‘‘উত্তরপ্রদেশের জন্য কী অজুহাত দেবেন?’’: ৩৭০ ধারা বাতিল প্রসঙ্গে প্রশ্ন অখিলেশের

Kashmir Article 370: মঙ্গলবার সংসদে ৩৭০ ধারা রদের প্রস্তাব প্রসঙ্গে বিরোধিতা প্রদর্শন করলেন অখিলেশ যাদব।

 Share
EMAIL
PRINT
COMMENTS

৩৭০ ধারা বাতিল প্রসঙ্গে লোকসভায় তাঁর বিবৃতি পেশ করলেন অখিলেশ যাদব।


নয়াদিল্লি: 

৩৭০ ধারার (Article 370) কারণেই যদি জম্মু ও কাশ্মীরের (J&K) উন্নয়ন ব্যাহত হয়ে থাকে, তাহলে উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) উন্নয়ন না হওয়ার পিছনে কোন কারণ রয়েছে। সমাজবাদী পার্টির মুখ্য অখিলেশ যাদব স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে এই প্রশ্ন করলেন। মঙ্গলবার সংসদে ৩৭০ ধারা রদের প্রস্তাব প্রসঙ্গে এভাবেই বিরোধিতা প্রদর্শন করলেন অখিলেশ যাদব। তিনি লোকসভায় তাঁর বিবৃতি পেশ করার সময় বলেন, ‘‘আমাকে বলা হল এটার (৩৭০ ধারা বাতিল) ফলে কাশ্মীরে উন্নয়ন হবে। আমি তাতে খুশি হয়েছি। কিন্তু আমি জানতে চাই প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি, রাজ্যপাল, আপনি (স্পিকার) থাকা সত্ত্বেও যেখানে উত্তরপ্রদেশকে প্রতারিত হতে হয়েছে, সেখানে কী করে কেউ বলতে পারে কাশ্মীরের উন্নতি হবে?''

তিনি আরও বলেন, ‘‘আপনারা বলছেন স্বাধীনতার পর থেকে কাশ্মীরে ৭০ বছরে কিছুই হয়নি। আপনারা কি আপনাদের ক্ষমতায় থাকার ১১ বছর ধরেই বলছেন?''

"বাড়ির মধ্য়েই আটক আমি, মিথ্যা বলছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী": ফারুক আবদুল্লা

উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ মঙ্গলবার এভাবেই আক্রমণ করলেন কেন্দ্রীয় সরকারকে। তাঁর বক্তব্যে উঠে এল পাক অধিকৃত কাশ্মীর প্রসঙ্গও।

তিনি বলেন, ‘‘সরকারকে অবশ্যই উত্তর দিতে হবে পাক অধিকৃত কাশ্মীর কার অন্তর্গত। কেন জম্মু ও কাশ্মীরের বিধানসভায় ২৪টি আসন (পাক অধিকৃত কাশ্মীরের) খালি থাকে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কি নিশ্চিত করতে প‌ারবেন যে ওই আসনগুলি এবার থেকে ভর্তি থাকবে?''

‘‘আমি চিকিৎসক নই'': ফারুক আবদুল্লা সম্পর্কে প্রশ্নের জবাবে অমিত শাহ

মঙ্গলবার সরকার ও বিরোধীপক্ষের বাদানুবাদে সরগরম ছিল লোকসভা। সোমবার জম্মু ও কাশ্মীরের ‘স্পেশাল স্ট্যাটাস' তুলে নিতে পদক্ষেপ করেছে সরকার। রাজ্যকে দু'টি স্বশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার বিল পেশ করা হয়েছে।  সোমবার এই বিল পাস হয়ে গিয়েছে রাজ্যসভায়। বহু বিরোধী দলও সরকারকে সমর্থন জানিয়েছে। এই বিল অনুযায়ী জম্মু ও কাশ্মীর দু'টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত হবে। একটি জম্মু ও কাশ্মীর, যার আইনসভা থাকবে। অন্যটি লাদাখ, যার কোনও আইনসভা থাকবে না।

কাশ্মীরের নেট সংযোগ বা টেলিফোন পরিষেবা এখনও বহু অঞ্চলে বন্ধ। আটক রাজনৈতিক নেতাদের এখনও বন্দি রাখা হয়েছে। নিম্ন কক্ষে কেন জম্মু ও কাশ্মীর থেকে এত কম প্রতিনিধি উপস্থিত, এই নিয়েও বিতর্ক হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এদিন ল‌োকসভায় বলেন, ‘‘এটা রাজনৈতিক পদক্ষেপ নয়।'' কংগ্রেস সাংসদরা তাঁর বক্তব্য পেশের সময় বাধা দেন। তখন অমিত বলেন, ‘‘সংসদের পূর্ণ ক্ষমতা রয়েছে দেশের জন্য আইন প্রণয়ন করার। ভারতের সংবিধান এবং জম্মু ও কাশ্মীরের সংবিধানে এমন করার সম্মতি রয়েছে।''



পশ্চিমবঙ্গের খবর, কলকাতার খবর , আর রাজনীতি, ব্যবসা, প্রযুক্তি, বলিউড আর ক্রিকেটের সকল বাংলা শিরোনাম পড়তে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

NDTV Beeps - your daily newsletter

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................

................................ Advertisement ................................