ইডেনে কোয়ারান্টাইন সেন্টার গড়তে কলকাতা পুলিশকে অনুমতি দিল সিএবি

Eden Gardens: আপাতত ই, এফ, জি এবং এইচ ব্লকের গ্যালারিগুলোর নিচের অংশই কোয়ারান্টাইন সেন্টার হিসাবে ব্যবহৃত হবে, প্রয়োজনে ব্যবহার করা যাবে জে ব্লকটিও

ইডেনে কোয়ারান্টাইন সেন্টার গড়তে কলকাতা পুলিশকে অনুমতি দিল সিএবি

Coronavirus: ইডেন গার্ডেন্সের গ্যালারির নিচেই তৈরি হচ্ছে কলকাতা পুলিশরে কোয়ারান্টাইন সেন্টার

হাইলাইটস

  • এবার কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সেও গড়ে উঠছে কোয়ারান্টাইন সেন্টার
  • শুধুমাত্র কলকাতা পুলিশের করোনা আক্রান্ত কর্মীদের জন্যেই ওই ব্যবস্থা
  • সিএবি সভাপতি বলেন, এই সঙ্কটে সরকার ও পুলিশের পাশে দাঁড়ানো আমাদের কর্তব্য
কলকাতা:

করোনা (Coronavirus) পরিস্থিতিতে শহরের (Kolkata) বিখ্যাত ইডেন গার্ডেন্সেও (Eden Garden) এবার কোয়ারান্টাইন সেন্টার গড়ে তোলার জন্যে কলকাতা পুলিশকে (Kolkata Police) অনুমতি দিল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গল (CAB)। সিএবির তরফ থেকে জানানো হয়েছে ক্রিকেট ময়দানের কয়েকটি গ্যালারির নিচের এলাকাকে আপাতভাবে কলকাতা পুলিশ কর্মীদের কোয়ারান্টাইন সেন্টার হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। শুক্রবার কলকাতা পুলিশের সদর দফতরে সিএবির ঊর্ধ্বতন কর্তাদের সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠক শেষে ইডেন গার্ডেন্স পরিদর্শনেও যান পুলিশ কর্তারা। ইডেন পরিদর্শনের সময় তাঁদের সঙ্গে ছিলেন সিএবির সভাপতি অভিষেক ডালমিয়া এবং সম্মানীয় সম্পাদক স্নেহাশিস গঙ্গোপাধ্যায়। ইডেন পরিদর্শনের পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে আপাতত ই, এফ, জি এবং এইচ ব্লকের গ্যালারিগুলোর নিচের অংশই কোয়ারান্টাইন সেন্টার হিসাবে ব্যবহৃত হবে। যদি আরও জায়গার প্রয়োজন হয়, তবে জে ব্লকটিও ব্যবহার করা যেতে পারে। একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে এই এলাকাগুলোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা একেবারে আলাদা করা হবে।

পশ্চিমবঙ্গেও দ্রুত বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ১,১৯৮ জন

যেহেতু সিএবির প্রশাসনিক কাজ মূলত ক্লাব হাউসেই হয়, তাই ক্লাব হাউস সংলগ্ন ব্লকগুলো (বি, সি, ডি, কে এবং এল) কোয়ারান্টাইন সেন্টারের জন্য ব্যবহার করা হবে না, ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের তরফে ওই বিবৃতিতেই জানানো হয় একথাও।

কোভিড চিকিৎসার জন্যে সোরিয়াসিস ইনজেকশন ব্যবহারের অনুমতি মিলল

এবিষয়ে সিএবি সভাপতি অভিষেক ডালমিয়া বলেন, "এই সঙ্কটের সময় সরকার ও পুলিশের পাশে দাঁড়ানোই আমাদের কর্তব্য। শুধুমাত্র যেসমস্ত পুলিশ কর্মী করোনায় আক্রান্ত, তাঁদের জন্যই এখানে কোয়ারান্টাইন সেন্টারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ইডেনের চারটি গ্যালারির নিচে হবে ওই কোয়রান্টাইন সেন্টার। আপাতত ই, এফ, জি, এইচ খুলে দেওয়া হচ্ছে কোয়ারান্টাইন সেন্টারের জন্য। কলকাতা পুলিশের প্রয়োজনে জে ব্লকও দেওয়া হবে। কিন্তু এই ব্লকগুলোর সঙ্গে আমাদের প্রশাসনিক ভবনের কোনও যোগাযোগ থাকবে না। কলকাতা পুলিশের সঙ্গে আলোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, অফিস ও সংলগ্ন গ্যালারির সঙ্গে যেন কোনও রকম যোগাযোগ না থাকে এই কোয়ারান্টাইন সেন্টারের।"

জানা গেছে, এই কোয়ারান্টাইন সেন্টার থাকাকালীন ইডেন গার্ডেন্সের গ্রাউন্ডসম্যান এবং অন্যান্য কর্মীদের স্টেডিয়ামের ভিতরে বি, সি, কে এবং এল ব্লকের ছাত্রাবাস ও অন্যান্য নিরাপদ স্থানে থাকার ব্যবস্থা করা হবে।