This Article is From Jul 22, 2020

মেয়েদের সামনেই সাংবাদিকের মাথা লক্ষ্য করে গুলি দুষ্কৃতীদের, মিলল সিসিটিভি ফুটেজ

Journalist Vikram Joshi Death: এই সাংবাদিক খুনের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ইতিমধ্যেই ৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে, সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে ২ পুলিশ কর্মীকেও

Journalist Vikram Joshi: সাংবাদিককে আক্রমণের সিসিটিভি ফুটেজ মিলেছে, চলছে তদন্ত

হাইলাইটস

  • দুষ্কৃতীদের আক্রমণে প্রাণ হারালেন উত্তরপ্রদেশের সাংবাদিক
  • বিক্রম যোশী নামে ওই সাংবাদিককে লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা
  • ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৯ জন সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে
Ghaziabad:

বুধবার সকালে হাসপাতালে মৃত্যু হল সাংবাদিক বিক্রম যোশীর (Journalist Vikram Joshi)। গত সোমবার রাতে দিল্লির কাছে গাজিয়াবাদ এলাকায় নিজের দুই মেয়ের সামনেই গুলি করা হয় উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) ওই সাংবাদিককে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও শেষরক্ষা হয়নি (Journalist Vikram Joshi Dies)। নিজের বাড়ির কাছেই সাংবাদিক বিক্রম যোশীর উপর ওই ভয়ঙ্কর হামলা করা হয় যা সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়েছে। ওই ফুটেজে দেখা গেছে, তিনি (Vikram Joshi) নিজের দুই মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে বাইকে করে রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন, ঠিক সেই সময় একদল দুষ্কৃতী তাঁর উপর হামলা চালায়। খুব কাছ থেকে সাংবাদিককে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায় তাঁরা, ঘড়িতে তখন রাত প্রায় সাড়ে দশটা। গুলির শব্দে স্থানীয় মানুষজন ঘটনাস্থলে ছুটে আসে এবং গুলিবিদ্ধ হয়ে লুটিয়ে পড়া ওই সাংবাদিককে কাছের একটি হাসপাতালে সঙ্কটজনক অবস্থায় ভর্তি করে। যদিও শেষপর্যন্ত হাসপাতালেই মৃত্যু হয় তাঁর। সাংবাদিক বিক্রম যোশীর উপর হামলার ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ইতিমধ্যেই ৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে, সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে ২ পুলিশ কর্মীকেও।

"আমাদের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আছেন, তোমাদের কে?": বিজেপিকে তৃণমূলের প্রশ্ন

সাংবাদিকের পরিবারের অভিযোগ, সোমবার রাতের হামলার সঙ্গে তাঁর ভাইঝির হেনস্তার ঘটনার সম্পর্ক রয়েছে। হামলার দিন চারেক আগেই ওই সাংবাদিক বিজয়নগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তাতে তিনি উল্লেখ করেন যে, কয়েক জন তাঁর ভাইঝির সঙ্গে অশালীন আচরণ করছে। বিক্রম যোশীর পরিবারের দাবি, ভাইঝির সঙ্গে দুর্ব্যবহারে জড়িত অভিযুক্তরাই সাংবাদিকের উপর হামলা চালায়।

53n5abi8

সাংবাদিক বিক্রম যোশীকে আক্রমণের সেই ফুটেজ দেখলে গায়ে কাঁটা দিয়ে উঠবে

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, সোমবার রাতে দুই মেয়েকে নিয়ে বাইকে ফিরছিলেন বিক্রম যোশী। কয়েক জন দুষ্কৃতী হঠাৎই রাস্তার মাঝখানে তাঁর বাইকটি দাঁড় করিয়ে তাঁকে মারধর শুরু করে দেয়। ভয়ে দৌড়তে থাকে দুই মেয়ে। এর মধ্যেই ওই দুষ্কৃতীরা সাংবাদিককে একটি গাড়ির দিকে টেনে নিয়ে গিয়ে সেখানেই গুলি করে চম্পট দেয়। গুলিবিদ্ধ হয়ে রাস্তার উপরেই লুটিয়ে পড়েন ওই সাংবাদিক। এক মেয়ে ততক্ষণে বাবার কাছে ছুটে এসে তাঁর ওই অবস্থা দেখে কান্নাকাটি শুরু করে। এমনকী বাবাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য পথচলতি মানুষের কাছে সাহায্য চাইতেও দেখা যায় তাঁকে।

দেশে প্রায় ১২ লাখের কাছাকাছি মানুষ করোনা আক্রান্ত, তবে সুস্থতার হার ৬৩%

এই সাংবাদিক হত্যার ঘটনা সামনে আসার পর নিন্দায় সরব হয়েছেন রাহুল গান্ধিও। ওই কংগ্রেস নেতা উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকারকে আক্রমণ করেন। 

এদিকে ঘটনায় শোকপ্রকাশ করে টুইট করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তিনি লেখেন, "নির্ভীক সাংবাদিক বিক্রম যোশীকে হত্যা করা হয়েছে, তাঁর পরিবারের প্রতি আমার আন্তরিক সমবেদনা রইল। তাঁর ভাইঝির শ্লীলতাহানির প্রতিবাদ করে এফআইআর দায়েরের জন্যেই তাঁকে উত্তরপ্রদেশে গুলি করে মেরে ফেলা হয়েছে। সারা দেশেই এক ভয়ের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। কণ্ঠরোধ করা হচ্ছে। সংবাদমাধ্যমও এর থেকে রেহাই পাচ্ছে না। খুবই আতঙ্কের বিষয় এটা।"

একই ভাবে সাংবাদিক মৃত্যুর ঘটনায় তীব্র সমালোচনা করেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধিও।