This Article is From Feb 29, 2020

খুলেছে কিছু দোকান, এখনও বড় জমায়েত নিষিদ্ধ দিল্লির উপদ্রুত অঞ্চলগুলিতে

উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে শুরু হওয়া হিংসা (Delhi Clashes) এখন খানিক স্তিমিত। তবে এখনও সেখানে বড় জমায়েতের উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে।

Delhi violence: এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৪২।

নয়াদিল্লি: বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে (CAA) কেন্দ্র করে কয়েক দিন আগে উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে শুরু হওয়া হিংসা (Delhi Clashes) এখন খানিক স্তিমিত। শনিবার অপেক্ষাকৃত ভাবে শান্তি ফিরেছে সেখানে। সূত্রানুসারে জেনেছে NDTV। তবে এখনও সেখানে বড় জমায়েতের উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। এখনও পর্যন্ত হিংসায় মৃতের সংখ্যা ৪২। আহত হয়েছেন শয়ে শয়ে মানুষ। ৫০০-র বেশি মানুষকে আটক করার কথা জানিয়েছে পুলিশ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছেন, উত্ত-পূর্ব দিল্লির পুরসভা রাস্তা ও অন্যত্র ভাঙচুরের ফলে সৃষ্ট ধ্বংসাবশেষ প্রায় সরিয়ে ফেলেছে।

জেনে নিন এবিষয়ে ১০টি তথ্য::

  1. কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, উত্তর-পূর্ব দিল্লির প্রায় সর্বত্রই যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। কাজে যাওয়া শুরু করেছে সাধারণ মানুষ। কিছু কিছু দোকান খুলেছে। যদিও এখনও পেট্রোল বোমার বিস্ফোরণ ও ভাঙচুরের চিহ্ন রয়ে গিয়েছে চারপাশে। 

  2. নীল রঙের উর্দি পরিহিত র‍্যাফ মোতায়েন রয়েছে বহু জায়গায়। রয়েছে পুলিশ ও কেন্দ্রীয় আধা সেনা। 

  3. উপদ্রুত অঞ্চলে ক্রেন ও বুলডোজারের সাহায্যে রাস্তা জুড়ে পড়ে থাকা পোড়া গাড়ি ও পথের ধ্বংসাবশেষ সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজ করা হচ্ছে। হিংসায় অন্যতম ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা হল  শিব বিহার। 

  4. তবে সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলি এখন একেবারে নির্জন। কেননা অধিকাংশ বাসিন্দাই এলাকা ছেড়ে চলে গিয়েছেন। কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছেন, ওই সব এলাকায় স্বাভাবিকতা ফিরতে কিছু দিন সময় লাগবে। 

  5. হিংসা ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই নাগাড়ে ফোন পেয়েছে দিল্লি পুলিশ। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি এসেছে মঙ্গলবার। সেদিন ৭,৫০০টি ফোন এসেছিল। 

  6. স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে সকলকে গুজবে কান না দিতে ও দুষ্কৃতীদের পাতা ফাঁদে পা না দিতে আর্জি জানানো হয়েছে। 

  7. আইপিএস আধিকারিক এসএন শ্রীবাস্তবকে অমূল্য পট্টনায়েকের পরিবর্তে দিল্লির পুলিশ কমিশনার হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত তাঁকে ওই দায়িত্বে রাখা হয়েছে। 

  8. বহু মানুষ অভিযোগ জানান, সিএএ সমর্থকদের সঙ্গে সিএএ বিরোধীদের সংঘর্ষ শুরু হলে সময় ন্যূনতম পুলিশি ব্যবস্থা চোখে পড়েনি। এমনকী, হিংসা শুরুর একদিন পরেও উত্তর-পূর্ব দিল্লির বহু স্থানেই অল্প সংখ্যক মোতায়েন পুলিশ মোতায়েন ছিল। 

  9. দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে, তারা সাম্প্রদায়িক ঐক্য বাড়াতে শান্তি বৈঠক করেছে। গঠন করা হয়েছে শান্তি কমিটি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছে এখনও পর্যন্ত ৩৩০টি বৈঠক হয়েছে। 

  10. দিল্লি পুলিশ হেল্পলাইনের নম্বর হিসেবে দু'টি নম্বর দিয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছে, যে কোনও সময় এই নম্বরগুলিতে ফোন করা যাবে সাহায্যের জন্য। নম্বর দু'টি হল— ২২৮২৯৩৩৪ ও ২২৮২৯৩৩৫।