'মোমবাতি জ্বালানোর আগে স্যানিটাইজার নয়', মোদির নয়া ফরমান

প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে বিশেষ ঘোষণা, 'মোমবাতি জ্বালানোর আগে দয়া করে কেউ স্যানিটাইজারে (Sanitizer) হাত পরিষ্কার করবেন না! 

'মোমবাতি জ্বালানোর আগে স্যানিটাইজার নয়', মোদির নয়া ফরমান

মোমবাতি জ্বালানোর আগে স্যানিটাইজার ব্যবহারে নিষেধ মোদির

হাইলাইটস

  • ৫ এপ্রিল রাত ৯টায় আলো বন্ধ করে মোমবাতি জ্বালানোর নির্দেশ
  • মোমবাতি জ্বালানোর আগে স্যানিটাইজার ব্যবহার নিষেধ
  • কেন্দ্রের পক্ষ থেকে নয়া ফর্মান
নয়া দিল্লি:

দেশবাসীর উদ্দেশ্যে ভাষণের সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) আহ্বান জানিয়েছিলেন, ৫ এপ্রিল রাত ৯টায় ৯ মিনিটের জন্য আলো বন্ধ করে মোমবাতি, টর্চ, প্রদীপ, মোবাইল জ্বালানোর। ৫ এপ্রিল সকালে প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে বিশেষ ঘোষণা, 'মোমবাতি জ্বালানোর আগে দয়া করে কেউ স্যানিটাইজারে (Sanitizer) হাত পরিষ্কার করবেন না!  মোদির যুক্তি, স্যানিটাইজারে অ্যালকোহল মেশানো থাকে। যার থেকে বড় কোনও দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।'

আগামীকাল কম্পিউটার, পাখা, এসি বন্ধ করার দরকার নেই; স্পষ্ট করে জানাল সরকার 

মোদির পাশাপাশি সেনাবাহিনিও জনগণের কাছে একই আবেদন জানিয়েছে। বদলে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া যেতে পারে বলে মত প্রধানমন্ত্রীর। নরেন্দ্র মোদী শুক্রবার ৫ এপ্রিল সম্মিলিত সংহতি প্রদর্শনের জন্য রাত নয়টায় লোকদের বাড়ির লাইট বন্ধ করে এবং তাদের মোবাইল ফোনের একটি বাতি, মোমবাতি বা ফ্ল্যাশলাইট জ্বালানোর আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে, রবিবার প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মতো মোমবাতি জ্বালাতে গিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ একেবারে বন্ধ করে দেওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই বলে জানাল সরকার। ৯ মিনিটের জন্য মোমবাতি, প্রদীপের আলো জ্বালানোর (candlelight session) সময় কম্পিউটার, ফ্যান, এসি বন্ধ করার দরকার নেই বলেই স্পষ্ট করল সরকার। “অনেকেই উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যে এর ফলে বিদ্যুতের গ্রিডে অস্থিতিশীলতা দেখা দেবে এবং ভোল্টেজের ওঠানামা হতে পারে যাতে বৈদ্যুতিক সরঞ্জামগুলির ক্ষতি হতে পারে। এই আশঙ্কা ভুল,” এক বিবৃতিতে জানিয়েছে বিদ্যুৎ মন্ত্রক। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “ভারতীয় বিদ্যুৎ বিভাগ সমর্থ এবং স্থিতিশীল এবং চাহিদার ভারসাম্যহীনতা সামাল দিতে পর্যাপ্ত সমস্ত ব্যবস্থা এবং নিয়ম প্রস্তুত রয়েছে।"

"তালি বাজিয়ে, আকাশে টর্চ মেরে সমস্যার সমাধান হবে না", টুইটে কটাক্ষ রাহুল গান্ধির

বিবৃতিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, “প্রধানমন্ত্রীর আবেদন খুব সহজ, ৫ এপ্রিল রাত ৯ টা থেকে রাত ৯.০৯ অবধি কেবল বাড়ির আলো নিভিয়ে রাখতে হবে। কম্পিউটার, টিভি, ফ্যান, রেফ্রিজারেটর এবং এসি বা মতো রাস্তার আলো বন্ধ করার কোনও কথাই বলা হয়নি। কেবল বাড়ির আলো বন্ধ রাখার অনুরোধ করা হয়েছে।”

প্রধানমন্ত্রী মোদি এই সপ্তাহেই একটি ভিডিও বার্তায়, রবিবার অর্থাৎ ৫ এপ্রিল ভারতবাসীদের তাদের ঘরের আলো বন্ধ রাখতে অনুরোধ করেন। পাশাপাশি ৫ এপ্রিল রাত ৯ টায় মোমবাতি, প্রদীপ এবং মোবাইলের ফ্ল্যাশলাইট ৯ মিনিটের জন্য জ্বালিয়ে রাখতেও অনুরোধ করেছেন।

রবিবার রাত ন'টার কর্মসূচি পালনে প্রভাবিত হবে না পাওয়ার গ্রিড: বিদ্যুৎ মন্ত্রক

মোদির আর্জি, ৫ এপ্রিল রাত ৯টায় ৯ মিনিটের জন্য বন্ধ রাখুন আলো