This Article is From Apr 06, 2020

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে ভারতকে ২.৯ মিলিয়ন ডলার অনুদান ইউএস-এর

ভারতকে সংক্রমণ প্রতিরোধে সহযোগিতা করতে এগিয়ে এল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ২.৯ মিলিয়ন ডলার আর্থিক অনুদানের ঘোষণা সোমবার করল ওয়াশিংটন।

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে ভারতকে ২.৯ মিলিয়ন ডলার অনুদান ইউএস-এর

ভারতকে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সহযোগিতা করতে এই অনুদান। অম্বার জানান মার্কিন রাষ্ট্রদূত।

নয়া দিল্লি:

ভারতকে সংক্রমণ প্রতিরোধে সহযোগিতা করতে এগিয়ে এল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (United States)। ২.৯ মিলিয়ন ডলার আর্থিক অনুদানের ঘোষণা সোমবার করল ওয়াশিংটন। ইউএস-এর সরকারি অনুদান সংস্থা ইউসেইডের মাধ্যমে এই অনুদান তুলে দেওয়া হবে ভারত সরকারকে । ভারতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত কেনেথ জাস্টার সোমবার এই দাবি করেছেন। তিনি বলেছেন, "করোনা সংক্রমণ (Corona) প্রতিরোধে ভারতের হাত আরও শক্ত করতে এই আর্থিক সাহায্য।" জানা গিয়েছে, গত সপ্তাহে এক টেলিফোনিক কথোপকথনে জোটবদ্ধ হয়ে লড়াইয়ের অঙ্গীকার নিয়েছিলেন ইন্দো আর ইউএস-এর রাষ্ট্রপ্রধানরা। সেই সমঝোতার অংশ, এই আর্থিক অনুদান বলে সূত্রের খবর। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক সূত্রে খবর, মার্কিন সংস্থা ইউসেইডের পাশাপাশি সিডিসিও, ভারতের সঙ্গে সমন্বয় রেখে করোনা মোকাবিলায় কাজ করছে। 

"স্বাধীনতার পর থেকে সবচেয়ে বড় জরুরি অবস্থা", করোনা পরিস্থিতি বিষয়ে প্রাক্তন আরবিআই গভর্নর রঘুরাম রাজন

এদিন মার্কিন দূতাবাস একটি বিবৃতি জারি করেছে। সেই বিবৃতিতে উল্লেখ," গত ২০ বছর ধরে বিভিন্ন খাতে পরিকাঠামো উন্নয়নের স্বার্থে ভারতকে অনুদান দিয়ে আসছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। স্বাস্থ্য খাতে ১.৪ বিলিয়ন ডলার আর মোট পরিকাঠামো উন্নয়ন খাতে ৩ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দ করে ওয়াশিংটন। এই অনুদানের পাশাপাশি ইউসেইডের সাম্প্রতিক বরাদ্দ স্বাস্থ্য পরিকাঠামো উন্নয়নে বাড়তি অর্থ জোগাবে।" পাশাপাশি ভারতের স্বাস্থ্যকাঠামো উন্নয়নের হু-এর গৃহীত উদ্যোগকে সমর্থন করবে এই অনুদান। সোমবার জারি বিবৃতিতে জানিয়েছে মার্কিন দুতাবাস। জানা গিয়েছে, সংক্রমণ প্রতিরোধ, সংক্রমিতদের পর্যাপ্ত চিকিৎসা ব্যবস্থা আর আঁতুড়ঘর চিহ্নিত করে সংক্রমণ প্রতিরোধ করার মতো কাজে এই অর্থ ব্যবহার করতে পারবে নয়া দিল্লি।