করোনায় মৃত দিল্লির কনস্টেবল, এক হাসপাতালের বিরুদ্ধে অভিযোগ ভর্তি না নেওয়ার

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়া‌ল অমিতের মৃত্যের পর টুইট করে শ্রদ্ধা প্রকাশ করেছেন। তাঁর পরিবারকে ১ কোটি টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন তিনি।

করোনায় মৃত দিল্লির কনস্টেবল, এক হাসপাতালের বিরুদ্ধে অভিযোগ ভর্তি না নেওয়ার

দিল্লিতে এপর্যন্ত ৭০-এর বেশি পুলিশকর্মীর শরীরে করোনা সংক্রমণ মিলেছে।

নয়াদিল্লি:

করোনা (Coronavirus) আক্রান্ত হয়ে ৩১ বছরের এক দিল্লি পুলিশের কনস্টেবলের (Delhi Police Constable) মৃত্যু হয়েছে গত মঙ্গলবার। এই প্রথমবার দিল্লিতে কোনও পুলিশকর্মীর মৃত্যু হয়েছে করোনা সংক্রমণের ফলে। অভিযোগ, একটি হাসপাতাল তাঁকে ফিরিয়ে দেয়। পরে আরও একটি হাসপাতালে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে চিকিৎসা করে ছেড়ে দেওয়া হয় তাঁকে। পরে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয় এবং তিনি প্রয়াত হন। কোভিড-১৯-এর লক্ষণ থাকা সত্ত্বেও কেন তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। সোমবার থেকে অমিত রানা নামের ওই পুলিশকর্মীর শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। সঙ্গে জ্বর। কিন্তু মঙ্গলবার ভোরে দিল্লির অশোক বিহারের এক করোনা ভাইরাস চিকিৎসা কেন্দ্র তাঁকে চিকিৎসা দিতে অস্বীকার করে। শেষ পর্যন্ত তাঁকে রাম মনোহর লোহিয়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু হাসপাতালে যাওয়ার পথেই তাঁর মৃত্যু হয়।

আমেরিকায় করোনা নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ গবেষণারত চিনা গবেষকের হত্যা! ঘনাচ্ছে রহস্য

একটি অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে। সেটি সত্যি কিনা তা পরীক্ষা করা হয়নি। সেই ক্লিপে এক ব্যক্তিকে অমিত রানার দুঃখজনক পরিণতি নিয়ে মুখ খুলতে দেখা গিয়েছে। জানা যাচ্ছে, সোমবার বিকেলে সামান্য জ্বর ছিল অমিতের। তিনি অল্প ওষুধ খেয়ে বিছানায় শুয়ে পড়েন।

মঙ্গলবার অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে ভোরেই অশোক বিহারের করোনা চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বলা হয়, তাঁর করোনা পরীক্ষা এখানে করা যাবে। কিন্তু তাঁকে ভর্তি নেওয়া যাবে না।

২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ৩,৫৬১ জন, দেশ জুড়ে মোট আক্রান্ত ৫২,৯০০, মৃত ১,৭৮৩

কিন্তু তিনি পরীক্ষা করাননি। তাঁকে সেখান থেকে বাবাসাহেব আম্বেদকর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেও তাঁকে ভর্তি নিতে অস্বীকার করা হয়।

শেষমেশ এক সিনিয়র আধিকারিকের ফোনের দৌলতে তাঁকে দীপচাঁদ বন্ধু সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা করা হয়। কিন্তু তারপরই তাঁকে ছেড়ে দিয়ে কোভিড-১৯ পরীক্ষা করিয়ে নিতে বলা হয়।

এরপর অশোক বিহারে ফিরে আসেন তিনি। সেখানে তাঁর করোনা পরীক্ষা করানো হয়। এরপর তাঁকে আইসোলেশনে যেতে বলা হয়। কিন্তু বাড়ি ফেরার পর তাঁর অবস্থার ক্রমাবনতি হওয়ার পরে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু তার আগেই তাঁর মৃত্যু হয়।

বুধবার অমিতের করোনা পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ এসেছে। তাঁর বন্ধুদের আইসোলেশনে যেতে বলা হয়েছে।

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়া‌ল অমিতের মৃত্যের পর টুইট করে শ্রদ্ধা প্রকাশ করেছেন। তাঁর পরিবারকে ১ কোটি টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন তিনি।