Coronavirus: গরম পড়লেই কমবে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ, কেন বলা হচ্ছে এমন?

Coronavirus Update: এখন পর্যন্ত চিনে ২,৪০০ জনেরও বেশি মানুষ মারা গিয়েছেন। বহু দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাস।

Coronavirus: গরম পড়লেই কমবে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ, কেন বলা হচ্ছে এমন?

Coronavirus: বলা হচ্ছে নাকি গরম পড়লে কমবে এই ভাইরাসের দাপট।

হাইলাইটস

  • সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের দাপট গরম পড়লে কমবে
  • মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও এমনই আশা ব্যক্ত করেছেন
  • এখনও পর্যন্ত এই অসুখে চিনে ২,৪০০ জনেরও বেশি মানুষ মারা গিয়েছেন

করোনা ভাইরাস (Coronavirus) নিয়ে বিশ্বজোড়া আতঙ্কের মধ্যে এই ভয়ঙ্কর ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচার উপায় খুঁজছেন সারা পৃথিবীর মানুষ। তবে বহু রাজনীতিবিদ, চিকিৎসক ও গবেষকদের আশা, গরম বাড়লে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ কমবে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump) এই মাসের গোড়ায় বলেছিলেন, করোনা ভাইরাসের প্রকোপ এপ্রিলে কমে যাবে। তিনি এর পিছনে যুক্তি দিয়েছিলেন যে গ্রীষ্মে এই জাতীয় ভাইরাস মারা যায়। ট্রাম্প একমাত্র নেতা নন যিনি এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। ব্রিটেনের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানককও বলেছেন যে গ্রীষ্মে ভাইরাসের প্রকোপ কমবে।

ফর্টিস হাসপাতালের পালমনোলজি অ্যান্ড স্লিপ ডিসঅর্ডার বিভাগের নির্দেশক বিকাশ মৌর্যর মতে, করোনা ভাইরাস এক বন্য জন্তুর থেকে সংক্রামিত হয়েছে। এই ভাইরাস শীতকালেই জন্মায় ও নিঃশ্বাসের মাধ্যমে শরীরে প্রবেশ করে। তিনি বলেন, ‘‘আমাদের এক বছরে অন্তত দু'বার ভাইরাল সংক্রমণ হয়। পার্থক্য হল, করোনা ভাইরাসের স্ট্রেন একটি প্রতিরোধী স্ট্রেন। আশা করি গরম পড়লে সেই স্ট্রেন কমে যাবে।''

করোনা ভাইরাসের কবলে পড়ে এখন পর্যন্ত চিনে ২,৪০০ জনেরও বেশি মানুষ মারা গিয়েছেন। বহু দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাস। এই কারণে অনেক আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সূচিও বাতিল করা হয়েছে। পর্যটন ক্ষেত্রেও এর খারাপ প্রভাব পড়েছে। এছাড়াও নিষেধাজ্ঞার কারণে চিন অর্থনীতি ও অন্যান্য খাতেও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।