"আমাদের চুপ করাতে পারবে না": প্রতিবাদে মুখর নাসিরুদ্দিন সহ অভিযুক্ত তারকারা

উৎসবের আবহেই গত ৩ অক্টোবর দেশ জুড়ে ১৮০ জন তারকার বিরুদ্ধে এফআইআর জারি করেছে প্রশাসন। তালিকায় রয়েছেন নাসিরুদ্দিন শাহ (Naseeruddin Shah), ঐতিহাসিক রোমিলা থাপার (Romila Thapar)।

একাধিক কারণে তারকাদের দিকে অভিযোগের আঙুল ওঠে

মুম্বই:

উৎসবের আবহেই গত ৩ অক্টোবর দেশ জুড়ে ১৮০ জন তারকার বিরুদ্ধে এফআইআর জারি করেছে প্রশাসন। প্রশাসনের দাবি, নাসিরুদ্দিন শাহ (Naseeruddin Shah), ঐতিহাসিক রোমিলা থাপার (Romila Thapar) সহ বিদগ্ধ জনেরা দেশে অসহিষ্ণুতার বাতাবরণ তৈরি করছেন। রাষ্ট্রোদ্রোহিতায় সামিল তাঁরা। তাই দেশের স্বার্থে তাঁদের বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ। প্রসঙ্গত, মাস তিনেক আগে প্রধানমন্ত্রীকে (Narendra Modi) দেশের পরধর্ম অসহিষ্ণুতা এবং জয় শ্রীরাম ধ্বনি নিয়ে খোলা চিঠি লিখেছিলেন অপর্ণা সেন, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় সহ ৪৯ জন বুদ্ধিজীবী। তখনই তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়। এবার সেই নিয়ে সরব হলেন দেশের বাকি বুদ্ধিজীবীরা। সোমবার এক চিঠিতে নাসিরুদ্দিন বলেন, কেউ, কোনোদিন বুদ্ধিজীবীদের মুখ বন্ধ করতে পারবে না। 

Lynching শব্দটি "পশ্চিমের দেশগুলি থেকে এসেছে": আরএসএস প্রধান

সোমবার প্রকাশিত ওই চিঠিতে স্বাক্ষরকারীরা প্রশাসনের কাছে জানতে চান, কীভাবে প্রধানমন্ত্রীকে লেখা খোলা চিঠি রাষ্ট্রদ্রোহিতা হতে পারে! তাঁদের আরও বক্তব্য, "আমাদের দেশের ৪৯ জন বিশিষ্ট নাগরিকের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে কারণ তাঁরা দেশবাসীদের নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। বিষয়টি নজরে আনার চেষ্টা করেছেন প্রধানমন্ত্রীর। এই কি তাঁদের দোষ? যদিও এভাবে কণ্ঠরোধ সম্ভব নয়। " 

প্রবীণ অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহের পাশাপাশি লেখক অশোক বাজপেয়ী এবং জেরি পিন্টো, শিক্ষাবিদ ইরা ভাস্কর, কবি জিত থাইল, লেখক শামসুল ইসলাম, সঙ্গীতশিল্পী টি এম কৃষ্ণ এবং চলচ্চিত্র নির্মাতা সাবা দেওয়ান সহ ১৮০ জন এই নতুন চিঠিতে স্বাক্ষর করেন। 

"প্রতিরোধের জন্যে, আক্রমণের জন্য নয়", রাফাল পেয়ে বললেন রাজনাথ সিং

নাসির আরও বলেন, "স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে আমরা সবাই ই পদক্ষেপের নিন্দা করছি। আমরা মনে করি, এঁরা যা বলেছেন একদম ঠিকই বলেছেন। যেকোনও সমাজসচেতনমনস্কই ক্রমাগত ঘটে চলা অন্যায়ের প্রতিবাদ জানাতে পারেন। প্রযোজনে আমরা এককাট্টা হয়ে লড়ব। এবম এই আন্দোলন গণ আন্দোলনে পরিণত করব।আরও বিশিষ্টজনেরা আগ্রহ প্রকাশ করেছেন চিঠিতে সই করার জন্য। প্রশাসন পিছু না হটলে বিচার চেয়ে আমরা আদালতের দ্বারস্থ হব।" 

উল্লেখ্য, রাষ্ট্রদ্রোহিতা, জনগণের ওপর উপদ্রব ও শান্তি বিঘ্নিত করার চেষ্টা, দেশবাসীকে প্ররোচিত করতে  বিশেষ ধর্মীয় অনুভূতির ব্যবহার সহ একাধিক বিষয়ে ভারতীয় দণ্ডবিধির বেশ কয়েকটি ধারায় ৩ অক্টোবর এফআইআর দায়ের করা হয়েছিল চলচ্চিত্র নির্মাতা মণি রত্নম, অনুরাগ কাশ্যপ, শ্যাম বেনেগাল, অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং কণ্ঠশিল্পী শুভা মুদগাল সহ ৪৯ ব্যক্তিত্বের বিরুদ্ধে। তাদের বিরুদ্ধে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করার অভিযোগও আনে প্রশাসন।

১১-১২ অক্টোবর চেন্নাইয়ে দ্বিতীয় বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী মোদির মুখোমুখি হবেন শি জিনপিং

যদিও বিহার প্রশাসনের মতে, বিষয়টি ততটাও উদ্বেগজনক নয়। চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদেশে এফআইআর জারি হয়েছিল। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।

More News