This Article is From Mar 29, 2020

এখনও সজাগ নয় জনতা, করোনা হেলমেট মাথায় তাই পথে নামল পুলিশ

মাথায় করোনা হেলমেট (corona helmet) পরে লকডাউনে পথে নামলেন পুলিশ অফিসার। আশা, তাতে যদি চৈতন্য ফেরে জনসাধারণের।

করোনা সচেতনতায় অভিনব উপায়

চেন্নাই:

সংক্রমণের (COVID-19) সংখ্যা বাড়ছে হু হু করে। বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। তবু যেন যেন ঘুমোচ্ছে জনগণ। দেশ এবং দেশবাসীকে সজাগ করতে তাই এবার আরও অভিনয় উপায় খুঁজে বের করল চেন্নাই (Chennai) প্রশাসন। মাথায় করোনা হেলমেট (corona helmet) পরে লকডাউনে পথে নামলেন পুলিশ অফিসার। আশা, তাতে যদি চৈতন্য ফেরে জনসাধারণের। তাঁকে এই ধরনের হেলমেট বানিয়ে দিয়েছেন স্থানীয় এক শিল্পী।

উত্তরপ্রদেশ ও বিহারের অভিবাসী শ্রমিকদের কোয়ারান্টাইনে থাকার নির্দেশ

চেন্নাই প্রশাসনের উচ্চপদস্থ এই অফিসার গৌতমের ক্ষোভ, বিশ্বে ক্রমশ বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। এর থেকে বাদ নেই ভারত-ও। তারপরেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পথে নামছেন অনেকেই। কাউকে কিছুতেই বোঝানো যাচ্ছে না। ফলে, বাধ্য হয়ে তিনি এই ভাবে পথে নেমেছেন। এভাবেই তিনি ২৪ ঘণ্টা ঘুরে চলেছেন স্থানীয় অঞ্চলে। সাধারণের মনে চেতনার আলো ছড়াতে।

কীভাবে এই উপায় মাথায় এল তাঁর? গৌতমের সহাস্য জবাব, "একটি ভাঙা হেলমেট আর কিছু কাগজ। এই দিয়ে শিল্পী আমায় বানিয়ে দিয়েছেন বিশেষ হেলমেট। শুধু এটি নয়, বাকি সহকর্মীদের জন্য অনেকগুলি প্ল্যাকার্ডও বানিয়েছি। তুলে দিয়েছি তাঁদের হাতে। এবার যদি হুঁশ ফেরে সবার!" পাশাপাশি আরেক পুলিশ অফিসার রাজেশ বাবুর দাবি, তিনি গিয়ার পরে পথে নেমে জনগণের থেকে ইতিবাচক সাড়া পেয়েছেন। জনগণ সচেতন হচ্ছেন গৌতমকে দেখেও।

খোশমেজাজে 'রামায়ণ'-এ ডুবে মন্ত্রীমশাই, সোশ্যালে ভাইরাল হতেই ডিলিট ছবি!

তিনি আরও বলেন, "আমরা সমস্ত পদক্ষেপ নেওয়ার পরেও মানুষ পথে নামছেন অকারণে। ফলে, এই অভিনব পন্থায় হাঁটতে বাধ্য হয়েছি। এতে শিশুরা, যাত্রীরা বেশ ভয় পাচ্ছেন। দেখলেই রাস্তা ছেড়ে বাড়িতে ঢুকে পড়ছেন। এটাই আমাদের কাছে আশার আলো।"