ভাইয়ের শেষ পরিণতির জন্য রিয়া চক্রবর্তীকেই দুষলেন সুশান্তের দিদি

রিয়া চক্রবর্তী NDTV-র মুখোমুখি হয়ে বলেন যে তিনি সুশান্তকে ড্রাগ ছাড়ানোর সবরকম চেষ্টা করেছিলেন, পাশাপাশি এও অভিযোগ করেন, শান্তের অবসাদের কথা জেনেও তাঁর পরিবারের কেউ তাঁর পাশে দাঁড়াননি

ভাইয়ের শেষ পরিণতির জন্য রিয়া চক্রবর্তীকেই দুষলেন সুশান্তের দিদি

Shweta Kirti: রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ভাইয়ের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য মিডিয়াকে ব্যবহারের অভিযোগ আনলেন সুশান্তের দিদি (ফাইল ছবি)

নয়া দিল্লি:

অবসাদের বিরুদ্ধে যখন লড়াই করছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত (Sushant Singh Rajput) তখন তাঁর পরিবারের কেউই অভিনেতার পাশে এসে দাঁড়াননি, NDTV-কে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে এমন অভিযোগই করেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী। কিন্তু রিয়ার (Rhea Chakraborty) এই অভিযোগকে পুরোপুরি নস্যাৎ করে দিলেন সুশান্তের দিদি শ্বেতা সিং কীর্তি। তিনি (Shweta Singh Kirti) নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে বেশ কয়েকটি টুইটে নিজের ক্ষোভ উগরে দেন, #গডইসউইথআস #জাস্টিসফরসুশান্তসিংরাজপুত এবং # আরেস্টরিয়ানাউ এর মতো হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে। টুইটে তিনি একথাও লেখেন, "পরিবার সবসময় তাঁকে শক্তি দেওয়ার জন্য তাঁর পাশে ছিলো।"

রিয়া চক্রবর্তী সংবাদমাধ্যমকে ব্যবহার করে তাঁর ভাইয়ের ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করছে এবং নিজেকে বাঁচাতেই সুশান্তের নামের সঙ্গে মাদক ব্যবহারের মতো অভিযোগ এনেছে, একথাও বলেন সুশান্ত সিং রাজপুতের দিদি শ্বেতা সিং কীর্তি। এমনকী সুশান্ত যাতে তাঁর পরিবারের সঙ্গে বেশিক্ষণ যাতে থাকতে না পারে সেই জন্যে তাঁকে চণ্ডীগড়ে সেভাবে থাকতেই দেননি রিয়াই, এই অভিযোগও করেন শ্বেতা।

"জানুয়ারিতে ভাইকে রানিদিকে এসওএস কল করে জানায় যে, তাঁকে মাদকাসক্ত করে, সকলের থেকে বিচ্ছিন্ন করে রাখা হয়েছিলো। তারপর ও চণ্ডীগড় পৌঁছনোর পরেই মাত্র ২-৩ দিনের মধ্যে রিয়া অন্তত ২৫ বার ফোন করে ওকে ডাকাডাকি শুরু করে, কিন্তু কেন? ওকে ফেরানোর জন্য এত ব্য়স্ততার কী ছিল !!" #অ্যারেস্টরিয়া ব্যবহার করে এই টুইটটি করেন সুশান্তের দিদি শ্বেতা।

শ্বেতা এই দাবিও করেন যে, ভাইয়ের শরীর খারাপ শুনে তিনি আমেরিকা থেকে ভারতে ছুটে আসার পরেও সুশান্তের সঙ্গে তাঁর দেখা হয়নি, কারণ এমনভাবে রিয়া চক্রবর্তী ডাকতে থাকেন যে সুশান্তকে চণ্ডীগড় থেকে চলে আসতে হয়।

Newsbeep

"সবচেয়ে খারাপ ব্যাপার ছিলো য়ে, আমি পৌঁছনোর পরেও ওর সঙ্গে আমার দেখা হলো না, কারণ রিয়ার নিয়মিত ফোন কল এবং কিছু বাকি থাকা কাজের জন্য ভাই চণ্ডীগড় ছেড়ে চলে যেতে বাধ্য হয়। পরিবার সব সময় ওর পাশে ছিলো", #জাস্টিসফরসুশান্তসিংরাজপুত #গডইসউইথআস ব্যবহার করে টুইট করেন তিনি।

"যদি এমন হতো যে ভাই কখনো ওই মেয়েটির খপ্পরেই পড়তো না !! ওর সম্মতি ছাড়া ড্রাগ নিতে বাধ্য করা হতো এবং তারপর তাঁকে বিশ্বাস করানো হতো যে ও ভাল নয়, তারপর আবার ওকে মনোরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে নিয়ে গেলো ... কী না করেছে! এর থেকে তুমি কীভাবে মুক্তি পাবে? তোমার মন যখন যা চেয়েছে তুমি তাই করেছো!!" 

fs5nfs7g

রিয়া চক্রবর্তী বলেন যে, সুশান্তের অবসাদের কথা জেনেও তাঁর পরিবারের কেউ তাঁর পাশে দাঁড়াননি

সুশান্তের মৃত্যুর পর অভিযোগের (Sushant Singh Rajput case) কাঠগড়ায় তোলা হয়েছে রিয়া চক্রবর্তীকে। সম্প্রতি তিনি NDTV-র মুখোমুখি হয়ে নিজের হয়ে সওয়াল করেন। তিনি বলেন, "আমাকে ও আমার পরিবারকে ধ্বংস করার চেষ্টা করবেন না।" রিয়া চক্রবর্তী একথাও বলেন, সুশান্ত সিং মৃত্যু মামলায় ভিত্তিহীন অভিযোগে তাঁকে আক্রমণ করা হচ্ছে। এমনকী তাঁর পরিবারকে এই ঘটনার কারণে "অসহনীয় মানসিক চাপের" মুখোমুখি হতে হচ্ছে। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু তদন্তে সিবিআই ছাড়াও আরও অনেকগুলো সংস্থা তদন্ত করছে।

সুশান্ত সিং রাজপতের বাবার অভিযোগের জবাবে রিয়া চক্রবর্তী বলেন, "এটা অত্যন্ত দুঃখের বিষয় যে ছেলে হারানোর কষ্টে তাঁরা আমার সম্পর্কে যা বলছেন সেগুলো আমার উপর কী প্রভাব ফেলবে তা বুঝতে পারছেন না। আমি তাদের ছেলেকে ভালোবাসতাম, আমার প্রতি কি তাঁর কোনও মানবতা নেই? আমি তাঁর ছেলের যত্ন নিতাম। অন্ততপক্ষে মানবতা বলে তো একটা কথা আছে, আপনি যদি আমাকে ওঁর বান্ধবী হিসাবে পছন্দ নাও করেন তাহলেও অন্তত আমার প্রতি তাঁর ভালোবাসাকে তো শ্রদ্ধা করুন।" 



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)