারামি নালা ক্রিক অঞ্চল দিয়ে গুজরাটের কচ্ছ উপসাগরে প্রবেশ করার চেষ্টা করছে এবং মনে করা হচ্ছে যেওই পাক বাহিনী জলের তলদেশ থেকে আক্রমণে বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত।"

তামিলনাডুতে ঢুকেছে ৬ Terrorist! খবর পেয়ে রাজ্যে জারি সতর্কতা

"অতএব সুরক্ষার সর্বাধিক ব্যবস্থা গ্রহণ এবং গুজরাট রাজ্যের যে কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি রোধ করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মুন্দ্রা বন্দরে সমস্ত জাহাজে চূড়ান্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এবং উচ্চ সতর্কতা বজায় রেখে কড়া নজরদারির পরামর্শ দেওয়া হয়েছে," আদনির বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

মধ্যপ্রদেশে Afghan Terrorists উপস্থিতির আশঙ্কা, জারি সতর্কতা

বন্দর কর্তৃপক্ষ যে বর্ধিত সুরক্ষা ব্যবস্থার জন্য অনুরোধ করেছে তার মধ্যে রয়েছে "সর্বোচ্চ প্রস্তুতি ও সজাগ থাকার কথাও"। পাশাপাশি ঝুঁকিপূর্ণ অঞ্চলগুলিতে অতিরিক্ত নিরাপত্তা কর্মী মোতায়েন করারও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি উপকূলের কাছাকাছি কোনও সন্দেহজনক ব্যক্তি বা নৌকার সন্ধান মিললেই তৎক্ষণাৎ সতর্কতা অবল্মবন করতে হবে বলে জানানো হয়েছে। উপকূল অঞ্চল বরাবর টহলদারি বাড়ানোর নির্দেশ দেওয়ার পাশাপাশি নিকটবর্তী অফিসে বা বাড়িতেও সতর্কতা অবলম্বনের কথা বলা হয়েছে। তল্লাশি চালানো হচ্ছে সেখানকার বিভিন্ন গাড়িতেও। সব মিলিয়ে কড়া নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে গুজরাটকে।

৩৭০ অনুচ্ছেদের আওতায় থাকা জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা সমাপ্ত করার বিষয়ে মোদি সরকার সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর থেকেই ক্রমশই উত্তপ্ত হয়েছে ভারত-পাক সম্পর্ক। গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই পাকিস্তানের পক্ষ থেকে জঙ্গিবাদী বক্তব্য সহ উত্তেজনার পটভূমিতেই এই সতর্ক বার্তা জারি করা হল। 

সোমবার নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল করমবীর সিং গোয়েন্দা সতর্কবার্তা তুলে ধরে দাবি করেন যে পাকিস্তান ভিত্তিক সন্ত্রাসবাদী দল জইশ-ই-মহম্মদ জলের তলায় হামলার জন্য সদস্যদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। অ্যাডমিরাল করমবীর সিং বলেন "আমরা গোয়েন্দাদের কাছ থেকে তথ্য পেয়েছি যে জইশ-ই-মহম্মদের আন্ডার ওয়াটার শাখা হামলার প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। আমরা এই বিষয়ে কড়া নজর রাখছি এবং আশ্বাস দিতে পারি যে আমরা এ জাতীয় যে কোনও পরিকল্পনা বানচাল করার জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত রয়েছি,"।

গত বছরই এনডিটিভি ভারতীয় নৌবাহিনীকে গোয়েন্দা সূত্রে পাওয়া খবর থেকে সতর্কবার্তা দেয় যে, জইশ জঙ্গিরা গভীর সমুদ্রের ডুবুরিদের নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজে আক্রমণ করার জন্য ব্যবহার করতে পারে। সতর্কতাটিতে এই ইঙ্গিতও দেওয়া হয়েছিল যে একদল সন্ত্রাসবাদী পাকিস্তানের বাহাওয়ালপুরে গভীর সমুদ্র থেকে আক্রমণ করা সংক্রান্ত নানা কৌশল সম্পর্কে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে এবং ভবিষ্যতে ভারতীয় নৌবাহিনীকে লক্ষ্য করে আঘাত হানার পরিকল্পনাও করতে পারে।